কঙ্কাল(ইংরেজি:Skeleton) (গ্রীক σκελετός, skeletos "শুকনো শরীর", "মমি"[১]) কোন প্রাণির গাঠনিক কাঠামো। দুই ধরনের কঙ্কাল আছে: বহিঃকঙ্কাল, যা প্রাণির বহিঃআবরণ, এবং অন্তঃকঙ্কাল, যা শরীরের অভ্যন্তরীণ কাঠামোকে রক্ষা করে।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে মানুষ ও ঘোড়ার কঙ্কাল প্রদর্শনী।
শ্রীলঙ্কার কলম্বো জাতীয় যাদুঘরে Heiyantuduwa Raja(হাতি) কঙ্কাল।

কঙ্কালের প্রকারভেদসম্পাদনা

বহিঃকঙ্কালসম্পাদনা

বাহির থেকে যে কঙ্কাল দেখা যায় তাকে বহিঃকঙ্কাল বলে।বহিঃকঙ্কাল হল নখ,দাঁত,চুল ইত্যাদি।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

অন্তঃকঙ্কালসম্পাদনা

স্পঞ্জিসম্পাদনা

একাইনোডার্মসম্পাদনা

কর্ডেটসম্পাদনা

মাছসম্পাদনা
পাখিসম্পাদনা
সামুদ্রিক স্তন্যপায়ীসম্পাদনা

হাইড্রোস্ট্যাটিক কঙ্কালসম্পাদনা

মানুষের অস্থিতন্ত্রসম্পাদনা

অস্থির সংজ্ঞাসম্পাদনা

মানব দেহের রক্তবাহ যুক্ত যে যোগকলা দেহকাঠামো গঠন করে ও ভার বহন করে তাকে অস্থি বলা হয়। অস্থি এক প্রকার দৃঢ় ও স্থায়ী যোজগকলা।

অস্থির উপাদানসম্পাদনা

১. অজৈব বস্তু ও ক্যালসিয়াম - ৫০%
২. জল - ২৫%
৩. জৈব বস্তু - ২৫%[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

অস্থির প্রকারভেদসম্পাদনা

  1. দীর্ঘ অস্থি : ফিমার , হিউমেরাস.
  2. খর্ব বা ক্ষুদ্র অস্থি : ফ্যালাঞ্জেস, কার্পাল
  3. অনিয়তকার অস্থি : মেরুদণ্ডের অস্থি
  4. চ্যাপ্টা অস্থি : স্টার্নাম
  5. সিসময়েড অস্থি : প্যাটেলা

অস্থির কাজসম্পাদনা

  1. দেহের কাঠামো গঠন করে
  2. অস্থি সন্ধি দেহ সঞ্চালনে সাহায্য করে
  3. দেহে খনিজ পদার্থের আধার হিসাবে কাজ করে
  4. অস্থির অভ্যন্তরীণ লোহিত অস্থিমজ্জা রক্ত কণিকা উৎপন্ন করে।

মানব দেহের অস্থি সমূহসম্পাদনা

মানব দেহের কঙ্কাল কে দু ' ভাগে ভাগ করা হয়

  1. অক্ষীয় কঙ্কাল
  2. উপাক্ষীয় কঙ্কাল

অক্ষীয় কঙ্কালসম্পাদনা

অক্ষীয় কঙ্কাল কে আবার দু ' ভাগে ভাগ করা হয়

  1. করোটির অস্থি
  2. মুখমন্ডলের অস্থি

করোটির অস্থিসম্পাদনা

করোটি বা ক্রেনিয়াম এর অস্থি সমূহের নাম

  1. ফন্টাল - ১ টি
  2. প্যারাইটাল - ২ টি
  3. টেম্পোরাল - ২ টি
  4. অক্সিপিটাল - ১ টি
  5. স্পেনয়েড - ১ টি
  6. এথময়েড - ১ টি

অস্থি এবং তরুণাস্থিসম্পাদনা

অস্থিসম্পাদনা

তরুণাস্থিসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা