কুম্ভকার বা কুমোর একটি পেশা। এই পেশার মানুষ মৃৎশিল্পী - মাটি দিয়ে নানা রকম পাত্র, খেলনা, মূর্তি ইত্যাদি তৈরি করে। কুম্ভকার শব্দটির অর্থই হল কুম্ভ অর্থাৎ কলসি গড়ে যে শিল্পী। কুমোররা মিলে যে পাড়ায় থাকে তাকে বলে কুমোরপাড়া বা কুমোরটুলি। কুমোররা গোল আকৃতির জিনিস বানাবার জন্যে একটি ঘুরন্ত চাকা ব্যবহার করে। এটাকে চলতি কথায় 'চাক' বলে।

কুমোরের হাতে তৈরি হচ্ছে মাটির পাত্র
একজন কুমোর
কুমোরের মাটির পাত্র পোড়ানোর চুল্লি

কুমোর পাড়া ধুঁকছেসম্পাদনা

অতীতে আমাদের সমাজে মাটির তৈরি বাসন থেকে আরম্ভ করে প্রদীপ ইত্যাদি বিভিন্ন ঘরকন্নার জিনিস ব্যবহৃত হোত। কিন্তু দিন বদলের সঙ্গে সঙ্গে ধাতুর তৈরি বাসনপত্র ব্যবহার হতে শুরু করার পর মাটির জিনিসের কদর ক্রমশ কমতে থাকে। উদাহরণ স্বরূপ, বর্তমানে আলোর উৎসব দীপাবলিতে মাটির প্রদীপের জায়গা নিয়েছে টুনি বাল্ব অর্থাৎ বিজলি বাতি। এর ফলে সেই চিরাচরিত মাটির প্রদীপ প্রস্তুতকারী কুমোরদের অবস্থা আজ খুবই শোচনীয়। দু-চার জন কুমোর বাপ-ঠাকুরদার পুরোনো পেশা আঁকড়ে পড়ে থাকেলও নবীন কুমোর সমাজ আজ অন্য পেশার দিকেই পা বাড়াতে বাধ্য হচ্ছেন।[১]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "এলইডির কাছে হারছে মাটির প্রদীপ » CALCUTTA NEWS Kolkata Live News Channel, Bengali News"CALCUTTA NEWS (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ অক্টোবর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০২০