১৯৮৮ এশিয়া কাপ (যা উইলস এশিয়া কাপ নামেও পরিচিত) ছিল এশিয়া কাপ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসর।প্রতিযোগিতাটি ১৯৮৮ সালের ২৬ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। টুর্নামেন্টে চারটি দল অংশ নিয়েছিল: ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা এবং স্বাগতিক বাংলাদেশ। ম্যাচগুলো ছিল বাংলাদেশে খেলা প্রথম লিস্ট এ-শ্রেণিকৃত, তারপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সহযোগী সদস্য, তাদের প্রতিপক্ষ সবাই পূর্ণ সদস্য।

১৯৮৮ এশিয়া কাপ
তারিখ২৭ অক্টোবর – ৪ নভেম্বর ১৯৮৮
তত্ত্বাবধায়কএশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনএকদিনের আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনরাউন্ড-রবিন
আয়োজক বাংলাদেশ
বিজয়ী ভারত (২য় শিরোপা)
রানার-আপ শ্রীলঙ্কা
অংশগ্রহণকারী দলসংখ্যা
খেলার সংখ্যা
প্রতিযোগিতার সেরা খেলোয়াড়ভারত নবজ্যোত সিধু
সর্বাধিক রান সংগ্রহকারীপাকিস্তান ইজাজ আহমেদ (১৯২)
সর্বাধিক উইকেটধারীভারত আরশাদ আইয়ুব (৯)

১৯৮৮ এশিয়া কাপ ছিল একটি রাউন্ড-রবিন টুর্নামেন্ট যেখানে প্রতিটি দল অন্য তিনটিতে একবার খেলেছিল এবং শীর্ষ দুটি দল ফাইনালে জায়গা করার যোগ্যতা অর্জন করেছিল। ভারত ও শ্রীলঙ্কা ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল, যেখানে ভারত শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে পরাজিত করে দ্বিতীয় এশিয়া কাপ জিতেছিল।

দলের সদস্য

সম্পাদনা
স্কোয়াড [১]
  ভারত   শ্রীলঙ্কা   পাকিস্তান   বাংলাদেশ
দিলীপ ভেঙ্গসরকার ( ) অর্জুন রানাতুঙ্গা ( ) জাভেদ মিয়াঁদাদ ( ) গাজী আশরাফ ( )
কৃষ্ণমাচারী শ্রীকান্ত রওশন মহানাম রমিজ রাজা আজহার হোসেন
নভজ্যোত সিং সিধু ব্রেন্ডন কুরুপ্পু ( উ.র. ) আমের মালিক হারুনুর রশীদ
মহিন্দর অমরনাথ অথুলা সমরসেকেরা শোয়েব মোহাম্মদ আতহার আলী খান
মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন অরবিন্দ ডি সিলভা সেলিম মালিক মিনহাজুল আবেদীন
কপিল দেব রঞ্জন মাদুগালে ইজাজ আহমেদ আমিনুল ইসলাম
কিরণ মোর ( উ.র. ) দুলিপ মেন্ডিস সেলিম ইউসুফ ( উ.র. ) জাহিদ রাজ্জাক
সঞ্জীব শর্মা রবি রত্নায়েকে মনজুর এলাহী গোলাম ফারুক
আরশাদ আইয়ুব গ্রায়েম ল্যাবরয় ওয়াসিম আকরাম জাহাঙ্গীর শাহ
মনিন্দর সিং কপিলা উইজেগুনাবর্ধনে আব্দুল কাদির নাসির আহমেদ ( উ.র. )
নরেন্দ্র হিরওয়ানি ডন অনুরাসিরি তৌসিফ আহমেদ গোলাম নওশের
অজয় শর্মা হাশান তিলকরত্নে মইন-উল-আতিক ফারুক আহমেদ
চন্দ্রকান্ত পণ্ডিত রঞ্জিত মাদুরসিংহে ইকবাল কাসিম আকরাম খান
- চম্পাকা রামানায়কে নাভেদ আঞ্জুম ওয়াহিদুল গণি
- উভাইস কারনাইন হাফিজ শহীদ -

