ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ

ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজটি টাঙ্গাইল জেলার শহীদ সালাহউদ্দিন সেনানিবাসের অভ্যন্তরে প্রাকৃতিক পরিবেশে অবস্থিত। এটি জেলা শহর থেকে ৩৬ কি.মি. এবং ঘাটাইল উপজেলা সদর থেকে ৫ কি.মি. উত্তরে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়কের শাহ্পুর টি-জংশন থেকে তিন কি.মি. পূর্বে অবস্থিত। সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। [১]

ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ
GCPSC Logo.jpg
ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ
ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ
অবস্থান
শহীদ সালাউদ্দীন সেনানিবাস, ঘাটাইল, টাংগাইল

বাংলাদেশ
তথ্য
নীতিবাক্য“বিকশিত হও ভবিষ্যতের জন্য”
পৃষ্ঠপোষক সন্তমেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম, বিপি, ওএসপি, এনডিসি, পিএসসি
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৯১
কার্যক্রম শুরুসকাল ৮ ঘটিকা
বন্ধবিকাল ২ ঘটিকা
বিদ্যালয় জেলাটাঙ্গাইল
সভাপতিবিগ্রেডিয়ার জেনারেল তৌহিদুল আহমেদ, এএফডব্লিউসি , পিএসসি
অধ্যক্ষলেফটেন্যন্ট কর্নেল জি এম সারোয়ার, পিবিজিএমএস
শ্রেণীনার্সারী থেকে একাদশ
লিঙ্গছেলে- মেয়ে
বয়সসীমা৫-১৮ বছর
ভাষাবাংলা
ক্যাম্পাসের ধরনপ্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক
বর্ষপুস্তকপ্রদীপন
ওয়েবসাইট

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৯১ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে মানবিক ও বিজ্ঞান শাখা নিয়ে প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু। ১৯৯৬ সালে প্রাথমিক শাখা, ১৯৯৭ সালে নিম্ন মাধ্যমিক ও ১৯৯৯ সালে উচ্চ মাধ্যমিক ব্যবসায় শিক্ষা শাখা চালু করে। ২০০৮ সালে জাতীয় পাঠ্যক্রমের আওতায় ইংরেজি মাধ্যম চালু করা হয়।[২]

মূলনীতি ও প্রতীকসম্পাদনা

প্রতিষ্ঠান মূলনীতি হলো “বিকশিত হও ভবিষ্যতের জন্য”।[৩] প্রতিষ্ঠান প্রতীক হলো হলুদ বর্ণের বর্ডার সম্বলিত নেভি ব্লু বৃত্ত এবং বৃত্তের ভিতর ইংরেজিতে বড় হাতের G বর্ণ এবং বৃত্তটির নিচে  লেখা GHATAILIANS। যা ঘাটাইলে অবস্থিত আধুনিক প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ করে।[৪]

বিবরণসম্পাদনা

ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে পরিচালিত। কলেজের অধ্যক্ষ সামরিক বাহিনীর অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল  জি এম সারোয়ার।

গ্রুপ বিভাজনসম্পাদনা

ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এ কলেজ শাখায় মোট ১১ টি গ্রুপ আছে । এর মধ্যে ৫টি বিজ্ঞান শাখার, ৪টি ব্যবসায় শিক্ষা, ২টি মানবিক বিভাগের গ্রুপ রয়েছে।

এবং স্কুল শাখায় রয়েছে মোট ২৮ টি শাখা ।[৫]

কলেজের সময়-সূচিসম্পাদনা

প্রতি সপ্তাহে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা হতে দুপুর ২ টা পর্যন্ত শ্রেণি কার্যক্রম হয় । প্রতি শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকে। তবে শনিবার কলেজ নিয়ন্ত্রিত শিক্ষক এর মাধ্যমে ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট ক্লাস ও বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি বিষয়ক ক্লাস এর জন্য শনিবার খোলা থাকে ।[৬]

পোষাক বিবরণীসম্পাদনা

ছেলেসম্পাদনা

গ্রীষ্মকালীন পোশাকঃ

  1. হাফ হাতা সাদা শার্ট
  2. কালো বেল্ট
  3. নেভি ব্লু প্যান্ট
  4. সাদা কেডস

শীতকালীন পোষাকঃ

  1. ফুল হাতা সাদা শার্ট
  2. সবুজ ও লাল চেক টাই
  3. পুলওভার নেভি ব্লু সোয়েটার
  4. কালো বেল্ট
  5. নেভি ব্লু প্যান্ট
  6. সাদা কেডস

মেয়েসম্পাদনা

গ্রীষ্মকালীন পোশাকঃ

  1. নীল কামিজ
  2. সাদা ক্রস বেল্ট
  3. নীল কাপড়ের বেল্ট
  4. সাদা পায়জামা
  5. সাদা কেডস

শীতকালীন পোষাকঃ

  1. নীল কামিজ
  2. সাদা ক্রস বেল্ট
  3. পুলওভার নেভি ব্লু কার্ডিগান
  4. নীল কাপড়ের বেল্ট
  5. সাদা সালোয়া
  6. সাদা কেডস

গ্রন্থাগারসম্পাদনা

প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় 50 আসন বিশিষ্ট  সহস্রাধিক বইয়ের সমাহার রয়েছে লাইব্রেরীতে । কলেজে ভর্তির সাথে সাথে ছাত্ররা গ্রন্থাগারের সদস্য হয়ে যান এবং লাইব্রেরি কার্ড পেয়ে যান। গ্রন্থাগারে নিয়মিত ৪ টি দৈনিক পত্রিকা, ১টি সাপ্তাহিক ও ৪টি মাসিক ম্যাগাজিন রাখা হয়। এছাড়া অনেক গুরুত্বপূর্ণ জার্নাল ও ম্যাগাজিন অনিয়মিতভাবে রাখা হয়। বইসমূহ লাইব্রেরি কার্ডের প্রেক্ষিতে ধার নেয়া যায়, তবে অভিধান, এনসাইক্লোপিডিয়া, হ্যান্ডবুক ইত্যাদি দুষ্প্রাপ্য বইসমূহ কেবল গ্রন্থাগারেই ব্যবহার্য।

খেলাধুলাসম্পাদনা

কলেজ পর্যায়ের খেলাধুলায় ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ বিভিন্ন সময় প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছে। কলেজ প্রাঙ্গণে ফুটবল, ক্রিকেট ইত্যাদি আউটডোর খেলার সুবিধা দিতে বিশাল মাঠ রয়েছে। এছাড়া আছে বাস্কেটবল মাঠ ,ব্যাডমিন্টন মাঠ, হ্যান্ডবল মাঠ । কলেজে আছে ইনডোর খেলার সুব্ধাও । সেখানে শিক্ষার্থীরা টেবিল টেনিস, দাবা খেলতে পারে ।  কলেজের ছাত্রদেরকে খেলাধুলার সুবিধা দিতে রয়েছে একটি খেলার সরঞ্জাম ধার দেয়ার অফিস। সেখানে ছাত্ররা নিজেদের কলেজ আইডি কার্ড প্রদর্শনপূর্বক বিভিন্ন প্রকার খেলাধুলার সামগ্রী বিনামূল্যে সংগ্রহ করতে পারেন।

বিজ্ঞানাগারসম্পাদনা

প্রতিষ্ঠান রয়েছে অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরি ।  অর্ধকোটি অর্থে ল্যাবরেটরি তে নির্মিত রয়েছে সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা ।  সেখান থেকে যেকোনো ধরনের রাসায়নিক পরীক্ষা এবং শিক্ষা গ্রহণ করে থাকে । প্রতিষ্ঠানটিতে ব্যবহারিক শিক্ষার উপর বিশেষ জোর দেয়া হয় ।[৭]

কমন রুমসম্পাদনা

প্রতিষ্ঠানটির মেয়েদের জন্য রয়েছে কমনরুম যেখানে  যে কোন বিরতিতে বই, পত্রিকা এবং বিভিন্ন ধরনের ইনডোর গেমস চলতে পারে

ক্যান্টিন ও সততা কর্নারসম্পাদনা

কলেজে অভ্যন্তরে রয়েছে আধুনিক নিজস্ব ক্যান্টিন যেখান থেকে শিক্ষার্থীরা স্বল্পমূল্যে তাদের প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয় করতে পারে এবং শিক্ষার্থীদের সততা  বৃদ্ধিতে শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে সততা কর্নার যেখানে শিক্ষার্থীরা বিক্রেতা বিহীন দোকান থেকে দ্রব্যাদি কিনে নিজেদের সততার পরিচয় দিয়ে থাকে ।

শিক্ষা-সহায়ক কার্যক্রমসম্পাদনা

লেখাপড়ার পাশাপাশি ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ শিক্ষা-সহায়ক কার্যক্রমকেও বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। এ কারণে প্রতিবছর মাধ্যমিক ও  উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষায় ভালো ফল অর্জনের পাশাপাশি দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় এ কলেজের ছাত্ররা বরাবরই ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করে আসছে। কলেজের ক্লাব সমূহ হলোঃ

  1. বিতর্ক ক্লাব
  2. গনিত ক্লাব
  3. বিজ্ঞান ক্লাব
  4. সাধারণ জ্ঞান ক্লাব
  5. নাটক ও আবৃত্তি ক্লাব
  6. সঙ্গীত ক্লাব
  7. ইংরেজি ভাষা ক্লাব
  8. ICT club
    প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন একটি ক্লাবের সাথে যুক্ত ।[৮]

বিশেষ সংগঠনঃ

প্রতিষ্ঠানের নিয়ম শৃঙ্খলা রক্ষায় রয়েছে কিছু বিশেষ সংগঠন । তারা কলেজের নিয়ম শৃঙ্খলা রক্ষায় প্রতিষ্ঠানকে সাহা্য্য করে থাকে ।

  1. রোভার স্কাউট ও গার্লস গাইড [৯]
  2. বিএনসিসি [১০]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা