প্রধান মেনু খুলুন

রবিন হবস

ইংরেজ ক্রিকেটার
(Robin Hobbs থেকে পুনর্নির্দেশিত)

রবিন নিকোলাস স্টুয়ার্ট হবস (ইংরেজি: Robin Hobbs; জন্ম: ৮ মে, ১৯৪২) উইল্টশায়ারের চিপেনহাম এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ও সাবেক ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১] ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৬৭ থেকে ১৯৭১ সময়কালে ইংল্যান্ড দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে এসেক্সগ্ল্যামারগনের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ লেগব্রেক গুগলি বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করে সবিশেষ কৃতিত্বের পরিচয় দিয়েছেন রবিন হবস

রবিন হবস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবিন নিকোলাস স্টুয়ার্ট হবস
জন্ম (1942-05-08) ৮ মে ১৯৪২ (বয়স ৭৭)
চিপেনহাম, উইল্টশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগব্রেক গুগলি
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪৪০
রানের সংখ্যা ৩৪ ৪৯৪২
ব্যাটিং গড় ৬.৭৯ ১২.১১
১০০/৫০ -/- ২/২
সর্বোচ্চ রান ১৫* ১০০
বল করেছে ১২৯১ ৬২৩৯৫
উইকেট ১২ ১০৯৯
বোলিং গড় ৪০.০৮ ২৭.০৯
ইনিংসে ৫ উইকেট - ৫০
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৩/২৫ ৮/৬৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮/- ২৯৫/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৬১ সালে এসেক্সের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে রবিন হবসের। এরপর ১৯৬৭ সালে ইংল্যান্ডের পক্ষে টেস্টে প্রথম অংশ নেন। তবে, চমকপ্রদ লেগ ব্রেক বোলিং স্পিন উপযোগী পরিবেশে বেড়ে ওঠা ভারত ও পাকিস্তানী ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে তেমন কার্যকর হয়নি। ব্যাটিংয়ে তেমন সুবিধে করতে না পারলেও ১৯৭৫ সালে সফরকারী অস্ট্রেলীয়দের বিপক্ষে মাত্র ৪৪ মিনিটে সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি।[২]

এসেক্সে চৌদ্দ বছর অবস্থান করার পর রবিন হবস অবসর গ্রহণ করেন। এরপর তিনি মাইনর কাউন্টি ক্রিকেটে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে সাফোক ক্লাবে যোগ দেন। তবে, গ্ল্যামারগনের অধিনায়কের দায়িত্ব নিয়ে ১৯৭৯ সালে পুণরায় কাউন্টি ক্রিকেটে খেলেন। এরপর আরও দুই বছর ম্যালকম ন্যাশের অধিনায়কত্বে দুই মৌসুম খেলেন। ১৯৮২ সালে সাফোকে ফিরে যান ও অবসর গ্রহণ করেন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে সাতটি টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। ৮ জুন, ১৯৬৭ তারিখে টেস্ট অভিষেক ঘটে রবিন হবসের।

মূল্যায়নসম্পাদনা

বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে লেগ স্পিনারদের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠলেও একদিনের ক্রিকেট প্রচলনের পর তার বিকাশ ঘটতে শুরু করে। ইয়ান সলসবারির আবির্ভাবের পূর্বে তিনিই সর্বশেষ এ ধরনের বোলিংয়ে সবিশেষ দক্ষতা প্রদর্শন করেছিলেন।

ক্রিকেট লেখক কলিন বেটম্যানের মতে, ১৯৯২ সালে ইংল্যান্ডের পক্ষে লেগ স্পিন বোলিংয়ে অভিজ্ঞ ইয়ান সলসবারির আগমনের পূর্বে তিনিই সর্বশেষ ছিলেন। স্পিনার হিসেবে গুগলি বলে বেশ দক্ষতা দেখিয়েছেন। উদ্ভাবনী শক্তির অধিকারী ব্যাটসম্যান ও চমৎকার হৃদয়ের অধিকারী হিসেবে তিনি নিঃসন্দেহে জনপ্রিয় ক্রিকেটার ছিলেন।[১]

সর্বশেষ ইংরেজ লেগ স্পিনার হিসেবে সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে সহস্রাধিক প্রথম-শ্রেণীর উইকেট পেয়েছেন। ২৭.০৯ গড়ে সর্বমোট ১,০৯৯ উইকেট দখল করেছেন তিনি। ব্যক্তিগত সেরা বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন ৮/৬৩। ওভারপ্রতি ২.৮৬ গড়ে রান দিয়ে মিতব্যয়িতার স্বাক্ষর রাখেন ও ৫৬.৭০ গড়ে স্ট্রাইক রেটে রান দেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 90। আইএসবিএন 1-869833-21-X 
  2. "Cricinfo: Fastest to 50,100,200"

বহিঃসংযোগসম্পাদনা