প্রধান মেনু খুলুন

উইকিপিডিয়া β

দশ ইউরোর নোটটি (প্রতীক: € ১০) ইউরোর নোটের সর্বনিম্ন মূল্য ব্যাংকনোট যা ২০০২ সালে ইউরোর (এর নগদ রূপে) প্রচালন থেকে ব্যবহার করা হচ্ছে।[৭] ২৩টি দেশ (আইনগতভাবে ২২টি) তাদের একমাত্র মুদ্রা হিসেবে ব্যবহার করে হচ্ছে। ২০১৫ সালের হিসেব অনুযায়ী যার জনসংখ্যার ৩৩৮ মিলিয়নের বেশি।[৮] এটা ইউরোর দ্বিতীয় ছোট নোট যার আকৃতি ১২৭x৬৭ মিমি এবং এতে একটি লাল রঙের রেখাচিত্র রয়েছে।[৪] দশ ইউরোর ব্যাংকনোটের রোমান স্থাপত্য (১১তম এবং ১২তম শতাব্দীর মধ্যে) সেতু এবং ধনুকাকৃতি খিলান / প্রবেশপথ অঙ্কন করা রয়েছে। দশ ইউরোর ব্যাংকনোটে বিভিন্ন বৈশিষ্ঠ্য যেমন, জলছাপ, অদৃশ্য কালি, হলোগ্রাম এবং মাইক্রোপ্রিন্টিং, যা নথির নির্ভেজালত্ব প্রমাণসহ জটিল নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে, ইউরোজোনে প্রায় ২,২১৬,৬৫৬.৩১৭টি দশ ইউরোর ব্যাংকনোট রয়েছে।[৯]

দশ ইউরো
(ইউরোজোন এবং প্রতিষ্ঠান)
মূল্য ১০ ইউরো
প্রস্থ ১২৭ মিমি
উচ্চতা ৬৭ মিমি
নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য

প্রথম সিরিজ: অনুজ্জ্বল পৃষ্ঠতল, উত্থাপিত ছাপা, জলছাপসমূহ, নিরাপত্তা সুতা, সংখ্যার মধ্য দিয়ে দেখা, হলোগ্রাম, প্রতিফলিত চকচকে ডোরা, ক্ষুদ্রছাপা, অতিবেগুনী রশ্মিপূর্ণ কালির বৈশিষ্ট্য, ইউরিওন তারকামণ্ডল, বারকোডসমূহ এবং ক্রমিক সংখ্যা[১]

ইউরোপা সিরিজ: অনুজ্জ্বল পৃষ্ঠতল, উত্থাপিত ছাপা, নিরাপত্তা সুতা, প্রতিমূর্তি জলছাপ, প্রতিমূর্তি হলোগ্রাম, পান্না সংখ্যা, ক্ষুদ্রছাপা, স্ট্যান্ডার্ড ইউভি রশ্মি, বিশেষ ইউভি রশ্মি (ইউভি-সি) এবং ইনফ্রারেড বৈশিষ্ট্য[২]
কাগজের ধরন তুলার আঁশ[১]
ছাপানোর বছর -২০১২ (১ম সিরিজ)[৩]
>২০১৩ সাল থেকে (ইউরোপা সিরিজ)[৩]
সামনের দিক
EUR 10 obverse (2014 issue).png
নকশা রোমান স্থাপত্য আর্চ[৪]
নকশাকার রবার্ট কালিনা[৫][৬]
নকশার তারিখ ৩রা ডিসেম্বর, ১৯৯৬[৫][৬]
পিছের দিক
EUR 10 reverse (2014 issue).png
নকশা রোমান স্থাপত্য সেতু এবং ইউরোপের মানচিত্র[৪]
নকশাকার রবার্ট কালিনা[৫][৬]
নকশার তারিখ ৩রা ডিসেম্বর, ১৯৯৬[৫][৬]

পরিচ্ছেদসমূহ

ইতিহাসসম্পাদনা

ইউরো ১লা জানুয়ারি, ১৯৯৯ সালে ইউরোপের ৩০০ মিলিয়নের বেশি মানুষের মুদ্রা হিসেবে প্রথম প্রকাশ করা হয়। প্রথম তিন বছর ইউরোর অস্তিত্ব একটি অদৃশ্য মুদ্রার হিসেবে ছিল, যা শুধুমাত্র হিসাববিদ্যায় ব্যবহৃত হত। ১লা জানুয়ারি, ২০০২ সালে ইউরোজোনের ১২টি দেশের জাতীয় ব্যাংকনোট ও কয়েন যেমন, আইরিশ পাউন্ড, ডয়চে মার্ক এবং ইতালীয় লিরা একটি নির্দিষ্ট রূপান্তর রেটে প্রতিস্থাপন করে ইউরো চালু হয়।

বর্তমান ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৮টি রাষ্ট্রের সদস্যের মধ্যে ১৯টি ইউরো ব্যাংকনোট ও কয়েন বৈধমুদ্রা হিসেবে ব্যবহার করছে। অ্যান্ডোরা, মোনাকো, সান মারিনো এবং ভ্যাটিকান সিটির মাইক্রো-যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপীয় সম্প্রদায়ের সাথে একটি আনুষ্ঠানিক ব্যবস্থার ভিত্তিতে ইউরো ব্যবহার করছে।

২০০৭ সালে স্লোভেনিয়া[১০], ২০০৮ সালে সাইপ্রাস এবং মাল্টা[১১], ২০০৯ সালে স্লোভাকিয়া[১২], ২০১১ সালে ইস্তোনিয়া[১৩], ১লা জানুয়ারি, ২০১৪ সালে লাটভিয়া[১৪] এবং ১লা জানুয়ারি, ২০১৫ সালে লিথুয়ানিয়া[১৫] ইউরোতে যোগদান করে।

পরিবর্তন সময়সীমাসম্পাদনা

প্রাক্তন মুদ্রা নোট ও কয়েন ইউরোতে পরিবর্তন সময়সীমা কাল ছিল প্রায় দুই মাস, ১লা জানুয়ারি, ২০০২ থেকে ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০০২ সাল পর্যন্ত। বিভিন্ন সদস্য রাষ্ট্রের জন্য তাদের পুরানো জাতীয় মুদ্রাসমূহ বিভিন্ন সদস্য রাষ্ট্রের সরকারি তারিখ অনুযায়ী আইনগত স্বীকৃতি স্থগিত করা হয়।[৩] ফলে বিভিন্ন সদস্য রাষ্ট্রসমূহের পুরানো জাতীয় মুদ্রাসমূহ ঐ তারিখের মধ্যে ইউরোতে রূপান্তরিত না করলে পরে তা মূল্যহীন হবে যাবে।[১৬] সর্বপ্রথম তারিখ ছিল জার্মানির, ৩১শে ডিসেম্বর, ২০০১ সালে সরকারিভাবে আইনগত স্বীকৃতি স্থগিত করা হয়েছিল কিন্তু বিনিময় সময়সীমা পরে আরো দুই মাস, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০০২ সাল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। পুরানো মুদ্রা আইনগতভাবে স্বীকৃত স্থগিত করা হলেও তারা দশ বছর বা এর কম সময়সীমা পর্যন্ত জাতীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্তৃক গৃহীত হওয়া অব্যাহত থাকে।[১৬][১৭]

পরিবর্তনসমূহসম্পাদনা

নভেম্বর ২০০৩ সালের আগে মুদ্রিত নোটসমূহে ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রথম সভাপতি উইম ডাসুনবার্গের স্বাক্ষর রয়েছে। ১লা নভেম্বর, ২০০৩ সাল থেকে জাঁ-ক্লদ ত্রিসে, উইম ডাসুনবার্গের স্বাক্ষর প্রতিস্থাপিত করে, এবং নভেম্বর ২০০৩ থেকে মার্চ ২০১২ সালে ছাপানো ইউরোতে তার স্বাক্ষর প্রদর্শিত হয়। মার্চ ২০১২ সালের পরে বর্তমান ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তৃতীয় সভাপতি মারিও দ্রাগির স্বাক্ষর ইউরোতে বহন করছে।

২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৪ সালে, প্রথমটির অনুরূপে একটি নতুন সিরিজ মুক্তি পায়। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক, যথাসময়ে, ঘোষণা করবে যখন প্রথম সিরিজ ব্যাংকনোটের আইনগত স্বীকৃত অবস্থা হারাবে।[১৮] নভেম্বার ২০১৫ সাল অনুযায়ী, ১ম সিরিজ ইস্যুতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সম্প্রসারণে প্রতিফলনের মানচিত্রে ২৮টি সদস্য রাষ্ট্রসমূহ হিসেবে দেখাতে পাওয়া যায় না। কারণ, সাইপ্রাস পূর্বদিকে যা মানচিত্রের বাইরে এবং মাল্টা চিত্রিত করার জন্য অনেক ছোট (মানচিত্রে দেখতে হলে নূন্যতম ৪০০ বর্গকিলোমিটার হতে হবে)।[১৯] ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রতিটি ইস্যু্র প্রতি সাত বা আট বছর পরে নোটের পুনঃনকশা পরিকল্পনা করা হয়ে থাকে। নতুন প্রকাশনা ও জাল বিরোধী প্রযুক্তি নতুন নোটে নিযুক্ত করা হবে, কিন্তু নকশার বিষয়বস্তু একই থাকবে এবং বর্তমান সিরিজের লাল রঙের হবে সেতু এবং খিলান।[২০]

নকশাসম্পাদনা

দশ ইউরোর নোট একটি লাল রঙের সামঞ্জস্যপূর্ণ সঙ্কল্পনা যার মাপ ১২৭ x ৬৭ মিলিমিটার (৫ × ২.৬ ইঞ্চি) এবং এটি ইউরোর দ্বিতীয় ছোট নোট।[৪] সকল ব্যাংকনোট একটি ভিন্ন ঐতিহাসিক ইউরোপীয় স্টাইলের সেতু, খিলান বা প্রবেশপথ চিত্রিত করা হয়েছে। দশ ইউরোর নোটে রোমান স্থাপত্য (১১তম এবং ১২তম শতাব্দীর মধ্যে) দেখানো হয়।[২১] যদিও রবার্ট কালিনার মূল নকশা বাস্তব স্মৃতিস্তম্ভসমূহ দেখানোর উদ্দেশ্যে ছিল কিন্তু রাজনৈতিক কারণে সেতু ও আর্ট শুধুমাত্র স্থাপত্য যুগের প্রকল্পিত উদাহরণ।[২২]

সব ইউরো নোটের মত, এটি সম্প্রদায় ধারণকারী ইইউ পতাকা, ইসিবি সভাপতির স্বাক্ষর, ব্যাংক নামের প্রথম অক্ষর বিভিন্ন ইইউ ভাষায়, বিদেশে ইইউ অঞ্চলে একটি চিত্রাঙ্কন, ইইউ পতাকার তারাসমূহ এবং বারো নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য নিচে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।[৪]

নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য (প্রথম সিরিজ)সম্পাদনা

প্রথম সিরিজের দশ ইউরোর নোটের নকশা
সামনের দিক
পিছের দিক
ফ্লুরোসেন্ট রশ্মির অধীনে ১০ ইউরো নোট (ইউভি-এ)
সামনের দিক
পিছের দিক
 
১০ ইউরোর নোট নিকট থেকে ক্ষুদ্রছাপাতে দেখা যাচ্ছে
 
ইনফ্রারেড আলো অধীনে একটি নোটের তুলনা (বাম), এবং স্বাভাবিক আলোর অধীন একটি নোট (ডানে)

একটি নিম্ন মান নোট হওয়ায় দশ ইউরো নোটের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য অন্যান্য ইউরোর মত এত উচ্চ না। যাইহোক, এটি এইগুলো দ্বারা সুরক্ষিত[১]:

