১: নেনোক্কডিনে

১: নেনোক্কডিনে (অনু. ১:আমি একা) হল ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এবং সুকুমার কর্তৃক রচিত ও পরিচালিত একটি ভারতীয় তেলুগু মনস্ত্বাত্তিক অ্যাকশন থ্রিলার চলচ্চিত্র[২][৩] ১৪ রিলস এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে রাম অচন্ত, গোপীচাঁদ অচন্ত ও অনিল শংকর কর্তৃক প্রযোজিত এবং ইরোস ইন্টারন্যাশনাল পরিবেশিত এই ছবিটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেন মহেশ বাবুকৃতি স্যানন। এটিই কৃতি স্যানোন অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেন নছর, প্রদীপ রাওয়াত, কেলি দোরজিঅনু হাসান। বাবুর পুত্র গৌতম কৃষ্ণও এই ছবিতে নায়কের শৈশবাবস্থার রূপদানের মাধ্যমে প্রথম চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ করে।

১: নেনোক্কডিনে
চিত্র:1 Nenokkadine film poster.jpg
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিকালীন পোস্টার
পরিচালকসুকুমার
প্রযোজকরাম অচন্ত
গোপীচাঁদ অচন্ত
অনিল শংকর
রচয়িতাসুকুমার
জক্ক হরিপ্রসাদ
শ্রেষ্ঠাংশেমহেশ বাবু
কৃতি স্যানন
সুরকারদেবী শ্রী প্রসাদ
চিত্রগ্রাহকআর. রত্নবেলু
সম্পাদককার্তিকা শ্রীনিবাস
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকইরোস ইন্টারন্যাশনাল
মুক্তি
  • ১০ জানুয়ারি ২০১৪ (2014-01-10)
দৈর্ঘ্য১৭৭ মিনিট (প্রেক্ষাগৃহ সংস্করণ)
১৫৭ মিনিট (সংক্ষেপিত সংস্করণ)
দেশভারত
ভাষাতেলুগু
নির্মাণব্যয়৭০ কোটি টাকা[১]

১: নেনোক্কডিনে ছবিতে দেখা যায়, গৌতম নামে এক সিজোফ্রিনিয়া-গ্রস্থ ভারতীয় রক সংগীতশিল্পী (যার মস্তিষ্কের ধূসর বস্তুর ২৫ শতাংশ নেই) তার বাবা-মাকে খুঁজছে। গৌতম মনে করত যে তিন জন লোক তাদের হত্যা করেছিল। সাংবাদিক সমীরা তাকে বোঝায় যে সে আসলে অনাথ ও হত্যার ধারণাটি নিছকই তার কল্পনা মাত্র। নিজের মানসিক সন্তুষ্টির জন্য একটি ‘কাল্পনিক’ লোককে হত্যার পর গৌতম বুঝতে পারে যে মৃত ব্যক্তিটি কল্পনা নয়। তখন সে লন্ডন চলে যায় নিজের শিকড়ের সন্ধানে এবং বাবা-মায়ের মৃত্যুর কারণ অপর দুই লোকের সন্ধানে।

সুকুমার ১: নেনোক্কডিনে ছবির চিত্রনাট্যের কাজ শুরু করেন ১০০% লাভ (২০১১) ছবির কাজ সম্পূর্ণ করার পরেই। প্রথমে গল্পটি ছিল এক বাস ড্রাইভারের শোনানো এক ছেলের গল্প, যে দাবি করেছিল তার বাবা-মা সেই বাসেই খুন হয়। আর. রত্নবেলু ছিলেন এই এই ছবির আলোকচিত্র পরিচালক এবং কার্তিকা শ্রীনিবাস ছিলেন সম্পাদক। দেবী শ্রী প্রসাদ ছবির গানগুলিতে সুর দেন এবং নেপথ্য সংগীত রচনা করেন। ১: নেনোক্কডিনে ছবির কাজ শুরু হয় ২০১২ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি, ছবির প্রিন্সিপাল ফোটোগ্রাফির কাজ শুরু হয় ২০১২ সালের ২৩ এপ্রিল এবং সমাপ্ত হয় ২০১৩ সালের অক্টোবর মাসের শেষ দিকে। ছবিটি চলচ্চিত্রায়িত হয় লন্ডন, বেলফাস্ট, ব্যাংকক এবং ভারতের হায়দ্রাবাদ, মুম্বই, গোয়া, চেন্নাইবেঙ্গালুরুতে

১: নেনোক্কডিনে ছবিটির বাজেট ছিল ৭০ কোটি টাকা। ২০১৪ সালের ১০ জানুয়ারি সংক্রান্তি উৎসবের মরসুমে ১,৫০০টি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি পায়। সেই সময় মোট ১.৩২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার লাভ করে এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বক্স অফিসে চতুর্থ সর্বাধিক লাভজনক তেলুগু ছবির মর্যাদা লাভ করে। চতুর্থ দক্ষিণ ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে এই ছবিটি আটটি মনোনয়নের মধ্যে থেকে তিনটি পুরস্কার জয় করে এবং একাদশ সিনেমা অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানে দু’টি পুরস্কার জয় করে। ফিল্ম কমপ্যানিয়ন কর্তৃক ১: নেনোক্কডিনে ছবিটি ‘দশকের শ্রেষ্ঠ ২৫টি তেলুগু ছবি’র অন্যতম আখ্যা পায়।[৪]

অভিনেতা-অভিনেত্রীসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. শিবকুমার, এস. (১৬ মে ২০১৪)। "পেইন্টিং ম্যাজিক"দ্য হিন্দু। ৭ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  2. "১ নেনোক্কডিনে (২০১৩)"ব্রিটিশ বোর্ড অফ ফিল্ম ক্লাসিফিকেশন। ১৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৯ 
  3. "মহেশ বাবু'জ সন শ্যুটস ফর '১: নেনোক্কডিনে'"সিএনএন-নিউজ১৮ইন্ডো-এশিয়ান নিউজ সার্ভিস। ১৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৯ 
  4. "২৫ গ্রেটেস্ট তেলুগু ফিল্মস অফ দ্য ডিকেড | ফিল্ম কমপ্যানিয়ন"www.filmcompanion.in (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা