গুলাম গার্ড

ভারতীয় ক্রিকেটার
(Ghulam Guard থেকে পুনর্নির্দেশিত)

গুলাম মুস্তফা গার্ড (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; হিন্দি: गुलाम गार्ड; জন্ম: ১২ ডিসেম্বর, ১৯২৫ - মৃত্যু: ১৩ মার্চ, ১৯৭৮) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের গুজরাতের সুরাট এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৮ থেকে ১৯৬০ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

গুলাম গার্ড
Ghulam guard 1.jpg
সংগৃহীত স্থিরচিত্রে গুলাম গার্ড
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামগুলাম মুস্তফা গার্ড
জন্ম১২ ডিসেম্বর, ১৯২৫
সুরাট, গুজরাত, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু১৩ মার্চ, ১৯৭৮
আহমেদাবাদ, গুজরাত, ভারত
উচ্চতা৬ ফুট ৩ ইঞ্চি (১.৯১ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮৪)
২৮ নভেম্বর ১৯৫৮ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট১ জানুয়ারি ১৯৬০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪১
রানের সংখ্যা ১১ ২৩৮
ব্যাটিং গড় ৫.৫০ ১১.৯০
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান ২৬
বল করেছে ৩৯৬ ৫৯২০
উইকেট ১২৪
বোলিং গড় ৬০.৬৬ ২০.৫৩
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ২/৬৯ ৬/৪৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/- ১৩/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৫ মে ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে গুজরাত ও মুম্বই দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন গুলাম গার্ড

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৪৬-৪৭ মৌসুম থেকে ১৯৬২-৬৩ মৌসুম পর্যন্ত গুলাম গার্ডের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৯৪৬ থেকে ১৯৬৩ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ২০.৬০ গড়ে ১২৪ উইকেট পেয়েছেন। দীর্ঘকায়, চওড়া কাঁধের অধিকারী ছিলেন। প্রাণবন্তঃ অবস্থায় বারো কদম দৌড়ে ডানহাতি ব্যাটসম্যানদের বিপরীতে মিডিয়াম পেসের চেয়ে কিছুটা গতি নিয়ে বোলিংয়ে অগ্রসর হতেন।[১]

ভারতের পক্ষে প্রথম বামহাতি বোলার হিসেবে বোলিং উদ্বোধনে নেমেছেন। ১৯৩০-এর দশকে লধা রামজী ও নব্বুইয়ের দশকে আবে কুরুভিল্লা’র সাথে ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি উচ্চতা নিয়ে ভারতের দীর্ঘতম ক্রিকেটারের মর্যাদা পেয়েছেন। ১৯৪৬-৪৭ মৌসুম থেকে পরবর্তী ১৫ বছর সফলতার সাথে ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে বোম্বে ও গুজরাত দলে বোলিং করে গেছেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন গুলাম গার্ড। ২৮ নভেম্বর, ১৯৫৮ তারিখে মুম্বইয়ে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১ জানুয়ারি, ১৯৬০ তারিখে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

প্রায় ৩৩ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুযোগ হয় তার। এ পর্যায়ে ১৯৫৮-৫৯ মৌসুমে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে বোম্বে টেস্টে অংশ নেন। অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসে গ্যারি সোবার্স ও দ্বিতীয় ইনিংসে জন হল্টকনরাড হান্ট - এ তিন উইকেট পান। সিরিজের বাদ-বাকী টেস্টেও তাকে রাখা হয়নি ও ১৯৫৯ সালে ইংল্যান্ড গমনার্থে তাকে জাতীয় দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি।

১৯৫৯-৬০ মৌসুমে রিচি বেনো’র নেতৃত্বে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে পুণরায় তাকে অংশগ্রহণের জন্যে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এবারও বোম্বে টেস্টে খেলেন; কিন্তু, কোন উইকেটের সন্ধান পাননি তিনি।

অবসরসম্পাদনা

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে উপেক্ষিত হলেও ১৯৫৯-৬০ মৌসুমে ঘরোয়া পর্যায়ের খেলায় অনেকগুলো উইকেট লাভের পাশাপাশি দলের শক্তিশালী ব্যাটিং স্তম্ভের কারণে বোম্বে দল রঞ্জী ট্রফির শিরোপা জয়ে সক্ষমতা দেখায়। তন্মধ্যে, চূড়ান্ত খেলায় মহীশূরের বিপক্ষে খেলায় ১৩৫ রান খরচায় ৯ উইকেট পান। ঐ মৌসুমে ১৫ গড়ে ৩১ উইকেট দখল করেন।

ব্যক্তিগত জীবনে গুজরাতের পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্টের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[২] ১৩ মার্চ, ১৯৭৮ তারিখে ৫২ বছর বয়সে গুজরাতের আহমদাবাদ এলাকায় গুলাম গার্ডের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Sujit Mukherjee, Playing for India, Orient Longman (1988), p.62
  2. Richard Cashman, Patrons, players and the crowd, Orient Longman (1980), p.179

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা