অফসেট প্রেস আধুনিক বৈদ্যুতিক ছাপাখানা, যারা সাদা অফসেট শ্রেণীর ও তারচেয়ে উন্নত মানের কাগজে ছাপতে পারে। এখানে ব্যবহৃত মেশিনে চার বর্ণের ছাপা সম্ভব বলেও অনেকে এদের অফসেট মেশিন বলে থাকেন। এই মেশিনগুলো ভিন্ন ভিন্ন রং এর জন্য ভিন্ন ভিন্ন প্লেট ব্যবহার করে । সাধারনভাবে এবং কম্পিউটারের ছবিতে আমরা মৌলিক রং হিসেবে লাল, নীল ও সবুজ (RGB)কে দেখলে বা জানলেও ছাপার ক্ষেত্রে কিন্তু (CMYK) সাইয়ান, ম্যাজেন্টা, ইয়েলো এবং ব্ল্যাক কে মূল রং ধরা হয়। ছাপার ক্ষেত্রে এই চার রং থেকে সমস্ত রং তৈরি বা ছাপা হয়ে থাকে। এছাড়াও প্যান্টোন নামে কিছু স্বতন্ত্র কালার বা রং আছে, যাদের তৈরি করা সম্ভব নয়।

MAN Roland press

অফসেট প্রিন্টিং এর উন্নতি ঘটে দুটি ধাপে। প্রথমে ইংল্যান্ডে রবার্ট বার্কলি ১৮৭৫ সালে টিনের উপর ছাপার জন্য একটি অফসেট প্রেস উন্নত করেন, পরবর্তী ধাপে যুক্তরাষ্ট্রে ওয়াশিংটন রুবেল ১৯০৪ সালে কাগজে ছাপানোর যোগ্য সংস্করণ তৈরী করেন।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা