২০১৩–১৪ বাংলাদেশ ফুটবল প্রিমিয়ার লীগ

২০১৩-১৪ নিটোল টাটা বাংলাদেশ লীগ ছিল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের ৭ম আসর। এটি শুরু হয় ২৭ ডিসেম্বর ২০১৩[১] এবং শেষ হয় ২৭ জুলাই ২০১৪ তারিখে। ১০টি দল একে-অপরের সঙ্গে হোম এবং এওয়ে ভিত্তিতে খেলে। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লীগ চ্যাম্পিয়ন্স হয়। সেই সাথে তারা ২০১৬ এএফসি কাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। লীগ শেষে উত্তর বারিধারা স্পোর্টিং ক্লাব-এর অবনমন ঘটে।

নিটোল টাটা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ
২০১৩-১৪ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ লোগো.jpg
মৌসুম২০১৩–১৪
চ্যাম্পিয়নশেখ জামাল
অবনমনউত্তর বারিধারা স্পোর্টিং ক্লাব
এএফসি কাপশেখ জামাল
মোট গোলসংখ্যা৩৮২
গড় গোল/খেলা২.৮৩
শীর্ষ গোলদাতাহাইতি ওয়েডসন অ্যানসেলম (২৬টি গোল)

অংশগ্রহণকারী দলসমূহসম্পাদনা

 
 
চট্টগ্রাম
 
ঢাকা
 
ফেনী
 
গোপালগঞ্জ
২০১৩-১৪ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের দলগুলোর অবস্থান

গত বছর আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের লীগে অবনমন হয়েছিল। ফলে তাদের পরিবর্তে ২০১৩ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ-এর চ্যাম্পিয়ন্স চট্টগ্রাম আবাহনী ও ২য় স্থানে থাকা উত্তর বারিধারাকে লীগে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

ক্লাব স্টেডিয়াম অবস্থান
উত্তর বারিধারা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
ব্রাদার্স ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
চট্টগ্রাম আবাহনী এম এ আজিজ স্টেডিয়াম চট্টগ্রাম
ঢাকা আবাহনী বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
ঢাকা মোহামেডান বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
ফেনী সকার ক্লাব শহীদ সালাম স্টেডিয়াম ফেনী
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম গোপালগঞ্জ
শেখ জামাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা
টিম বিজেএমসি বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ঢাকা

চূড়ান্ত অবস্থানসম্পাদনা

অব
দল
খে

ড্র
হা
গপ
গবি
গপা
পয়েন্ট
যোগ্যতা অথবা অবনমন
শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব (C) ২৭ ১৯ ৭৮ ২৬ +৫২ ৬৪ ২০১৬ এএফসি কাপ
ঢাকা আবাহনী ২৭ ১৪ ১০ ৩৬ ১৬ +২০ ৫২
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ২৭ ১৪ ৫৪ ২৬ +২৮ ৪৯
ঢাকা মোহামেডান ২৭ ১২ ৩৬ ২৫ +১১ ৪৫
ব্রাদার্স ইউনিয়ন ২৭ ১০ ৩৫ ৩৩ +২ ৩৮
শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ২৭ ১১ ৩৮ ৩৫ +৩ ৩২
টিম বিজেএমসি ২৭ ১৩ ৩৯ ৪৯ −১০ ৩০
চট্টগ্রাম আবাহনী ২৭ ১৪ ১৮ ৩৯ −২১ ২৫
ফেনী সকার ক্লাব ২৭ ১২ ১৩ ৩০ ৪৮ −১৮ ১৮
১০ উত্তর বারিধারা স্পোর্টিং ক্লাব (R) ২৭ ১৯ ১৮ ৮৫ −৬৭ ১২ ২০১৫ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ -এ অবনমন

২৭ জুলাই ২০১৪ তারিখের খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত।
উত্স: Soccerway
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: ১) পয়েন্ট; ২) গোল পার্থক্য; ৩) যতগুলি গোল করেছে।
(C) = চ্যাম্পিয়ন; (R) = অবনমন; (P) = উন্নীত; (E) = বাদ পড়া; (O) = প্লে-অফ বিজয়ী; (A) = পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত।
শুধুমাত্র প্রযোজ্য যখন মৌসুম শেষ হয় নি:
(Q) = টুর্নামেন্টের নির্দেশিত পর্যায়ে যাওয়ার উপযুক্ত; (TQ) = টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতাঅর্জন, কিন্তু এখনো নির্দিষ্ট পর্যায় নির্দেশিত হয়নি; (RQ) = নির্দেশিত অবনমন টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতাঅর্জন; (DQ) = টুর্নামেন্ট থেকে অযোগ্য ঘোষণা।

শীর্ষ গোলদাতাসম্পাদনা

অব খেলোড়ার ক্লাব গোল
  ওয়েডসন অ্যানসেলম শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ২৬
  এমেকা ডার্লিংটন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ২১
  কিংসলে চিগোজি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ১৭

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে মর্যাদার প্রিমিয়ার লীগ"oldsite.dailyjanakantha.com। ২০১৩-১২-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]