ম্যাচগুলো

সম্পাদনা

গ্রুপ পর্ব

সম্পাদনা
দল ম্যাচ জয় হার টাই এনআর পয়েন্ট এনআরআর
  শ্রীলঙ্কা ১২ ৫.১১০
  ভারত ৪.৪৯১
  পাকিস্তান ৪.৭২১
  বাংলাদেশ ২.৪৩০
২৭ অক্টোবর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান  
১৯৪/৭ (৪৪ ওভার)
  শ্রীলঙ্কা
১৯৫/৫ (৩৮.৫ ওভার)
ইজাজ আহমেদ ৫৪ (৫৮)
গ্রেইম লেব্রয় ৩/৩৬ (৮ ওভার)
রোশন মহানামা ৫৫ (৯২)
ওয়াসিম আকরাম ২/৩৪ (৭.৫ ওভার)

২৭ অক্টোবর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ  
৯৯/৮ (৪৫ ওভার)
  ভারত
১০০/১ (২৬ ওভার)

২৯ অক্টোবর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান  
২৮৪/৩ (৪৫ ওভার)
  বাংলাদেশ
১১১/৬ (৪৫ ওভার)
ইজাজ আহমেদ ১২৪* (৮৭)
আজহার হোসেন ১/২৪ (৪ ওভার)
আথার আলী খান ২২ (৫২)
ইকবাল কাশিম ৩/১৩ (৯ ওভার)

২৯ অক্টোবর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
২৭১/৬ (৪৫ ওভার)
  ভারত
২৫৪ (৪৪ ওভার)
অরবিন্দ ডি সিলভা ৬৯ (৬৩)
কপিল দেব ২/৩৯ (৯ ওভার)

৩১ অক্টোবর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান  
১৪২ (৪২.২ ওভার)
  ভারত
১৪৩/৬ (৪০.৪ ওভার)
মঈন-উল-আতিক ৩৮ (৬৪)
আরশাদ আইয়ুব ৫/২1 (৯ ওভার)

২ নভেম্বর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ  
১১৮/৮ (৪৫ ওভার)
  শ্রীলঙ্কা
১২০/১ (৩০.৫ ওভার)

ফাইনাল

সম্পাদনা
৪ নভেম্বর ১৯৮৮
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
১৭৬ (৪৩.২ ওভার)
  ভারত
১৮০/৪ (৩৭.১ ওভার)

পরিসংখ্যান

সম্পাদনা

সবচেয়ে বেশি রান

সম্পাদনা
খেলোয়াড় ম্যাচ ইনিংস ন.অ. রান গড় এসআর এইচ.এস ১০০ ৫০
  ইজাজ আহমেদ ১৯২ ৯৬.০০ ১০৩.৭৮ ১২৪ *
  নভজ্যোত সিধু ১৭৯ ৫৯.৬৬ ৭৭.৮২ ৭৬
  মইন-উল-আতিক ১৪৩ ৭১.৫০ ৭৯.০০ ১০৫
  অথুলা সমরসেকেরা ১৪০ ৪৬.৬৬ ৭৫.৬৭ ৬৬
  অরবিন্দ ডি সিলভা ১৩৫ ৪৫.০০ ১০৭.১৪ ৬৯
সূত্র: ক্রিকইনফো [২]

সবচেয়ে বেশি উইকেট

সম্পাদনা
খেলোয়াড় ম্যাচ ইনিংস উইকেট ওভার গড় ইকোন. বিবিআই ৪ উই. ৫ উই.
  আরশাদ আইয়ুব ৩৬.০০ ১৩.৩৩ ৩.৩৩ ৫/২১
  কপিলা উইজেগুনাবর্ধনে ৩২.০০ ১৬.৫০ ৪.১২ ৪/৪৯
  রবি রত্নায়েকে ৩৪.০০ ১৮.৮৫ ৩.৮৮ ৪/২৩
  কপিল দেব ২৮.২ ১৬.৫০ ৩.৪৯ ২/১৬
  আব্দুল কাদির ২৬.০০ ১৭.০০ ৩.৯২ ৩/২৭
সূত্র: ক্রিকইনফো [৩]

আরও দেখুন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Cricinfo Asia Cup page Cricinfo. Retrieved on ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
  2. "Wills Asia Cup, ১৯৮৮/৮৯ Cricket Team Records & Stats | ESPNcricinfo.com"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১৮ 
  3. "Wills Asia Cup, ১৯৮৮/৮৯ Cricket Team Records & Stats | ESPNcricinfo.com"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১৮ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা