আল আমানাহ কলেজ অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের দক্ষিণ-পশ্চিম সিডনিতে অবস্থিত একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির ব্যাংকস্টাউন এবং লিভারপুল এলাকায় দুইটি ক্যাম্পাস রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি স্বাধীন ইসলামিক সহ-শিক্ষামূলক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

আল আমানাহ কলেজ
আল আমানাহ কলেজের লোগো
আল আমানাহ কলেজের লোগো
অবস্থান
মানচিত্র
ব্যাংকস্টাউন এবং লিভারপুল, দক্ষিণ-পশ্চিম সিডনি
,
অস্ট্রেলিয়া
স্থানাঙ্ক
তথ্য
ধরনস্বাধীন ইসলামিক সহ-শিক্ষামূলক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়
নীতিবাক্যআরবি: النجاح من خلال المعرفة
(জ্ঞানের মাধ্যমে সাফল্য আসে)
ধর্মীয় অন্তর্ভুক্তিইসলাম[১]
প্রতিষ্ঠাকাল২ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৮; ২৬ বছর আগে (1998-02-02)
ভগিনী বিদ্যালয়
  • সালাহামাহ কলেজ
  • গ্লেনরয় প্রাইভেট স্কুল
শিক্ষাবিষয়ক কর্তৃপক্ষনিউ সাউথ ওয়েল্স শিক্ষা মন্ত্রালয়
তদারকিইসলামিক চ্যারিটি প্রজেক্টস অ্যাসোসিয়েশন(আইসিপিএ)
অধ্যক্ষমোহাম্মদ এল দানা
শিক্ষকমণ্ডলী১০০ +
Yearsকে-১২
ক্যাম্পাসের ধরনশহুরে
রংনেভি ও সাদা         
ওয়েবসাইটwww.alamanah.nsw.edu.au

আল আমানাহ কলেজের লিভারপুল ক্যাম্পাস
মানচিত্র

আল আমানাহ কলেজটি ইসলামিক চ্যারিটি প্রজেক্টস অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নির্মাণ করা হয়েছে।[২] থেকে ইংরেজী অনুবাদ করা কলেজের মূলমন্ত্রটি আরবি ভাষায় যা বাংলা অনুবাদ করলে হয় "জ্ঞানের মাধ্যমে সাফল্য আসে"।

সংক্ষিপ্ত বিবরণ সম্পাদনা

১৯৮৯ সালের ২ ফেব্রুয়ারি আল আমানাহ কলেজ তার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু করে। ব্যাংকস্টাউন ক্যাম্পাসে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খেলার মাঠ এবং মসজিদ রয়েছে । লিভারপুল ক্যাম্পাসে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং খেলার মাঠ রয়েছে। লিভারপুল ক্যাম্পাসে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক উভয় ক্ষেত্রে ২০০ এরও বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে।

কলেজটিতে শতাধিক কর্মী নিযুক্ত রয়েছে। উভয় ক্যাম্পাসের প্রধান অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ এল দানা। ব্যাংকস্টাউন ক্যাম্পাসের অধ্যক্ষ হলেন বি. আদ্রা এবং লিভারপুল ক্যাম্পাসের অধ্যক্ষ এ. আলওয়ান।

আল আমানাহ কলেজটি ইসলামিক চ্যারিটি প্রজেক্টস অ্যাসোসিয়েশনের(আইসিপিএ)-এর অধিভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। আইসিপিএ আল আমানাহ ও সালামাহ কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছে। আইসিপিএ চেস্টার হিলে আল আমানাহ বালিকা স্কুল, সালাহামাহ কলেজ[৩][৪] এবং ভিক্টোরিয়ায় গ্লেনরোয়ে প্রাইভেট স্কুলও প্রতিষ্ঠা করেছে।

ইতিহাস সম্পাদনা

১৯৮৯ সালে কলেজটি প্রথমে ব্যাংকস্টাউনে প্রতিষ্ঠিত হয়। কে -৩ শ্রেণির ৮৮ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু হয় এবং সেখান থেকে স্কুলটি দ্রুত বৃদ্ধি পায়। ২০১১ সালে ব্যাংকস্টাউন ক্যাম্পাসটি ২৮৮ (কে -৬) দিয়ে সর্বাধিক সক্ষমতাতে পৌঁছেছে। ২০০২ সালে কলেজটি লিভারপুলে ক্যাম্পাস উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আরও বেড়েছে। ১৬৮ জন শিক্ষার্থীর নিয়ে মাধ্যমিকের সপ্তম শ্রেণীর পাঠদান কার্যক্রম শুরু হয় এবং পরে ২০০৭ সালে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত প্রসারিত করা হয়। লিভারপুল ক্যাম্পাসটি লিভারপুল সিটির কেন্দ্রে অবস্থিত। এতে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক মিলে ৬০০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। [৫]

পত্রিকার প্রতিবেদন সম্পাদনা

২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর এসবিএস উগ্রপন্থা প্রতিরোধের একটি প্রোগ্রাম সম্পর্কে আল আমনাহ কলেজের উপর একটি বিশেষ প্রতিবেদন করেছে।[৬] স্কুল ক্যাপ্টেন মোহামাদ জাহাব বলেছেন, "আমরা মিডিয়াতে এবং খবরে দেখতে পাচ্ছি অনেক সহিংসতা হচ্ছে"। ""মানুষ আমাদের ধর্ম ইসলাম সম্পর্কে সঠিক বার্তা, সঠিক বিশ্বাস পায় নাই। তারা ইসলামের নামকে কলঙ্কিত করেছে। " এছাড়াও অধ্যক্ষ আল আমানাহ কলেজের শিক্ষার্থীদের বিষয়ে তার উদ্বেগ প্রকাশ করেন, "আমরা তরুণ মুসলমানদের পরিচয় গড়ে তোলার জন্য অনেক প্রচেষ্টা এবং জোর দিচ্ছি, যে তারা অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা, তাদের জাতীয়তা অস্ট্রেলিয়ান এবং একই সাথে তাদের ধর্ম ইসলাম"।

আরও দেখুন সম্পাদনা

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. ANGELA KAMPER (২৯ এপ্রিল ২০১০)। "Rejected Islamic college is reborn"THE DAILY TELEGRAPH। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  2. Jakubowicz, Andrew.
  3. "Services"। The Islamic Charity Projects Association – Australia। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  4. "Links"Salamah College। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  5. "History"Al Amanah College 
  6. "Don't be brainwashed by extremist preachers, students warned"News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১৬ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা