কলিকাতা জাতীয় আয়ুর্বিজ্ঞান বিদ্যামন্দির

ভারতের একটি হাসপাতাল

কলিকাতা জাতীয় আয়ুর্বিজ্ঞান বিদ্যামন্দির বা ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ (Calcutta National Medical College) পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল গুলির মধ্যে অন্যতম ।

কলিকাতা জাতীয় আয়ুর্বিজ্ঞান বিদ্যামন্দির
অবস্থান
২৪, গোরাচাঁদ রোড
কলকাতা - ৭০০০২৪
পশ্চিমবঙ্গ, ভারতFlag of India.svg
অধিভুক্তি১)কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় [১]
২) পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় (২০০৩-বর্তমান)[২]

ইতিহাসসম্পাদনা

ক্যালকাটা মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটসম্পাদনা

১৯০৭ খ্রিষ্টাব্দে ডঃ সুবোধ কুমার মল্লিক ১৯১, বৌবাজার স্ট্রীটে রয়্যাল কলেজ অব ফিজিসিয়ান্স অ্যান্ড সার্জেন্স প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯১১ খ্রিষ্টাব্দে এই প্রতিষ্ঠান মহারাজা মনীন্দ্র চন্দ্র নন্দীর দান করা ৩০১/৩ আপার সার্কুলার রোডের জমিতে স্থানান্তরিত করা হয় এবং ৩০ শয্যার অন্তর্বিভাগ বিশিষ্ট ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অব ইন্ডিয়া স্থাপিত হয়।

১৯১০ খ্রিষ্টাব্দে ১৯১, বৌবাজার স্ট্রীটে ক্যালকাটা ফ্রি হসপিটাল স্থাপিত হয়, যার নাম কিছুদিন পরে কিং'স হসপিটাল রাখা হয়।

১৯২৩ খ্রিষ্টাব্দের মে মাসে বেঙ্গল কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রেজিস্ট্রেশনে অন্তর্ভুক্তির উদ্দেশ্যে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অব ইন্ডিয়া এবং কিং'স হসপিটাল এই দুই প্রতিষ্ঠানকে একত্রীভূত করে ক্যালকাটা মেডিক্যাল ইনস্টিটিউট নাম রাখা হয়। [১]

ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটসম্পাদনা

১৯২১ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ই এপ্রিল ১১, ওয়েলিংটন রোডের ফোর্ব'স ম্যানসনে ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউট স্থাপিত হয় যা কিছুদিন পরে মহারাজা মনীন্দ্র চন্দ্র নন্দীর দান করা ১৮৯, মানিক্তলা মেন রোডের জমিতে স্থানান্তরিত করা হয়। এর পরে কর্তৃপক্ষ তাদের নিজস্ব ন্যাট এম.বি. সার্টিফিকেট চালু করেন এবং ১৯২৭ খ্রিষ্টাব্দে স্টেট মেডিক্যাল ফ্যাকাল্টি অব বেঙ্গল এল.এম.এফ. ডিগ্রী অনুমোদন করে।

১৯২৫ খ্রিষ্টাব্দে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস কলকাতা পৌরসংস্থার মহানাগরিক থাকার সময়ে ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটের হাসপাতাল নির্মাণের জন্য ২৪, গোরাচাঁদ রোডের এগারো বিঘা জমি নিরান্নবই বছরের জন্য লীজ দেন। ১৯২৭ খ্রিষ্টাব্দের ২০শে ফেব্রুয়ারি কলকাতা পৌরসংস্থার তৎকালীন মহানাগরিক দেশপ্রিয় যতীন্দ্রমোহন সেনগুপ্ত ১৫০ শয্যা বিশিষ্ট তিন তলা হাসপাতাল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং হাসপাতালের নাম রাখা হয় চিত্তরঞ্জন হাসপাতাল। এর প্রথম তলায় প্রশাসনিক কার্যালয়, দ্বিতীয় তলায় অন্তর্বিভাগ এবং তৃতীয় তলায় চিকিৎসক ও সেবিকাদের বাসস্থান তৈরী হয়।

১৯৩০ খ্রিষ্টাব্দে কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের পঠনপাঠনের জন্য কলকাতা উন্নয়ন সংস্থার কাছ থেকে ৩২, গোরাচাঁদ রোডের তেরো বিঘা জমি ক্রয় করে। ১৯৩১ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে দুটি দুই তল বিশিষ্ট ভবন তৈরী হয়। [১]

ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটসম্পাদনা

১৯৪৮ খ্রিষ্টাব্দের জুন মাসে ক্যালকাটা মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউট এই দুই প্রতিষ্ঠানকে একত্রীভূত করে ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউট স্থাপিত হয়। ক্যালকাটা মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটের ৩০১/৩, আপার সার্কুলার রোডের জমি বিক্রয় করে দেওয়া হয়।[১]

ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজসম্পাদনা

১৯৬৪ খ্রিষ্টাব্দে ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটের নাম পরিবর্তন করে ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ রাখা হয়। ১৯৬৭ খ্রিষ্টাব্দে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এই প্রতিষ্ঠানকে অধিগ্রহণ করে এবং ১৯৭৬ খ্রিষ্টাব্দের ৫ই মার্চ এর জাতীয়করণ হয়।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তন ছাত্রদের ওয়েবসাইট ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১০ জুলাই ২০১৩ তারিখে,ক্যালকাটা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের ইতিহাস