প্রধান মেনু খুলুন

কলম্বো বন্দর

শ্রীলঙ্কান রাজধানী বন্দর

কলম্বো বন্দর[২] হল শ্রীলঙ্কার সর্ববৃহৎ সমুদ্রবন্দর। এই বন্দর দ্বারাই দেশটির বেশির ভাগ ব্যবসা বাণিজ্য চলে প্রতিবেশী ও অন্যান্য দেশগুলির সঙ্গে। বন্দরটি শ্রীলঙ্কার পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত। কলম্বো বন্দরটি শ্রীলঙ্কার রাজধানী ও বৃহত্তম শহর তথা বাণিজ্য শহর কলম্বোতে অবস্থিত।বন্দরটি কালানী নদীর মোহনায় গড়ে উঠেছে। এটি পৃথিবীর মধ্যে ব্যস্ত পূর্ব-পশ্চিম জাহাজ পথ এর খুব কাছেই অবস্থিত। এই বন্দরটি জাহাজ পথটি থেকে ৫-১০ নটিকাল মাইল দূরে অবস্থিত। ১৯৮০ সাল থেকেই কলম্বো বন্দরের উন্নয়ন বা আধুনিকীকরণ শুরু হয়।বর্তমানে বন্দরটি পৃথিবীর ব্যস্ততম সমুদ্র বন্দর।এটি পৃথিবীর ৩৫ তম বৃহত্ত কন্টেইনার বন্দর।বন্দরটি ভারত মহাসাগর এর এক গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থিত। দেশটির অর্থনীতিতে বন্দরটির গুরুত্ব অপরিসীম।

কলম্বো বন্দর
ColomboHarbour-SriLanka02.jpg
কলম্বো বন্দরে কন্টেইনার খালাসের দৃশ্য
অবস্থান
দেশ শ্রীলঙ্কা
অবস্থানকলম্বো, পশ্চিম প্রদেশ
বিস্তারিত
মালিকশ্রীলঙ্কা সরকার
আকার৪.৮ বর্গকিলোমিটার (১.৯ মা)
উপলব্ধ নোঙরের স্থান৫১
Piers২৭
গভীরতা১৫ মিটার (৪৯ ফু)
পরিসংখ্যান
বার্ষিক কার্গো টন৩০.৯ মিলিয়ন টন (২০০৮)
বার্ষিক কন্টেইনারের আয়তন৫.৭ মিলিয়ন টিইইউএস [১] (TEUs)

বর্তমানে ৫.৭ মিলিয়ন টিএইউ (TEU) কন্টেইনার খালাসের ক্ষমতা এবং ১৫ মিটার (৪৯ ফুট) গভীরতার[৩] কলম্বো বন্দর বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ততম বন্দরগুলির মধ্যে একটি এবং সর্বোচ্চ ৩৫ বন্দরগুলির মধ্যে একটি। এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় কৃত্রিম আশ্রয়স্থলগুলির মধ্যে অন্যতম। এটি দেশের বৈদেশিক বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করে।[৪] এটি বছরে ৩০.৯ মিলিয়ন টন কার্গো পরিবহন করে। [৫] কলম্বো বন্দরেই রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্তরের ভবন এবং এটি অনেক বাণিজ্যিক স্বার্থের কেন্দ্রস্থল। শ্রীলঙ্কার নৌবাহিনী পশ্চিম ফ্লেট কমান্ডার ওয়েস্টার্ন নেভাল এরিয়া (কমওয়াস্ট) -এর অধীনে নৌ-বেসও রয়েছে এই বন্দরে।

পরিচ্ছেদসমূহ

অবস্থানসম্পাদনা

কলম্বো বন্দরটি শ্রীলঙ্কার পশ্চিম উপকূলে পশ্চিম প্রদেশে অবস্থিত। বন্দরটি ৬.৫৭ উত্তর ও ৭৯.৫০ পূর্বে অবস্থিত। এটি সমুদ্র সমতল থেকে ১-৩ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। কলম্বো বন্দরটি ভারত মহাসাগরের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য পথ থেকে ৫-১০ নটিক্যাল মাইলের মধ্যে অবস্থিত। বন্দরটি কালানী নদীর মোহনায় কৃত্রিম পোতাশ্রয় দ্বারা ভারত মহাসাগরে গড়ে উঠেছে। এই বন্দরটি মাগামপুর মহিন্দ্রা রাজাপাকশে বন্দর বা হাম্বানটোটা বন্দর থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এই বন্দর থেকে ভারতের সব থেকে কাছের বন্দর হল তুতিকোরিন বন্দর। এই বন্দরটি কলম্বো বন্দর থেকে ১৫০-১৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রথম ইতিহাসসম্পাদনা

আরও দেখুন: শ্রীলংকান মুর

২০০০ বছর আগে কলম্বো বন্দর রোমান, আরব এবং চীনা ব্যবসায়ীদের কাছে পরিচিত ছিল। ৮ ম শতাব্দীতে, আরব মুসলিম ব্যবসায়ীরা কলম্বোতে বিশ্বের যে অংশে তাদের বাণিজ্যের জন্য একটি ভিত্তি হিসাবে বসতি স্থাপন করে। আজ, তারা স্থানীয় শ্রীলঙ্কান মুর সম্প্রদায়কে গড়ে তুলেছে। [৪]

পোতাশ্রয়সম্পাদনা

কলম্বো বন্দরের পোতাশ্রয় টি কৃত্রিম প্রকৃতির।এটি কালানী নদীর মহোনায় একটি কৃত্রিম নদী পোতাশ্রয়।কিন্তু পোতাশ্রয়টি খুবই গভীর ।ফলে এই বন্দরে সমুদ্র গামী বড় জাহাজ বা মাদার ভেসেল বন্দরটিতে সহজেই চালচল করতে পারে।বন্দরটির সর্বোনিন্ম গভীরতা ১৫ মিটার বা ৫০ ফুট এবং সর্বোচ্চ গভীরতা ১৮ মিটার বা ৬০ ফুট।খুব শীগ্রই বন্দরটির সর্বোচ্চ গভীরতা ২৩ মিটার করা হবে।বন্দরটির প্রবেশ পথের গভীরতা ২০ মিটার ।এছার কলম্বো বন্দরের পোতাশ্রয়টির টার্নিং সার্কেল এর পরিমান ৬০০ মিটার।ফলে বন্দরে বড় জাহাজ প্রবেশে কোনো অসুবিধা হয় না।

সম্প্রসারণ প্রকল্পসম্পাদনা

২০০৮ সালে, বন্দরটি $১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি বড় আকারের সম্প্রসারণ প্রকল্প শুরু করে, যাতে বন্দরের ক্ষমতা এবং দক্ষতা নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে। [৬] প্রকল্প, যা শ্রীলংকা বন্দর কর্তৃপক্ষের নেতৃত্বে এবং হুন্ডাই ইঞ্জিনিয়ারিং ও নির্মাণ কোম্পানী দ্বারা নির্মিত। ১১ এপ্রিল ২০১২ সমাপ্ত হওয়ার কথা বলে আশা করা হয়েছিল।

সম্প্রসারণ প্রকল্পটিতে চারটি নতুন টার্মিনাল ছিল যা ১২০০ মিটার লম্বা এবং প্রতিটিতে ৩ টি বার্থ থাকবে। টার্মিনালগুলি ১৮ মিটার (৫৯ ফুট) গভীরতার যুক্ত হবে যা ২৩ মিটার (৭৫ ফুট) হতে পারে। আশ্রয়ের চ্যানেলের প্রস্থ ৫৬০ মি এবং ২0 মিটার গভীরতার হবে, জাহজ ঘোরানোর জন্য ১৮ মিটারের গভীরতা যুক্ত ৬০০ মিটার বৃত্তাকার জলভাগ। একবার সম্পন্ন হলে, এটি বার্ষিক কন্টেইনার হ্যান্ডলিং ক্ষমতা ৪ মিলিয়ন টিইইউ (TEU) থেকে আনুমানিক ১২ মিলিয়ন টিইইউ (TEU)- তে বৃদ্ধি পাবে। এটি ১২,০০০ টিইইউ যুক্ত বৃহত্তর কন্টেইনার জাহাজ পরিচালনা করতে সক্ষম হবে।

১৬ সেপ্টেম্বর ২০১০ সালে প্রথম টার্মিনালকে চীনা মার্চেন্টস হোল্ডিংস (আন্তর্জাতিক)- অ্যাকটেন স্পেন্স কনসোর্টিয়ামে পুরস্কার প্রদান করা হয়। [৭] নতুন টার্মিনালটি ২০১৩ সালের প্রথম চতুর্থাংশে চালু হওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। [৮]

সম্প্রসারণ প্রকল্পের প্রাথমিক নির্মাণ পর্যায়ে একটি প্যানোরামিক দেখুন।

কলম্বো দক্ষিণ কনটেইনার টার্মিনাল সিএসসিটিসম্পাদনা

কলম্বো বন্দরের নতুন সম্প্রসারণে ২.৪ মিলিয়ন টিইউ ক্ষমতা সম্পন্ন কলোম্বো দক্ষিণ কন্টেইনার টার্মিনালটি কলম্বো আন্তর্জাতিক কনটেইনার টার্মিনাল লিমিটেড (সিআইসিটি) দ্বারা নির্মিত, এটি চীনের বিপণন হোল্ডিংস (আন্তর্জাতিক) কোং লিমিটেড (সিএইচএআই) এবং শ্রীলংকা বন্দর কর্তৃপক্ষের (এসএলপিএ) সঙ্গে একটি যৌথ উদ্যোগ প্রতিষ্ঠান। এটি এসএলপিএর সাথে একটি ৩৫-বছরের নির্মাণ, পরিচালনা এবং হস্তান্তর চুক্তির অধীনে নতুন বন্দর উন্নয়ন করছে।

২০১১ সালের ডিসেম্বর মাসে নির্মাণ কাজ শুরু করে, ৮ আগস্ট ২০১৩ সালে প্রথম "গতি" যাত্রা শুরু করে, যা কলম্বো পোর্ট কমপ্লেক্সকে বিশ্বের বৃহত্তম এক।

নতুন ঢেউয়ের আঘাতকে প্রশমিত করার বাঁধের দৈর্ঘ্য ৬,৮৩০ মিটার। বার্থ গভীরতা ১৮ মিটার।

পরিকাঠাম ও বন্দর সুবিধাগুলিসম্পাদনা

 
বন্দরে কনটেইনার রাখা হয়েছে।
 
কলম্বো পোতাশ্রয়

কলম্বো বন্দরে মমোট ৫১ টি জেটি রয়েছে।এই জেটিগুলির মধ্যে ৭ টি কন্টেইনার জেটি রয়েছে। অন্য জেটি গুলি কয়লা খনিজতেল, ড্রাই কার্গো প্রভৃতির জন্য ব্যবহৃত হয়।বন্দরের কে সমুদ্রের সঙ্গে যুক্ত করেছে একটি গভীর চ্যানেল। কলম্বো বন্দরে একটি নতুন কন্টেইনার টার্মিনাল তৈরি করা হয়েছে।এর মধ্যে চারটি জেটি রয়েছে ।এই জেটি গুলি ১২০০ মিটার লম্বা।

কলম্বো বন্দরের বর্তমানে তিনটি কন্টেইনার টার্মিনাল রয়েছে: জয়া কনটেইনার টার্মিনাল (জেসিটি), সাউথ এশিয়া গেটওয়ে টার্মিনাল (এসএজিটি - জন কেইয়েল হোল্ডিংস দ্বারা পরিচালিত) এবং ইউনিটি কনটেইনার টার্মিনাল (ইউসিটি)। টার্মিনালগুলি এই অঞ্চলের অন্য কোন কন্টেইনার টার্মিনাল পরিচালনাকারীদের তুলনায় দ্রুত কাজ করে ২৪ ঘন্টা। বন্দর সুবিধার অন্তর্ভুক্তগুলি:

এখন কলম্বো সাউথ হারবার প্রকল্প সিআইসিটি (কলম্বো ইন্টারন্যাশনাল কনটেইনার টার্মিনাল) -এর সম্প্রসারণ এবং ১২ কুই ক্রেন যোগ করা হয়েছে।

অতিরিক্ত সুবিধার মধ্যে বন্দরনাইয়ে ক্রেন (বিকিউ) এবং প্রিন্স উইজায়া ক্রেন (পিভিকি) চারটি রেল কুইন ক্রেন মাউন্ট এবং ৬,২৪৫ বর্গ মিটার (৬৭,২২১ বর্গ ফুট) শুল্কাধীন গুদামগুলির অন্তর্ভুক্ত। [১০]

আমদানি রপ্তানিসম্পাদনা

বন্দরটি দ্বারা দেশের প্রায় সমস্ত পণ্য দ্রব্য আমদিনি ও রপ্তানি হয়।এই বন্দরের রপ্তানি দ্রব্যের মধ্যে প্রধান হল - পাথর, গ্রাফাইট, নারকেল তেল ,চা প্রভৃতি।আমদানি দব্য হল- কয়লা,খনিজ তেল, ভোজ্য তেল, চাল, রাসায়নিক দ্রব্য প্রভূতি।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. [১]
  2. "সমুদ্র বাণিজ্য নানাবিধ অফার কলম্বো বন্দরে"। সুপ্রভাত। ৩ নভেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "Port of Colombo"। ২৮ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১৮ 
  4. http://www.worldportsource.com/ports/LKA_Port_of_Colombo_44.php
  5. "Colombo Port records highest cargo throughput in 2008"। ৫ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১৮ 
  6. "Colombo South Harbour Development Project"। ২৯ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১৮ 
  7. Sri Lanka Aitken Spence-China Merchant consortium gets terminal deal ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ নভেম্বর ২০১০ তারিখে LBO, 2010-09-16
  8. New Colombo port terminal on stream soon Sunday Times, 2010-09-19
  9. "First ever twin-lift ship delivered"। ২৪ মে ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১৮ 
  10. History and fact about the Port of Colombo

বহিঃসংযোগসম্পাদনা