২০১৯–২০ প্রিমিয়ার লীগ

২০১৯–২০ প্রিমিয়ার লীগ ইংল্যান্ডের ফুটবলের সর্বোচ্চ স্তরের লীগ প্রিমিয়ার লীগের ২৮তম মৌসুম ছিল। এই মৌসুমটি ২০১৯ সালের ৯ই আগস্ট শুরু হয়ে ২০২০ সালে ২৬শে জুলাই তারিখে সমাপ্ত হয়েছে। ম্যানচেস্টার সিটি এই লীগের পূর্ববর্তী মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন ছিল। এই মৌসুমে নরউইচ সিটি, শেফিল্ড ইউনাইটেড এবং অ্যাস্টন ভিলা ২০১৮–১৯ ইএফএল চ্যাম্পিয়নশিপ হতে যোগদান করেছিল এবং কার্ডিফ সিটি, ফুলহ্যাম এবং হাডার্সফিল্ড টাউন ২০১৯–২০ ইএফএল চ্যাম্পিয়নশিপে অবনমিত হয়েছিল।

প্রিমিয়ার লীগ
মৌসুম২০১৯–২০
তারিখ৯ আগস্ট ২০১৯ – ২৬ জুলাই ২০২০[১][২][৩]
চ্যাম্পিয়নলিভারপুল
(১ম প্রিমিয়ার লীগ শিরোপা)
(১৯তম ইংরেজ শিরোপা)
অবনমনবোর্নমাউথ
ওয়াটফোর্ড
নরউইচ সিটি
চ্যাম্পিয়নস লীগলিভারপুল
ম্যানচেস্টার সিটি
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
চেলসি
ইউরোপা লীগলেস্টার সিটি
টটেনহ্যাম হটস্পার
মোট খেলা৩৮০
মোট গোলসংখ্যা১,০৩৪ (ম্যাচ প্রতি এক্সপ্রেশন ত্রুটি: অপরিচিত বিরামচিহ্ন অক্ষর ","।টি)
শীর্ষ গোলদাতাইংল্যান্ড জেমি ভার্ডি
(২৩টি গোল)
সেরা গোলরক্ষকব্রাজিল এদেরসন (১৬টি ক্লিন শিট)
সবচেয়ে বড় হোম জয়ম্যানচেস্টার সিটি ৮–০ ওয়াটফোর্ড
(২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯)
সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ে জয়সাউদাম্পটন ০–৯ লেস্টার সিটি
(২৫ অক্টোবর ২০১৯)
সর্বোচ্চ স্কোরিংসাউদাম্পটন ০–৯ লেস্টার সিটি
(২৫ অক্টোবর ২০১৯)
দীর্ঘতম টানা জয়লিভারপুল
(১৮টি ম্যাচ)[৪]
দীর্ঘতম টানা অপরাজিতলিভারপুল
(২৭টি ম্যাচ)[৪]
দীর্ঘতম টানা জয়বিহীনওয়াটফোর্ড
(১১টি ম্যাচ)[৪]
দীর্ঘতম টানা পরাজয়নরউইচ সিটি
(৯টি ম্যাচ)[৪]
সর্বোচ্চ উপস্থিতি৭৩,৭৩৭[৪]
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ১–১ লিভারপুল
(২০ অক্টোবর ২০১৯)
সর্বনিম্ন উপস্থিতি১০,০২০[৪]
বোর্নমাউথ ০–১ বার্নলি
(২১ অক্টোবর ২০১৯)
এই মৌসুম পুনরায় শুরু হওয়ার পরে (মৌসুম স্থগিতের পরে আয়োজিত ম্যাচগুলো অন্তর্ভুক্ত না করে) সকল ম্যাচ জনস্বাস্থ্যের কারণে ৩০০ জন ব্যক্তির উপস্থিতি সীমার মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মোট উপস্থিতি১,১৩,২২,০৯৬[৪]
গড় উপস্থিতি৩৯,৩১২[৪]

