কাকলি ঘোষ দস্তিদার

ভারতীয় রাজনীতিবিদ

কাকলি ঘোষ দস্তিদার হলেন একজন ভারতীয় স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ও পশ্চিম বঙ্গের মহিলা রাজনীতিবিদ। তিনি ভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নারী শাখা বঙ্গ জননী বাহিনীর সভানেত্রী। তিনি ১৫তম লোকসভার সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন, এরপর ২০০৯ সালে ১৬তম লোকসভা নির্বাচনে পুনরায় নির্বাচিত হন এবং সর্বশেষ ২০১৯ সাধারণ নির্বাচনে ১৭তম লোকসভার সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

কাকলি ঘোষ ১৯৫৯ সালের ২৫ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। পশ্চিমবঙ্গ এবং ভারতীয় রাজনীতি ও সরকারের সাথে তার পরিবারের তিন প্রজন্ম ধরে ঘনিষ্ঠ সংযোগ রয়েছে। তার নানা পশ্চিমবঙ্গের পোস্টমাস্টার জেনারেল হিসেবে কাজ করেছেন। তার চাচা অরুণ মৈত্র ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের যোদ্ধা এবং রাজ্য কংগ্রেসের নেতা ছিলেন। তার মামা গুরুদাস দাশগুপ্ত ভারতের সংসদের বর্তমান সংসদ সদস্য।

ডাঃ কাকলি ঘোষ দস্তিদার কলকাতার আর জি কার মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা সেবায় এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জন করেন, যা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত। তিনি অবস্টেট্রিক আল্ট্রাসাউন্ডে স্নাতকোত্তর প্রশিক্ষণও করেছিলেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

কাকলি বর্তমানে ভারতের জাতীয় সংসদের নিম্ন কক্ষ লোকসভার সদস্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত কমিটির সদস্য।

ঘোষের দৃষ্টান্তের একটি সামাজিক-রাজনৈতিক পরিবেশে বেড়ে উঠেছেন। পাবলিক সার্ভিসের একটি পারিবারিক উত্তরাধিকারী পাশাপাশি, এমপি তার বংশের জনগণের জন্য সেবা করার জন্য তার জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। তিনি পথ নারী ও শিশুদের জন্য দক্ষিণ ২৪ পরগনায় একটি স্কুল এবং ডিসপেনসারি বাস্তবায়ন করতে সাহায্য করেছেন।

কাকলি ২০০৯ সালের ভারতীয় লোকসভা নির্বাচনে বাসারত লোকসভা কেন্দ্র থেকে অংশগ্রহণ করেন এবং ১২২,৯০১ ভোটের বিশাল ব্যবধানে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ৫২২৫৩০ ভোট পেয়েছিলেন। এর পূর্বে তিনি ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে পরাজিত হন এবং তার‌ও আগে হাওড়া লোকসভা কেন্দ্র ও বালিগঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন কিন্তু পরাজিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৪ সাধারণ নির্বাচনে বাসারত লোকসভা কেন্দ্র পুনরায় নির্বাচিত হন এবং ভোট পেয়েছিলেন ৫২৫৩৮৭ টি, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল ফর‌ওয়াট ব্লকের মোর্তজা হোসেন। ২০১৯ সাধারণ নির্বাচনে এক‌ই কেন্দ্র থেকে পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন, এবার তিনি ভোট পেয়েছিলেন ৬৪৮৫৫৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল বিজেপির মৃণাল কান্তি দেবনাথ, তিনি ভোট পেয়েছিলেন ৫৩৮২৭৫ ভোট। কাকলি ৪৬.৪৭% ভোট পেয়েছিলেন, যা পূর্বে চেয়ে ৫.০৮% বেশি।

পছন্দসম্পাদনা

কাকলির অবসর সময়ে প্রিয় সঙ্গীত, বাগান এবং পড়া শোনার মধ্যে কাটানো পছন্দ করেন। তিনি সাঁতার কাটা এবং টেনিস খেলতে পারেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা