ইভান পাভলভ

চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরষ্কার বিজয়ী

ইভান পেত্রোভিচ পাভলভ (রুশ: Иван Петрович Павлов) (১৪ই সেপ্টেম্বর, ১৮৪৯ - ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৬) একজন রুশ চিকিৎসক যিনি বস্তুবাদী গবেষণার জন্য প্রসিদ্ধ। তার শৈশব দিন থেকে পাভলভ অস্বাভাবিক শক্তির বুদ্ধিগত প্রতিভা প্রদর্শন করে যার নাম দেন "গবেষণার জন্য প্রেরণা"।[১]

ইভান পেত্রোভিচ পাভলভ
Иван Петрович Павлов
Ivan Pavlov nobel.jpg
জন্ম(১৮৪৯-০৯-২৬)২৬ সেপ্টেম্বর ১৮৪৯
রয়াজান, Russia
মৃত্যু২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৬(1936-02-27) (বয়স ৮৬)
লেনিনগ্রাদ, সোভিয়েত ইউনিয়ন
বাসস্থানরুশ সাম্রাজ্য, সোভিয়েত ইউনিয়ন
জাতীয়তারাশিয়ান, সোভিয়েত
কর্মক্ষেত্রশারীরতাত্ত্বিক, চিকিৎসক
প্রতিষ্ঠানমিলিটারি মেডিকেল অ্যাকাডেমি
প্রাক্তন ছাত্রসেন্ট পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়
পরিচিতির কারণClassical conditioning
Transmarginal inhibition
Behavior modification
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
Nobel prize medal.svg চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার (১৯০৪)

তার সবচেয়ে বড় অবদান "সাপেক্ষ প্রতিবর্ত" ব্যাখ্যাকারী গবেষণাসমূহ। তিনি গুরুমস্তিষ্কের অনেকগুলি প্রতিবর্ত ক্রিয়ার ব্যাখ্যা প্রদান করেন, এবং গবেষণার মাধ্যমে কুকুরের দেহে কিভাবে এই সব প্রতিবর্ত তৈরি হয় ও কাজ করে তা প্রমাণ করেন। ১৯২২ সালে তার ফলাফলগুলি ভাষণ আকারে প্রকাশিত হয়। তিনি ১৯০৪ সালে পৌষ্টিকপ্রণালীর উপর গবেষণার জন্য নোবেল পুরস্কার লাভ করেন[২][৩]

শৈশব ও শিক্ষাসম্পাদনা

ইভান পেত্রোভিচ রাশিয়ার রায়জান নামক গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি তার ১১ জন ভাইবোনদের মধ্যে সবার বড় ছিলেন। তার পিতা ছিলেন গ্রামের একজন ধর্ম যাজক। পিতার ইচ্ছানুযায়ী স্নাতক পাশ করার পর তিনি গ্রামের কাছাকাছি এক ধর্মবিদ্যালয়ে ভর্তি হন[৪]। ১৮৭৫ সালে শারীরবিদ্যা বিষয়ে কৃতকার্য হন এবং চিকিৎসাবিদ্যায় ডাক্তারি করতে মনোনিবেশ করেন এবং ১৮৮০ সালে সে বিষয়ে পাশ করেন।

প্রভাবসম্পাদনা

পেশাসম্পাদনা

চিকিৎসক হবার পর ১৮৮৬ সালে তিনি সেন্ট পিটার্সবার্গে চাকরির আবেদন করেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে তিনি চাকরিটা পান না। পরবর্তীতে গবেষণার কাজে লিপজিগ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক লাডউইকের সাথে কাজ করেন। সেখানে বিজ্ঞানী ওনডট-এর সাথে পরিচিত হন। ১৮৯০ সালে সেন্ট পিটার্সবার্গে যে কলেজে ডাক্তরি পড়েছিলেন সে কলেজেই অধ্যাপনার কাজ পান। তবে তিনি মূলত গবেষণাধর্মী কাজই বেশি করতেন।

বিয়ে ও পরিবারসম্পাদনা

রিফ্লেক্স সিস্টেমের গবেষণাসম্পাদনা

পাভলভের প্রধান খ্যাতি কুকুরের সাপেক্ষ প্রতিবর্ত ক্রিয়ার গবেষণাকে কেন্দ্র করে। এই গবেষণার মাধ্যমে মানুষ এবং পশুর মস্তিষ্কের সংগে বাইরের উত্তেজকের সম্পর্কের বিধান আবিষ্কার করে। তার সাপেক্ষ প্রতিবর্ত ক্রিয়ার তত্ত্বের ভিত্তিতে আধুনিক মনোবিজ্ঞানে বস্তুবাদী এবং আচরণবাদী গবেষণা ও ব্যাখ্যা বিশেষভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Cavendish, Richard (1)। "Death of Ivan Pavlov: February 27th 1936"History Today। 0018-2753। 62 (2): 9। সংগ্রহের তারিখ 9 April 2012  অজানা প্যারামিটার |month= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ=, |year= / |date= mismatch (সাহায্য)
  2. http://www.nobelprize.org/nobel_prizes/medicine/laureates/1904/
  3. দাশগুপ্ত, ধীমান (এপ্রিল ১৯৯৭)। বিজ্ঞানী চরিতাভিধান (১ সংস্করণ)। কলকাতা: বাণীশিল্প। পৃষ্ঠা ২৭-২৮। আইএসবিএন বিহীন |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: invalid character (সাহায্য) 
  4. http://www.nobelprize.org/nobel_prizes/medicine/laureates/1904/pavlov-bio.html
  5. সরদার ফজলুল করিম; দর্শনকোষ; প্যাপিরাস, ঢাকা; জুলাই, ২০০৬; পৃষ্ঠা-৩০৫।