২০২০ সালের ১৩ই মার্চ তারিখে, ইংল্যান্ডে করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারীর কারণে এবং লীগে সংযুক্ত বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ফলে প্রিমিয়ার লীগের সকল খেলা স্থগিত ঘোষণা করেছিল। অতঃপর ৪ঠা এপ্রিল তারিখে, এই লীগটির স্থগিতকাল মধ্য-জুন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছিল।[৩] ১৭ই জুন তারিখে দুটি ম্যাচ এবং ১৯–২২ জুন তারিখে পূর্ণ পর্বের মাধ্যমে এই মৌসুমটি পুনরায় শুরু করা হয়েছিল।[৫]

২৫শে জুন তারিখে, লিভারপুল তাদের উনিশতম, ১৯৮৯–৯০ মৌসুমের পর প্রথম এবং প্রিমিয়ার লীগ যুগে প্রথম শিরোপা জয়লাভ করেছে। এই লীগ জয়ের মাধ্যমে লিভারপুল প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ (৭টি) হাতে রেখে এবং তারিখ অনুসারে সবচেয়ে দেরিতে (জুন মাসে) শিরোপা জয়লাভ করার কৃতিত্ব অর্জন করে।[৬]

এই মৌসুমে প্রথমবারের মতো ভিডিও সহকারি রেফারি (ভিএআর) পদ্ধতিটি চালু করেছিল।[৭] একই সাথে, এই মৌসুমে ব্যাকপাস, পেনাল্টি, হ্যান্ডবল এবং বদলি খেলোয়াড়ের সংখ্যার পরিবর্তন করা হয়েছিল।[৮]

দলসম্পাদনা

স্টেডিয়াম এবং অবস্থানসম্পাদনা

ক্লাব অবস্থান স্টেডিয়াম ধারণক্ষমতা
আর্সেনাল লন্ডন (হলোওয়ে) এমিরেট্‌স স্টেডিয়াম ৬০,৭০৪
অ্যাস্টন ভিলা বার্মিংহাম ভিলা পার্ক ৪২,৭৮৫
বোর্নমাউথ বোর্নমাথ ডিন কোর্ট ১১,৩২৯
ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ আলবিয়ন ব্রাইটন ফামার স্টেডিয়াম ৩০,৭৫০
বার্নলি বার্নলি টার্ফ মুর ২১,৯৪৪
চেলসি লন্ডন (ফুলহ্যাম) স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ ৪০,৮৩৪
ক্রিস্টাল প্যালেস লন্ডন (সেলহার্স্ট) সেলহার্স্ট পার্ক ২৫,৪৮৬
এভার্টন লিভারপুল (ওয়াল্টন) গুডিনসন পার্ক ৩৯,৫৭২
লেস্টার সিটি লেস্টার কিং পাওয়ার স্টেডিয়াম ৩২,২৪৩
লিভারপুল লিভারপুল (অ্যানফিল্ড) অ্যানফিল্ড ৫৩,৩৯৪
ম্যানচেস্টার সিটি ম্যানচেস্টার সিটি অফ ম্যানচেস্টার স্টেডিয়াম ৫৫,০৯৭
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ওল্ড ট্রাফোর্ড ওল্ড ট্রাফোর্ড ৭৪,৮৭৯
নিউক্যাসেল ইউনাইটেড নিউক্যাসল আপন টাইন সেন্ট জেমস পার্ক ৫২,৩৮৮
নরউইচ সিটি নরউইচ ক্যারো রোড ২৭,২৪৪
শেফিল্ড ইউনাইটেড শেফিল্ড ব্রামল লেন ৩২,১২৫
সাউদাম্পটন সাউদাম্পটন সেন্ট মেরি'স স্টেডিয়াম ৩২,৫০৫
টটেনহ্যাম হটস্পার লন্ডন (টটেনহ্যাম) টটেনহ্যাম হটস্পার স্টেডিয়াম ৬২,৩০৩
ওয়াটফোর্ড ওয়াটফোর্ড ভিক্যারেজ রোড ২২,২২০
ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড লন্ডন (স্ট্রাটফোর্ড) লন্ডন স্টেডিয়াম ৬০,০০০
উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স উলভারহ্যাম্পটন মলিনো স্টেডিয়াম ৩২,০৫০

