কোলং নদী

ভারতের নদী

কোলং নদী বা কাইলাং (অসমীয়া:কলং) হল ব্রহ্মপুত্র নদের একটি উপনদী, যা অসমের নগাঁওয়ের কাছে ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে উতসারিত হয়ে আবার গুয়াহাটির কাছে গিয়ে ব্রহ্মপুত্রতে মিশেছে। উপনদীটি প্রায় ২৫০ কিলোমিটার (১৬০ মা) দীর্ঘ এবং নগাঁও, মরিগাঁও এবং কামরূপ জেলাগুলির মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত; পথে, বেশ কয়েকটি ছোট নদী (যেমন দিজু, মিসা এবং অন্যান্য) এর সাথে মিলিত হয়। এই নদীটি নগাঁও শহরতলির কেন্দ্রস্থল দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে এবং শহরটিকে নগাঁও এবং হয়বরগাঁওয়ে বিভক্ত করেছে।

ভারতের আসামের নগাঁওতে কোলং নদীর অপরূপ সৌন্দর্য

ইতিহাস এবং সাংস্কৃতিক প্রভাব সম্পাদনা

ঔপনিবেশিক যুগে, যদিও নদীটি যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের জন্য বহুল ব্যবহৃত হত বলে জানা যায়, যেহেতু সেই সময়ে সড়ক এবং রেল সংযোগ অনুন্নত ছিল, নদী পরিবহনের বেশি প্রয়োজন ছিল। এ কারণেই ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক প্রশাসন নদীর তীরে প্রায় পুরানিগুদামে জেলা সদর স্থাপন করেছিল।

অতীতে বর্ষাকালে নদীটি বর্তমান নগাঁও ও মরিগাঁও জেলাগুলির নিম্নভূমি অঞ্চলগুলিতে বন্যার দ্বারা বিপর্যয় সৃষ্টি করত, কারণ এটি ব্রহ্মপুত্র থেকেও প্রচুর পরিমাণে জলপ্রবাহ পেত। ১৯৬০ এর দশকের একসময়, এরকমই এক বন্যায় নগাঁও শহরের অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়েছিল। পরবর্তীকালে জাখালবান্ধার হাতিমুরা অঞ্চলে নদীর মুখ স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, ফলে নদীটি কেবলমাত্র ছোট নদী গুলি থেকে ব্রহ্মপুত্রের জল পেতে পারে।

দূষণের বিষয় সম্পাদনা

২০১৩ সালে, কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের (সিপিসিবি) রিপোর্টে কোলং নদী ভারতের সবচেয়ে দূষিত নদীগুলির মধ্যে একটি হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছিল। দূষণের প্রাথমিক কারণ ছিল নদীর তীরবর্তী শহর ও জনগোষ্ঠীর নর্দমা এবং জৈব স্রাবদূষণের প্রধান অবদান রাখে মিসা নদী, দিজু নদীর প্রবাহ এবং নগাঁও শহরে বর্জ্য পদার্থ[১]

আরও দেখুন সম্পাদনা

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Pollution Control Board Assam Conservation of river Kolong at Nagaon" (পিডিএফ)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১৮