অগ্রগামী তরঙ্গ

যে তরঙ্গ এক স্তর হতে অন্য স্তরে সঞ্চালিত হয়ে ক্রমাগত সামনের দিকে অগ্রসর হতে থাকে তাকে অগ্রগামী তরঙ্গ বা চলমান তরঙ্গ বলে। তরঙ্গ এর মত অগ্রগামী তরঙ্গ দুই প্রকারের। অগ্রগামী আড় তরঙ্গ ও অগ্রগামী লম্বিক তরঙ্গ। অগ্রগামী তরঙ্গ যদি তরঙ্গ এর গতির অভিমুখে সমকোণে কম্পিত হয় তবে তা অগ্রগামী আড় বা অগ্রগামী অনুপ্রস্থ তরঙ্গ। আবার কম্পন যদি গতির অভিমুখের সমান্তরালে কম্পিত হয় তবে সেই তরঙ্গ অগ্রগামী লম্বিক বা অগ্রগামী অনুপ্রস্থ তরঙ্গ। [১]

অগ্রগামী তরঙ্গ এর গতি

অগ্রগামী তরঙ্গ সংক্রান্ত রাশিসমূহসম্পাদনা

১. তরঙ্গদৈর্ঘ্যঃ তরঙ্গ সৃষ্টিকারী কোনো কম্পনশীল কণা পূর্ন কম্পন সম্পন্ন করতে যে সময় নেয়, সেই সময়ে যতটুকু দুরত্ব অতিক্রম করে তা হলো তরঙ্গদৈর্ঘ্য।

২. বিস্তারঃ কোনো কম্পনশীল কণা তার সাম্যাবস্থান থেকে ডানে, বামে অথবা উপরে বা নিচে সর্বাধিক যে দুরত্ব অতিক্রম করে তাকে ঐ কণার বিস্তার বলা হয়।

৩. দশাঃ কোনো কণার গতির যেকোনো সময়ের অবস্থাকে ঐ কণার দশা বলে।

৪. কৌণিক কম্পাংকঃ কম্পনরত কণাটির প্রতি একক সময়ে কৌণিক সরনের হারকে কণাটির কৌণিক কম্পাংক বলে। [২]

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

১. কোনো সুষম মাধ্যমে কোনো অগ্রগামী তরঙ্গ এর বেগ নির্দিষ্ট থাকে। এই তরঙ্গের বেগ মাধ্যমের বিভিন্ন ধর্মের উপর নির্ভরশীল। (যেমনঃ ঘনত্ব ও স্থিতিস্থাপকতা)

২. মাধ্যমের প্রতিটি কণা সমান বিস্তারে কম্পিত হয়। কিন্তু দশা পরিবর্তনশীল। মাধ্যমের কণাগুলো কখনোই স্থির থাকে না।

৩. এ তরঙ্গের উৎপত্তি হয় মাধ্যমের একই প্রকার কম্পনের ফলে।

৪. অগ্রগামী তরঙ্গ প্রবাহের সময় তরঙ্গমুখের অভিলম্ব বরাবর শক্তি বহন করে।

৫. তরঙ্গ প্রবাহের কারনে মাধ্যমের কোনো কণার দশা পরবর্তী কণায় স্থানান্তরিত হয়।

৬. মাধ্যমের কণাগুলির কম্পন তরঙ্গের গতিমুখের সমান্তরালে অথবা সমকোণে হতে পারে। [৩][৪]

সাধারণ সমীকরনসম্পাদনা

অগ্রগামী তরঙ্গের সাধারণ সমীকরনগুলো হলোঃ

y = a sin (ωt - 2πx/λ)

y = a sin2π/λ (vt - x) [অগ্রগামী তরঙ্গ x অক্ষের ধনাত্মক দিকে হলে এ সমীকরণটি প্রযোজ্য। ঋণাত্মক দিকে হলে (vt - x) এর স্থলে (vt + x) বসবে]

যেখানে,
y = t সময়ে সাম্যাবস্থান থেকে কণার সরণ

a = কণাটির কম্পনের বিস্তার

ω = কণাটির কৌণিক কম্পাংক

λ = তরঙ্গদৈর্ঘ্য

v = তরঙ্গবেগ

x = সরণ
[৫] এটি a বিন্দু থেকে x দুরত্বে অবস্থিত কোনো কণার সরনের সমীকরণ। এ সমীকরন দুটি থেকে কোনো অগ্রগামী তরঙ্গের বিস্তার, তরঙ্গদৈর্ঘ্য, সরণ ইত্যাদি নির্ণয় করা যায়।

উদাহরণসম্পাদনা

১. পুকুরের পানিতে ঢিল ছোঁড়া হলে ঢেউ পানির মধ্য দিয়ে ক্রমাগত অগ্রসর হতে থাকে। এটি অগ্রগামী তরঙ্গের উদাহরণ।

২. কেউ কথা বললে সেই শব্দ বায়ু মাধ্যমে ক্রমাগত সামনের দিকে অগ্রসর হয়ে শ্রোতার কানে পৌঁছে। এটি অগ্রগামী তরঙ্গ।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

askiitians.com/progressive-wave

byjus.com/progressive-wave

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Types of waves
  2. Progressive wave
  3. Characteristics of Progressive wave
  4. উচ্চ মাধ্যমিক পদার্থবিজ্ঞান ১ম পত্র
  5. Equation of a plane progressive wave