পয়েন্ট তালিকাসম্পাদনা

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন বা অবনমন
লিভারপুল (C) ৩৮ ৩২ ৮৫ ৩৩ +৫২ ৯৯ চ্যাম্পিয়নস লীগ গ্রুপ পর্বের জন্য উন্নীত
ম্যানচেস্টার সিটি[ক] ৩৮ ২৬ ১০২ ৩৫ +৬৭ ৮১
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৩৮ ১৮ ১২ ৬৬ ৩৬ +৩০ ৬৬
চেলসি ৩৮ ২০ ১২ ৬৯ ৫৪ +১৫ ৬৬
লেস্টার সিটি ৩৮ ১৮ ১২ ৬৭ ৪১ +২৬ ৬২ ইউরোপা লীগ গ্রুপ পর্বের জন্য উন্নীত
টটেনহ্যাম হটস্পার ৩৮ ১৬ ১১ ১১ ৬১ ৪৭ +১৪ ৫৯ ইউরোপা লীগ দ্বিতীয় বাছাইপর্বের জন্য উন্নীত[খ]
উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ৩৮ ১৫ ১৪ ৫১ ৪০ +১১ ৫৯
আর্সেনাল ৩৮ ১৪ ১৪ ১০ ৫৬ ৪৮ +৮ ৫৬
শেফিল্ড ইউনাইটেড ৩৮ ১৪ ১২ ১২ ৩৯ ৩৯ ৫৪
১০ বার্নলি ৩৮ ১৫ ১৪ ৪৩ ৫০ −৭ ৫৪
১১ সাউদাম্পটন ৩৮ ১৫ ১৬ ৫১ ৬০ −৯ ৫২
১২ এভার্টন ৩৮ ১৩ ১০ ১৫ ৪৪ ৫৬ −১২ ৪৯
১৩ নিউক্যাসেল ইউনাইটেড ৩৮ ১১ ১১ ১৬ ৩৮ ৫৮ −২০ ৪৪
১৪ ক্রিস্টাল প্যালেস ৩৮ ১১ ১০ ১৭ ৩১ ৫০ −১৯ ৪৩
১৫ ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ আলবিয়ন ৩৮ ১৪ ১৫ ৩৯ ৫৪ −১৫ ৪১
১৬ ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড ৩৮ ১০ ১৯ ৪৯ ৬২ −১৩ ৩৯
১৭ অ্যাস্টন ভিলা ৩৮ ২১ ৪১ ৬৭ −২৬ ৩৫
১৮ বোর্নমাউথ (R) ৩৮ ২২ ৪০ ৬৫ −২৫ ৩৪ ইএফএল চ্যাম্পিয়নশিপে অবনমিত
১৯ ওয়াটফোর্ড (R) ৩৮ ১০ ২০ ৩৬ ৬৪ −২৮ ৩৪
২০ নরউইচ সিটি (R) ৩৮ ২৭ ২৬ ৭৫ −৪৯ ২১
উৎস: প্রিমিয়ার লীগ
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: ১) পয়েন্ট; ২) গোল পার্থক্য; ৩) স্বপক্ষে গোল; ৪) যদি ১ হতে ৩ পর্যন্ত সাধারণ নিয়ম দ্বারা চ্যাম্পিয়ন, অবনমিত দল এবং উয়েফা প্রতিযোগিতার জন্য উত্তীর্ণ দল নির্ধারণ করা না যায়, তবে ৪.১ হতে ৪.৩ পর্যন্ত নিয়ম অনুসরণ করা হবে – ৪.১) সমতায় থাকা দলের মধ্যে হেড-টু-হেড পয়েন্ট; ৪.২) সমতায় থাকা দলের মধ্যে বিপক্ষে গোল; ৪.৩) প্লে-অফ[১৩]
(C) চ্যাম্পিয়ন; (R) অবনমন।
টীকা:
  1. উয়েফা ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে নিয়ম লঙ্ঘনের কারণে ২০২০ সালের ১৪ই তারিখে উয়েফা ক্লাবের আর্থিক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা কর্তৃক ম্যানচেস্টার সিটিকে ২০২০–২১ এবং ২০২১–২২ মৌসুমের জন্য উয়েফার সকল ধরনের ক্লাব প্রতিযোগিতা থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।[৯] এই সিদ্ধান্তটির বিরুদ্ধে ২০২০ সালের ২৬শে ফেব্রুয়ারি তারিখে ম্যানচেস্টার সিটি কোর্ট অফ আর্বিট্রেশন অফ স্পোর্টে (সিএএস) আপিল করেছিল।[১০] ২০২০ সালের ৮ই জুন তারিখে এই আপিলের শুনানি হয়েছিল[১১] এবং ২০২০ সালের ১৩ই জুলাই আপিলটির পক্ষে রায় দিয়ে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি বাতিল করা হয়েছিল।[১২]
  2. যেহেতু ২০১৯–২০ ইএফএল কাপের বিজয়ী দল ম্যানচেস্টার সিটি তাদের লীগে অবস্থানের ভিত্তিতে চ্যাম্পিয়নস লীগের গ্রুপ পর্বের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে, তাই ইএফএল কাপ বিজয়ীর জন্য (ইউরোপা লীগে দ্বিতীয় বাছাইপর্বে) বরাদ্দকৃত স্থানটি ষষ্ঠ স্থান অধিকারী দলকে প্রদান করা হয়েছে। যদি চেলসি ২০২০ এফএ কাপ ফাইনাল জয়লাভ করে, তবে এফএ কাপ বিজয়ীর জন্য (ইউরোপা লীগে গ্রুপ পর্বে) বরাদ্দকৃত স্থানে ষষ্ঠ স্থান অধিকারী দলে চলে যাবে এবং ইএফএল কাপের বিজয়ীর জন্য বরাদ্দকৃত স্থানটি সপ্তম স্থান অধিকারী দলকে প্রদান করা হবে।

ফলাফলসম্পাদনা

স্বাগতিক \ অতিথি ARS AVL BOU BHA BUR CHE CRY EVE LEI LIV MCI MUN NEW NOR SHU SOU TOT WAT WHU WOL
আর্সেনাল ৩–২ ১–০ ১–২ ২–১ ১–২ ২–২ ৩–২ ১–১ ২–১ ০–৩ ২–০ ৪–০ ৪–০ ১–১ ২–২ ২–২ ৩–২ ১–০ ১–১
অ্যাস্টন ভিলা ১–০ ১–২ ২–১ ২–২ ১–২ ২–০ ২–০ ১–৪ ১–২ ১–৬ ০–৩ ২–০ ১–০ ০–০ ১–৩ ২–৩ ২–১ ০–০ ০–১
বোর্নমাউথ ১–১ ২–১ ৩–১ ০–১ ২–২ ০–২ ৩–১ ৪–১ ০–৩ ১–৩ ১–০ ১–৪ ০–০ ১–১ ০–২ ০–০ ০–৩ ২–২ ১–২
ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ আলবিয়ন ২–১ ১–১ ২–০ ১–১ ১–১ ০–১ ৩–২ ০–২ ১–৩ ০–৫ ০–৩ ০–০ ২–০ ০–১ ০–২ ৩–০ ১–১ ১–১ ২–২
বার্নলি ০–০ ১–২ ৩–০ ১–২ ২–৪ ০–২ ১–০ ২–১ ০–৩ ১–৪ ০–২ ১–০ ২–০ ১–১ ৩–০ ১–১ ১–০ ৩–০ ১–১
চেলসি ২–২ ২–১ ০–১ ২–০ ৩–০ ২–০ ৪–০ ১–১ ১–২ ২–১ ০–২ ১–০ ১–০ ২–২ ০–২ ২–১ ৩–০ ০–১ ২–০
ক্রিস্টাল প্যালেস ১–১ ১–০ ১–০ ১–১ ০–১ ২–৩ ০–০ ০–২ ১–২ ০–২ ০–২ ১–০ ২–০ ০–১ ০–২ ১–১ ১–০ ২–১ ১–১
এভার্টন ০–০ ১–১ ১–৩ ১–০ ১–০ ৩–১ ৩–১ ২–১ ০–০ ১–৩ ১–১ ২–২ ০–২ ০–২ ১–১ ১–১ ১–০ ২–০ ৩–২
লেস্টার সিটি ২–০ ৪–০ ৩–১ ০–০ ২–১ ২–২ ৩–০ ২–১ ০–৪ ০–১ ০–২ ৫–০ ১–১ ২–০ ১–২ ২–১ ২–০ ৪–১ ০–০
লিভারপুল ৩–১ ২–০ ২–১ ২–১ ১–১ ৫–৩ ৪–০ ৫–২ ২–১ ৩–১ ২–০ ৩–১ ৪–১ ২–০ ৪–০ ২–১ ২–০ ৩–২ ১–০
ম্যানচেস্টার সিটি ৩–০ ৩–০ ২–১ ৪–০ ৫–০ ২–১ ২–২ ২–১ ৩–১ ৪–০ ১–২ ৫–০ ৫–০ ২–০ ২–১ ২–২ ৮–০ ২–০ ০–২
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ১–১ ২–২ ৫–২ ৩–১ ০–২ ৪–০ ১–২ ১–১ ১–০ ১–১ ২–০ ৪–১ ৪–০ ৩–০ ২–২ ২–১ ৩–০ ১–১ ০–০
নিউক্যাসেল ইউনাইটেড ০–১ ১–১ ২–১ ০–০ ০–০ ১–০ ১–০ ১–২ ০–৩ ১–৩ ২–২ ১–০ ০–০ ৩–০ ২–১ ১–৩ ১–১ ২–২ ১–১
নরউইচ সিটি ২–২ ১–৫ ১–০ ০–১ ০–২ ২–৩ ১–১ ০–১ ১–০ ০–১ ৩–২ ১–৩ ৩–১ ১–২ ০–৩ ২–২ ০–২ ০–৪ ১–২
শেফিল্ড ইউনাইটেড ১–০ ২–০ ২–১ ১–১ ৩–০ ৩–০ ১–০ ০–১ ১–২ ০–১ ০–১ ৩–৩ ০–২ ১–০ ০–১ ৩–১ ১–১ ১–০ ১–০
সাউদাম্পটন ০–২ ২–০ ১–৩ ১–১ ১–২ ১–৪ ১–১ ১–২ ০–৯ ১–২ ১–০ ১–১ ০–১ ২–১ ৩–১ ১–০ ২–১ ০–১ ২–৩
টটেনহ্যাম হটস্পার ২–১ ৩–১ ৩–২ ২–১ ৫–০ ০–২ ৪–০ ১–০ ৩–০ ০–১ ২–০ ১–১ ০–১ ২–১ ১–১ ২–১ ১–১ ২–০ ২–৩
ওয়াটফোর্ড ২–২ ৩–০ ০–০ ০–৩ ০–৩ ১–২ ০–০ ২–৩ ১–১ ৩–০ ০–৪ ২–০ ২–১ ২–১ ০–০ ১–৩ ০–০ ১–৩ ২–১
ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড ১–৩ ১–১ ৪–০ ৩–৩ ০–১ ৩–২ ১–২ ১–১ ১–২ ০–২ ০–৫ ২–০ ২–৩ ২–০ ১–১ ৩–১ ২–৩ ৩–১ ০–২
উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ০–২ ২–১ ১–০ ০–০ ১–১ ২–৫ ২–০ ৩–০ ০–০ ১–২ ৩–২ ১–১ ১–১ ৩–০ ১–১ ১–১ ১–২ ২–০ ২–০
২৬ জুলাই ২০২০ তারিখের ম্যাচ(সমূহ) খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: প্রিমিয়ার লীগ
রং: নীল = স্বাগতিক দল বিজয়ী; হলুদ = ড্র; লাল = সফরকারী দল বিজয়ী।

পরিসংখ্যানসম্পাদনা

শীর্ষ গোলদাতাসম্পাদনা

 
২৩টি গোল করার মাধ্যমে জেমি ভার্ডি প্রিমিয়ার লীগ গোল্ডেন বুট জয়লাভ করেছেন, একই সাথে তিনি এই পুরস্কারজয়ী প্রবীণতম খেলোয়াড়[১৪]
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব গোল[১৫]
  জেমি ভার্ডি লেস্টার সিটি ২৩
  পিয়ের-এমেরিক অবামেয়াং আর্সেনাল ২২
  ড্যানি ইংস সাউদাম্পটন
  রাহিম স্টার্লিং ম্যানচেস্টার সিটি ২০
  মোহাম্মদ সালাহ লিভারপুল ১৯
  হ্যারি কেন টটেনহ্যাম হটস্পার ১৮
  সাদিও মানে লিভারপুল
  রাউল হিমেনেস উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ১৭
  অঁতোনি মার্সিয়াল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
  মার্কাস রাশফোর্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

শীর্ষ অ্যাসিস্টদাতাসম্পাদনা

 
২০টি অ্যাসিস্ট করার মাধ্যমে যৌথ রেকর্ড করার পাশাপাশি কেভিন ডি ব্রুইন প্রিমিয়ার লীগ মৌসুমের সেরা প্লেমেকার পুরস্কার জয়লাভ করেছেন
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব অ্যাসিস্ট[১৬]
  কেভিন ডি ব্রুইন ম্যানচেস্টার সিটি ২০
  ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ড লিভারপুল ১৩
  অ্যান্ড্রু রবার্টসন লিভারপুল ১২
  মোহাম্মদ সালাহ লিভারপুল ১০
  ডেভিড সিলভা ম্যানচেস্টার সিটি
  সোন হুং মিন টটেনহ্যাম হটস্পার
  রিয়াদ মাহরিজ ম্যানচেস্টার সিটি
  আদামা ত্রাওরে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স
  হার্ভি বার্ন্স লেস্টার সিটি
  রবার্তো ফিরমিনো লিভারপুল

ক্লিন শিটসম্পাদনা

 
১৬টি ক্লিন শিটের মাধ্যমে এদেরসন প্রিমিয়ার লীগ গোল্ডেন গ্লাভ পুরস্কার জয়লাভ করেছেন
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব ক্লিন শিট[১৭]
  এদেরসন ম্যানচেস্টার সিটি ১৬
  নিক পোপ বার্নলি ১৫
  অ্যালিসন বেকার লিভারপুল ১৩
  ডেভিড দে গিয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
  ডিন হেন্ডারসন শেফিল্ড ইউনাইটেড
  রুই পাত্রিসিও উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স
  কাস্পার স্মাইকেল লেস্টার সিটি
  মার্তিন দুব্রাভকা নিউক্যাসেল ইউনাইটেড ১১
  বিসেন্তে গুয়াইতা ক্রিস্টাল প্যালেস ১০
১০   বেন ফস্টার ওয়াটফোর্ড
  জর্ডান পিকফোর্ড এভার্টন
  ম্যাথু রায়ান ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ আলবিয়ন

হ্যাট্রিকসম্পাদনা

 
রাহিম স্টার্লিং একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে একাধিকবার হ্যাট্রিক করেছেন
খেলোয়াড় দল প্রতিপক্ষ ফলাফল তারিখ
  রাহিম স্টার্লিং ম্যানচেস্টার সিটি ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড ৫–০ (অ্যাওয়ে)[১৮] ১০ আগস্ট ২০১৯
  টিমু পুক্কি নরউইচ সিটি নিউক্যাসেল ইউনাইটেড ৩–১ (হোম)[১৯] ১৭ আগস্ট ২০১৯
  ট্যামি আব্রাহাম চেলসি উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ৫–২ (অ্যাওয়ে)[২০] ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  বের্নার্দো সিলভা ম্যানচেস্টার সিটি ওয়াটফোর্ড ৮–০ (হোম)[২১] ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  আয়োসে পেরেস লেস্টার সিটি সাউদাম্পটন ৯–০ (অ্যাওয়ে)[২২] ২৫ অক্টোবর ২০১৯
  জেমি ভার্ডি
  ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচ চেলসি বার্নলি ৪–২ (অ্যাওয়ে)[২৩] ২৬ অক্টোবর ২০১৯
  সার্হিও আগুয়েরো ম্যানচেস্টার সিটি অ্যাস্টন ভিলা ৬–১ (অ্যাওয়ে)[২৪] ১২ জানুয়ারি ২০২০
  অঁতোনি মার্সিয়াল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড শেফিল্ড ইউনাইটেড ৩–০ (হোম)[২৫] ২৪ জুন ২০২০
  মিখাইল অ্যান্টোনিও ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড নরউইচ সিটি ৪–০ (অ্যাওয়ে)[২৬] ১১ জুলাই ২০২০
  রাহিম স্টার্লিং ম্যানচেস্টার সিটি ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ আলবিয়ন ৫–০ (অ্যাওয়ে)[২৭] ১১ জুলাই ২০২০
টীকা

– খেলোয়াড় উক্ত ম্যাচে ৪টি গোল করেছেন
(হোম) – হোম দল
(অ্যাওয়ে) – অ্যাওয়ে দল

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Here's when 2019/20 Premier League fixtures will be revealed"। ১৭ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১৯ 
  2. "Premier League, FA, EFL and WSL unite to postpone fixtures"Premier League। ১৩ মার্চ ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০২০ 
  3. "Premier League statement on impact of COVID-19"premierleague.com। Premier League। ৫ এপ্রিল ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০২০ 
  4. "English Premier League Performance Stats – 2019–20"। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  5. "Premier League returns on June 17"Sky Sports। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০২০ 
  6. Mendola, Nicholas (২০২০-০৬-২৫)। "Earliest Premier League champion: Is Liverpool fastest to clinch?"ProSoccerTalk | NBC Sports (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-২৫ 
  7. "VAR: Video assistant referees set to be used in Premier League next season"BBC Sport। ১৫ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  8. "Football's new laws – changes to backpasses, penalties, handballs and subs for 2019–20"BBC Sport। ১ আগস্ট ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২ আগস্ট ২০১৯ 
  9. "Club Financial Control Body Adjudicatory Chamber decision on Manchester City Football Club"UEFA.comUnion of European Football Associations। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  10. "The Court of Arbitration for Sport (CAS) has registered the appeal of Manchester City v. UEFA" (PDF)Court of Arbitration for Sport। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  11. Marcotti, Gabriele (৫ জুন ২০২০)। "Man City's appeal of UEFA ban: What's at stake for City and Financial Fair Play"ESPN.com 
  12. "Decision in the arbitration procedure between Manchester City FC & UEFA" (PDF)The Court of Arbitration for Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০২০ 
  13. "Premier League Handbook Season 2019/20: Rules of the Premier League Section C pages 101–102"premierleague.com। ২ আগস্ট ২০১৯। 
  14. "Premier League Golden Boot: লেস্টার সিটি's Jamie Vardy wins with 23 goals"BBC Sport। ২৬ জুলাই ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  15. "Premier League Player Stats – Goals"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  16. "Premier League Player Stats – Assists"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  17. "Premier League Player Stats – Clean Sheets"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  18. Rose, Gary (১০ আগস্ট ২০১৯)। "West Ham 0–5 Manchester City"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৯ 
  19. Bradshaw, Joe (১৭ আগস্ট ২০১৯)। "Norwich City 3–1 Newcastle United"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০১৯ 
  20. Johnston, Neil (১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯)। "Wolverhampton Wanderers 2–5 Chelsea"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  21. Bevan, Chris (২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯)। "Manchester City 8–0 Watford"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  22. "Southampton 0–9 Leicester City"BBC Sport। ২৫ অক্টোবর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১৯ 
  23. Begley, Emlyn (২৬ অক্টোবর ২০১৯)। "Burnley 2–4 Chelsea"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৯ 
  24. Stone, Simon (১২ জানুয়ারি ২০২০)। "Aston Villa 1–6 Manchester City"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০২০ 
  25. Stone, Simon (২৪ জুন ২০২০)। "Manchester United 3–0 Sheffield United"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুন ২০২০ 
  26. Johnston, Neil (১১ জুলাই ২০২০)। "Norwich City 0–4 West Ham United"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০২০ 
  27. Bevan, Chris (১১ জুলাই ২০২০)। "Brighton & Hove Albion 0–5 Manchester City"BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

টেমপ্লেট:২০১৯–২০-এ ইংরেজ পুরুষদের ফুটবল