অবধ অসম এক্সপ্রেস

অবধ অসম এক্সপ্রেস একটি এক্সপ্রেস ট্রেন যা মূলত ভারতীয় রেলওয়ে-উত্তর ফ্রন্টিয়ার রেলওয়ে অঞ্চলে পড়েছে। ট্রেনটি ভারতের নতুন তিনসুকিয়া এবং লালগড় জংশনের মধ্যে আসা যাওয়া করে থাকে। বর্তমান সময় পর্যন্ত রেল গাড়িটি একটি খুব বিরল রেকর্ডের অধিকারী। রেল গাড়িটি প্রতিদিন চলা ভারতের সবচেয়ে দীর্ঘ যাত্রার রেলগাড়ী হিসাবে পরিচিত যা প্রায় ৩০৭২ কিলো মিটার দুরত্ব অতিক্রম করে ৬৭ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের যাত্রাতে (প্রায় ৩ দিন ব্যাপী)। [১]

অবধ অসম এক্সপ্রেস
অৱধ অসম এক্সপ্রেস
अवध असम एक्सप्रेस
Awadh Assam Express.jpg
অবধ অসম এক্সপ্রেস
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনএক্সপ্রেস
প্রথম পরিষেবালালগড়
শেষ পরিষেবানতুন তিনসুকিয়া
বর্তমান পরিচালকউত্তর-পূর্ব প্রান্তীয় রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুনতুন তিনসুকিয়া
বিরতি৮৭টি ১৫৯০৯ এর সময় নতুন তিনসুকিয়া লালগড় অবাধ অসম এক্সপ্রেস, ৮৫টি ১৫৯১০ এর সময় লালগড় নতুন তিনসুকিয়া অবাধ অসম এক্সপ্রেস.
শেষলালগড়
ভ্রমণ দূরত্ব৩,০৭৩ কিমি (১,৯০৯ মা)
পরিষেবার হারপ্রাত্যহিক
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীএসি ১ টিয়ার, এসি ২ টিয়ার, এসি ৩ টিয়ার, শয়ন যান, সাধারণ/অনারক্ষিত
আসন বিন্যাসহ্যাঁ
ঘুমানোর ব্যবস্থাহ্যাঁ
পর্যবেক্ষণ সুবিধাExtended to New Tinsukia Junction w.e.f 18 June 2014. Will be renumbered 15909/10 w.e.f 28 August 2014. Is one of the longest running daily trains in terms of time.
কারিগরি
গাড়িসম্ভারভারতীয় রেল মানক বগি
ট্র্যাক গেজ১,৬৭৬ মিলিমিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)
পরিচালন গতি১১০ কিমি/ঘ (৬৮ মা/ঘ) উচ্চতম
৪৬.১১ কিমি/ঘ (২৯ মা/ঘ) থামা সহ

রেল গাড়িটি যখন নতুন তিনসুকিয়া থেকে লালগড় জংশনে গমন করে তখন ১৫৯০৯ নাম্বারটি ধারণ করে যাত্রা করে এবং ফিরতি পথে ১৫৯১০ নাম্বারটি ধারণ করে আসে। রেল গাড়িটি ৯ টি রাজ্যকে সেবা প্রদান করে থাকে। যেগুলি হলো আসাম, নাগাল্যান্ড, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লী, হরিয়ানা, পাঞ্জাব এবং রাজস্থান

বগি সমূহসম্পাদনা

১৫৯০৯/১০ নিউ তিনসুকিয়া লালগড় অবধ আসাম এক্সপ্রেসের বর্তমান বহরে আছে ১ টি এসি, ২ টি টায়ার, ২ টি এসি ৩ টায়ার, ১১ টি স্টিপার ক্লাস, ৪ টি সাধারণ ইউনিভার্সড এবং ২ টি বসার জাগেজ র‍্যাক। এর বাইরে ট্রেনটি বহন করে প্যান্টি কার কোচ, এবং ৪ টি উচ্চ মান সম্পন্ন পার্সেল ভ্যান। ভারতীয় রেল ব্যবস্থার যে জিনিসটি প্রায়শই ঘটে থাকে তা হলো ভারতীয় রেলওয়ে চাইলে চাহিদা অনুযায়ী বগির ভেতরের সাজস্বজ্জা পরিবর্তন সাধন করতে পারেন সাথে সাথে বগির সংথ্যা কিম্বা বগির ধরন।

সেবাসমূহসম্পাদনা

১৫৯০৯[২] নিউ তিনসুকিয়া লালগড় অবধ আসাম এক্সপ্রেস প্রায় ৩০৭৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় ৬৭ ঘণ্টা ০৫ মিনিটে [ ৪৫.৯০ কিমি/ঘণ্টা ২৯ মাইল প্রতি ঘণ্টায়] এবং ৬৭ ঘণ্টা ১৫ মিনিটে ৫৯০১০ লালগর নিউ তিনসুকিয়া অবধ আসাম এক্সপ্রেস নামে [৪৬.৩২ কিমি/ঘণ্টা (২৯ মাইল প্রতি ঘণ্টায়)] ফেরৎ আসে। ট্রেনটিতে একটি প্রেন্ট্রি কার কোচ আছে যেখানে খাবার ব্যবস্থা আছে। ট্রেনটির সর্বোচ্চ গতিসীমা উঠে ১১০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় এবং সর্বনিম্ন গতিসীমা থাকে ৪৬.১১ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায়।[৩]

১৫৯০৯/১০[৪] নিউ তিনসুকিয়া লালগড় অবধ আসাম এক্সপ্রেস চলাচল করে নিউ তিনসুকিয়া জংশন হয়ে দিমাপুর, লামডিং জংশনম গোয়াহাটি, নিউ কোচবিহার, নিউ জালালপুর, স্টুয়ার্ড জংশন থেকে লালগর জংশন। এটার ভাটিন্ডা জংশনে দিকে যাত্রা করার স্বাধিনতা রয়েছে।

ইঞ্জিনসমূহসম্পাদনা

যেহেতু ট্রেনটি বিশাল একটি পথ অতিক্রম করে যা তড়িৎতায়িত নয় সেহেতু এটি শিলিগুরী ভিত্তিক ডব্লিইউডিপি ৪বি ইঞ্জিন ব্যবহার করে এটির সমগ্র যাত্রাপথে।

সময়সূচিসম্পাদনা

১৫৯০৯ নতুন তিনসুকিয়া লালগড় অবধ আসাম এক্সপ্রেস নতুন তিনসুকিয়া জংশন ছেড়ে যায় প্রতিদিন ভারতীয় সময় সকাল ১০:৪০ ঘটিকায় এবং লালগড় জংশন পৌছে চতূর্থ দিন ভারতীয় সময় সকাল ০৫:৪৫ ঘটিকায়। ১৫৯১০ লালগর নতুন তিনসুকিয়া অবধ আসাম এক্সপ্রেস লালগড় জংশন ছেড়ে যায় প্রতিদিন ভারতীয় সময় সন্ধা ১৯:৪৫ ঘটিকায় এবং নতুন তিনসুকিয়া জংশন পৌছে যাত্রার চতুর্থ দিন বিকাল ১৫:০০ ঘটিকায়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Awadh Assam Express"। flickr.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  2. "15909/Avadh Assam Express"। indiarailinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  3. "Avadh Assam Express Services"। cleartrip.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  4. "15910/Avadh Assam Expres"। indiarailinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