২১তম বাচসাস পুরস্কার

২১তম বাচসাস পুরস্কার হল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি কর্তৃক প্রদত্ত বাচসাস পুরস্কারের একবিংশতম আয়োজন। ১৯৯৯ সালের চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সেরা অবদানের জন্য এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। এই আয়োজনে ১৯টি বিভাগে ১৮ জন বিজয়ীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।[১] আম্মাজান শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রসহ সর্বাধিক ৬টি বিভাগে পুরস্কার অর্জন করে।

২১তম বাচসাস পুরস্কার
পুরস্কার দেওয়া হয়১৯৯৯ সালে চলচ্চিত্রশিল্পে গৌরবোজ্জ্বল ও অসাধারণ অবদানের জন্য
পুরস্কার প্রদান করেবাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি
আয়োজকবাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি
প্রদান২০০০
স্থানঢাকা, বাংলাদেশ
আলোকপাত
শ্রেষ্ঠ পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রআম্মাজান
শ্রেষ্ঠ অভিনেতামান্না
আম্মাজান
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীশাবনূর
ভালবাসি তোমাকে
সর্বাধিক পুরস্কারআম্মাজান
 ← ২০তম বাচসাস পুরস্কার ২২তম → 

বিজয়ীদের তালিকা

সম্পাদনা

চলচ্চিত্র

সম্পাদনা
বিভাগ বিজয়ী চলচ্চিত্র
শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র আম্মাজান
শ্রেষ্ঠ পরিচালক রাজ্জাক সন্তান যখন শত্রু
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা মান্না আম্মাজান
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী শাবনূর ভালবাসি তোমাকে
শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ হঠাৎ বৃষ্টি
শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেত্রী ডলি জহুর সন্তান যখন শত্রু
শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী সন্তান যখন শত্রু
শ্রেষ্ঠ গীতিকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আম্মাজান (গান - "স্বামী আর স্ত্রী")
শ্রেষ্ঠ পুরুষ কন্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু আম্মাজান (গান - "আম্মাজান")
শ্রেষ্ঠ নারী কন্ঠশিল্পী কনকচাঁপা ভালবাসি তোমাকে
শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার ডিপজল আম্মাজান
শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার রাজ্জাক সন্তান যখন শত্রু
শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা কাজী হায়াৎ আম্মাজান
শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক হাসান আহমেদ ম্যাডাম ফুলি
শ্রেষ্ঠ চিত্রসম্পাদক সৈয়দ আউয়াল সন্তান যখন শত্রু
শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক আব্দুস সবুর ম্যাডাম ফুলি
শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক নাসির ম্যাডাম ফুলি
বিশেষ পুরস্কার একেএম জাহাঙ্গীর খান
সিমলা
সীমানা পেরিয়ে, নয়নমনি, চন্দ্রনাথ, শুভদা চলচ্চিত্র প্রযোজনা
ম্যাডাম ফুলি

সাংবাদিকতা

সম্পাদনা
  • এস এম পারভেজ স্মৃতি পুরস্কার: ফরিদউদ্দিন আহমেদ নীরদ

আরও দেখুন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. জোয়াদ, আবদুল্লাহ (২০১০)। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র: পাঁচ দশকের ইতিহাস। ঢাকা: জ্যোতিপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৪৮০। আইএসবিএন 984-70194-0045-9