২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ

২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ (ইংরেজি: 2011 AFC Asian Cup) প্রতিযোগিতা দ্বিতীয় বারের মতো কাতারে অনুষ্ঠিত হয়।[১][২] ৭-২৯ জানুয়ারি, ২০১১ সালে পঞ্চদশ আসর হিসেবে এএফসি কর্তৃক আয়োজিত এ ফুটবল প্রতিযোগিতায় জাপান শিরোপা লাভ করে। এ বিজয়ের ফলে তারা ২০১৩ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে এশিয়া থেকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পায়।[৩][৪] এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল, ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা এবং উত্তর আফ্রিকাসহ বিশ্বের প্রায় ৪৮৪ মিলিয়ন দর্শক চূড়ান্ত খেলাটি অবলোকন করে।[৫]

২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ
كأس آسيا ٢٠١١
২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ.png
বিবরণ
স্বাগতিক দেশকাতার
তারিখ৭ জানুয়ারি – ২৯ ফেব্রুয়ারি
দল১৬
মাঠ (২টি আয়োজক শহরে)
চূড়ান্ত অবস্থান
চ্যাম্পিয়ন জাপান (৪র্থ শিরোপা)
রানার-আপ অস্ট্রেলিয়া
তৃতীয় স্থান দক্ষিণ কোরিয়া
চতুর্থ স্থান উজবেকিস্তান
পরিসংখ্যান
ম্যাচ৩২
গোল সংখ্যা৯০ (ম্যাচ প্রতি ২.৮১টি)
দর্শক সংখ্যা৪,০৫,৩৬১ (ম্যাচ প্রতি ১২,৬৬৮ জন)
শীর্ষ গোলদাতাদক্ষিণ কোরিয়া কো জা-চিওল (৫ গোল)
সেরা খেলোয়াড়জাপান কেইসুক হোন্ডা

অংশগ্রহণকারী দলের তালিকাসম্পাদনা

দল যোগ্যতা নিশ্চিতকরণ পূর্বে অংশগ্রহণ
  কাতার স্বাগতিক ২৯ জুলাই, ২০০৭ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  ইরাক ২০০৭ বিজয়ী ২৫ জুলাই, ২০০৭ (১৯৭২, ১৯৭৬, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  সৌদি আরব ২০০৭ এএফসি এশিয়ান কাপ ২৫ জুলাই, ২০০৭ (১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  দক্ষিণ কোরিয়া ২০০৭ এএফসি এশিয়ান কাপ তৃতীয় স্থান ২৮ জুলাই, ২০০৭ ১১ (১৯৫৬, ১৯৬০, ১৯৬৪, ১৯৭২, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  ভারত ২০০৮ বিজয়ী ১৩ আগস্ট, ২০০৮ (১৯৬৪, ১৯৮৪)
  উজবেকিস্তান ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ সি রানার-আপ ১৮ নভেম্বর, ২০০৯ (১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  সিরিয়া ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ ডি বিজয়ী ১৮ নভেম্বর, ২০০৯ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯৬)
  ইরান ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ ই বিজয়ী ৬ জানুয়ারি, ২০১০ ১১ (১৯৬৮, ১৯৭২, ১৯৭৬, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  চীন ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ ডি রানার-আপ ৬ জানুয়ারি, ২০১০ (১৯৭৬, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  জাপান ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ এ বিজয়ী ৬ জানুয়ারি, ২০১০ (১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
  বাহরাইন ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ এ রানার-আপ ৬ জানুয়ারি, ২০১০ (১৯৮৮, ২০০৪, ২০০৭)
  সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ সি বিজয়ী ৬ জানুয়ারি, ২০১০ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০৪, ২০০৭)
  উত্তর কোরিয়া ২০১০ এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ (১৯৮০, ১৯৯২)
  অস্ট্রেলিয়া ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ বি বিজয়ী ৩ মার্চ, ২০১০ (২০০৭)
  কুয়েত ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ বি রানার-আপ ৩ মার্চ, ২০১০ (১৯৭২, ১৯৭৬, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪)
  জর্ডান ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ যোগ্যতা নির্ধারণী - গ্রুপ ই রানার-আপ ৩ মার্চ, ২০১০ (২০০৪)
বোল্ড বলতে ঐ বছরের চ্যাম্পিয়ন নির্দেশ করে
আইটালিক হচ্ছে স্বাগতিক দেশ

মাঠসম্পাদনা

এএফসি সাংগঠনিক কমিটির সদস্যরা প্রতিযোগিতার জন্য পাঁচটি স্টেডিয়াম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।[৬]

দোহা আল রাইয়ান দোহা
খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়াম আল-ঘরাফা স্টেডিয়াম
দর্শক ধারণ ক্ষমতা: ৪০,০০০ দর্শক ধারণ ক্ষমতা: ২২,০০০ দর্শক ধারণ ক্ষমতা: ২২,০০০
     
দোহা দোহা
কাতার এসসি স্টেডিয়াম জসীম বিন হামাদ স্টেডিয়াম
দর্শক ধারণ ক্ষমতা: ১২,৫০০ দর্শক ধারণ ক্ষমতা: ১৩,৫০০
   

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Qatar confirmed as cup host"Fox Sports। ২৯ জুলাই ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০০৭ 
  2. "Qatar to host AFC Asian Cup in 2011"। Asian Football Confederation। ২৯ জুলাই ২০০৭। ১০ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০০৭ 
  3. "Japan down Aussies to make history"FIFA.com। ২৯ জানুয়ারি ২০১১। ১৬ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. "Australia 0 - 1 Japan"ESPN Soccernet। ২৯ জানুয়ারি ২০১১। ৩১ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  5. "Asian Cup final 'rematch' kick-off time set"Asian Football Confederation। ২৩ এপ্রিল ২০১২। ১১ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১২ 
  6. "AFC Organising Committee for AFC Asian Cup 2011"। AFC। ১৪ জুলাই ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০০৯ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা