কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো

কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো (ওয়াইলি: kun dga' bzang po) (১৩৮২-১৪৫৬) তিব্বতের ঙ্গোর-এ-বাম-ছোস-ল্দান বৌদ্ধবিহারের প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রথম ঙ্গোর-ছেন ছিলেন।

কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো

জন্মসম্পাদনা

কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো ১৩৮২ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতের সা-স্ক্যা বৌদ্ধবিহারে জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতার নাম ছিল ব্সোদ-নাম্স-দ্পাল-ল্দান (ওয়াইলি: bsod nams dpal ldan)। মুস-ছেন-সেম্স-দ্পা'-ছেন-পো-দ্কোন-ম্ছোগ-র্গ্যাল-ম্ত্শান (ওয়াইলি: mus chen sems dpa' chen po dkon mchog rgyal mtshan) নামক কুন-দ্গা'-ব্জাং-পোর প্রধান শিষ্য দ্বারা রচিত জীবনীগ্রন্থানুসারে তার পিতার নাম ছিল দ্পোন-ত্শাং-গ্রুব-পা-য়োন-তান (ওয়াইলি: dpon tshang grub pa yon tan)।[১]

শিক্ষাসম্পাদনা

নয় বছর বয়সে তিনি য়ে-শেস-র্গ্যাল-ম্ত্শান (ওয়াইলি: ye shes rgyal mtshan) নামক ভিক্ষুর নিকট শিক্ষার্থীর শপথ এবন পরবর্তীকালে ভিক্ষুর শপথ গ্রহণ করেন। পঁচিশ বছর বয়সে তিনি শাংস-ছোস-'খোর-স্গাং (ওয়াইলি: shangs chos 'khor sgang) নামক স্থানে স্ক্যাব্স-ম্ছোগ-দ্পাল-ব্জাং (ওয়াইলি: skyabs mchog dpal bzang) নামক ভিক্ষু এবং ঝে বৌদ্ধবিহারে সাংস-র্গ্যাস-দ্পাল (ওয়াইলি: sangs rgyas dpal) নামক পন্ডিতের নিকট মার্গফল সম্বন্ধে অধ্যয়ন করেন। এছাড়া তার উল্লেখযোগ্য শিক্ষক ছিলেন দ্পাল-ল্দান-ত্শুল-খ্রিম্স (ওয়াইলি: dpal ldan tshul khrims), কুন-দ্গা'-র্গ্যাল-ম্ত্শান (ওয়াইলি: kun dga' rgyal mtshan) এবং গ্ঝোন-নু-ব্লো-গ্রোস (ওয়াইলি: gzhon nu blo gros)।[১]

ঙ্গোর-এ-বাম-ছোস-ল্দান বৌদ্ধবিহার প্রতিষ্ঠাসম্পাদনা

১৪২৯ খ্রিষ্টাব্দে তিনি ঙ্গোর-এ-বাম-ছোস-ল্দান বৌদ্ধবিহার (ওয়াইলি: ngor e waM chos ldan) প্রতিষ্ঠা করেন যা পরবর্তীকালে সা-স্ক্যা ধর্মসম্প্রদায়ের ঙ্গোর গোষ্ঠীর মূলকেন্দ্রে পরিণত হয়। কুন-দ্গা'-ব্জাং-পোর আত্মজীবনী অনুসারে তিনি নিরিবিলিতে সাধনার উদ্দেশ্যে ও তৎকালীন রাজনীতিতে অত্যন্ত সক্রিয় সা-স্ক্যা ধর্মসম্প্রদায় থেকে দূরে থাকতে এই বিহার স্থাপন করেন। এই বিহারের পাঠ্যক্রম সা-স্ক্যা ধর্মসম্প্রদায়ের ঐতিহ্যানুসারেই পরিচালিত হত এবং এই বিহার মার্গফল তত্ত্বের ত্শোগ্স-ব্শাদ (ওয়াইলি: tshogs bshad) নামক ঐতিহ্যের মূল পীঠস্থান ছিল। কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো এই বিহারের মূল মন্দির, মহাবিদ্যালয় ও প্রচুর মূর্তি নির্মাণের ব্যবস্থা করেন।[১]

মুস্তাং যাত্রাসম্পাদনা

আ-মা-দ্পাল (ওয়াইলি: a ma dpal) নামক মুস্তাং রাজ্যের রাজার আমন্ত্রণে তিনি ১৪২৭ ও ১৪৩৬ খ্রিষ্টাব্দে এবং আ-ম্গোন-ব্জাং (ওয়াইলি: a mgon bzang) নামক পরবর্তী রাজার আমন্ত্রণে ১৪৪৭ খ্রিষ্টাব্দে কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো মুস্তাং যাত্রা করেন। এই তিনবার যাত্রায় তিনি স্তেং-ছেন-'দুল-গ্র্বা-স্দোম-গ্সুম-গ্লিং (ওয়াইলি: steng chen 'dul grwa sdom gsum gling), ব্রাগ-দ্কার-গ্যি-ছোস-স্দে-থেগ-ছেন-দার-র্গ্যাস-গ্লিং (ওয়াইলি: brag dkar gyi chos sde theg chen dar rgyas gling) এবং ব্যাম্স-পা-ল্হা-খাং (ওয়াইলি: byams pa lha khang) নামক তিনটি মঠ স্থাপন করেন। এছাড়াও তিনি আ-মা-দ্পালকে দীক্ষাদান করেন।[১]

শিষ্যসম্পাদনা

পরবর্তী ছয়জন ঙ্গোর-এ-বাম-ছোস-ল্দান বৌদ্ধবিহারের প্রধান বা ঙ্গোর-ছেন ছাড়াও তার উল্লেখযোগ্য শিষ্য ছিলেন স্মার-খাম্স-পা-গ্রাগ্স-পা-ব্জাং-পো (ওয়াইলি: smar khams pa grags pa bzang po) পান-ছেন-'বুম-ফ্রাগ-গ্সুম-পা (ওয়াইলি: paN chen 'bum phrag gsum pa), কুন-দ্গা'-দ্পাল-'ব্যোর নামক দ্বিতীয় দ্রুকছেন প্রভৃতি।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Townsend, Dominique (2010-04)। "Ngorchen Kunga Zangpo"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগ্রহের তারিখ 2014-04-29  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

আরো পড়ুনসম্পাদনা

  • Heimbel, Jörg. Forthcoming. "Biographical Sources for Researching the Life of Ngor chen Kun dga’ bzang po (1382–1456)." In Proceedings of the 2009 International Society of Young Tibetologists, Paris.
পূর্বসূরী
--
কুন-দ্গা'-ব্জাং-পো
প্রথম ঙ্গোর-ছেন
উত্তরসূরী
মুস-ছেন-সেম্স-দ্পা'-ছেন-পো-দ্কোন-ম্ছোগ-র্গ্যাল-ম্ত্শান