  • অনুজ্জ্বল পৃষ্ঠতল : নোটের কাগজ বিশুদ্ধ তুলা থেকে তৈরি করা হয়েছে, যার ফলে একে মচমচে এবং শক্ত মনে হয়।[২৩]
  • উত্থাপিত ছাপা : একটি বিশেষ পদ্ধতির ফলে, ব্যাংকনোটটির সন্মুখভাগ জুড়ে আঙুল দিয়ে ছুলে উত্থাপিত বা ঘন কালি প্রধান ছবি, অক্ষর এবং ইউরোর মূল্য সংখ্যাসূচক অনুভব করা যায়।[২৩]
  • জলছাপ : ব্যাংকনোটটি আলোর সম্মুখে ধরলে একটি জলছাপ ছবি এবং ইউরোর মূল্য দৃশ্যমান হয়। যদি এটি একটি অন্ধকার পৃষ্ঠের উপর ব্যাংকনোট রাখা হয়, তাহলে জলছাপ গাঢ় হয়ে ওঠে।
  • নিরাপত্তা সুতা : ব্যাংকনোটটি আলোর সম্মুখে ধরলে ব্যাংকনোটের মধ্যে একটি কালো রেখা দৃশ্যমান হয়। এতে ক্ষুদ্র অক্ষরে "ইউরো" শব্দ এবং ইউরোর মূল্য লেখা আছে।[২৪]
  • সংখ্যার মধ্য দিয়ে দেখা : ব্যাংকনোটটির সামনের দিকের উপরে বাম কোণায় ইউরোর মূল্য অর্ধেক সংখ্যায় লেখা এবং পিছনে দিকের উপরে ডান কোণায় ইউরোর মূল্য বাকি অংশ সংখ্যায় লেখা রয়েছে যা আলোর সম্মুখে ধরলে পুরোপুরি মিশে গিয়ে একটি পরিপূর্ণ সংখ্যা পরিনত হয়।[২৩]
  • হলোগ্রাম : ইউরোর নোট কাত করলে নোটের মূল্য এবং ইউরোর € প্রতীক দেখা যায়।[২৩]
  • প্রতিফলিত চকচকে ডোরা : ব্যাংকনোটটির পিছনের দিকে একটি সোনার রঙের ডোরা কাত করলে প্রদর্শিত হয়। এতে নোটের মূল্য সংখ্যায় এবং ইউরোর € প্রতীক রয়েছে।
  • ক্ষুদ্রছাপা : ব্যাংকনোটের কিছু জায়গায়, উপরে অতি ক্ষুদ্র লেখা দেখ যায়। এই ক্ষুদ্রছাপা খালি চোখে একটি পাতলা লাইন বলে মনে হলেও একে একটি বিবর্ধক কাচের সাহায্যে পড়া যায়। এতো ছোট আকার হওয়া সত্ত্বেও ছাপাটি স্পষ্ট, ঝাপসা নয়।[২৫]
  • অতিবেগুনী রশ্মিপূর্ণ কালি : ব্যাংকনোটটি অতিবেগুনী রশ্মিতে ধরা হলে, কাগজটি নিজেই উষ্ণ বা কড়া রং ধারণ করে না। কাগজের লাল, নীল ও সবুজ রঙের ইমবেড ফাইবার প্রদর্শিত করে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের পতাকা এবং ইসিবি সভাপতি স্বাক্ষর সবুজ রঙের পরিণত হয়। কেন্দ্রের বড় তারা ও ছোট বৃত্তের তারাসমূহ কড়া কমলা রং ধারণ করে। পিছনের মানচিত্র, সেতু এবং হউরোর মূল্য হলুদ রং প্রদর্শিত করে।[২৫]
  • ইউরিওন তারকামণ্ডল : এটি বিশেষ মুদ্রণ প্রক্রিয়া তাদের ইউরো নোটকে দেয় অনন্য অনুভূতি।
  • বারকোড
  • একটি সিরিয়াল নম্বর

নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য (ইউরোপা সিরিজ)সম্পাদনা

ইউরোপা সিরিজের দশ ইউরোর নোটের নকশা
সামনের দিক
পিছের দিক
 
ইউরোপা সিরিজের প্রতিমূর্তি হলোগ্রাম
 
গ্রিক পুরাণের ইউরোপার একটি প্রতিমূর্তি
  • অনুজ্জ্বল পৃষ্ঠতল : নোটের কাগজ বিশুদ্ধ তুলা থেকে তৈরি করা হয়েছে, যার ফলে একে মচমচে এবং শক্ত মনে হয়।[২৩]
  • উত্থাপিত ছাপা : ব্যাংকনোটটির সম্মুখে, বাম এবং ডান দিকে সংক্ষিপ্ত হাইফেন (///) আকৃতি উত্থাপিত লাইনের একটি ধারাবাহিকতা রয়েছে, যা আঙুল দিয়ে ছুলে অনুভব করা যায়। এটি ব্যাংকনোটটি চিহ্নিত করতে সহজ করে, বিশেষ করে দৃষ্টিহীনদের জন্য। এছাড়াও প্রধান ছবি, অক্ষর এবং ইউরোর বড় মূল্য সংখ্যাসূচক অনুভব করা যায়।[২৩][২৬]
  • নিরাপত্তা সুতা : ব্যাংকনোটটি আলোর সম্মুখে ধরলে ব্যাংকনোটের মধ্যে একটি কালো রেখা দৃশ্যমান হয়। এতে ক্ষুদ্র সাদা অক্ষরে ইউরোর € প্রতীক এবং ব্যাংকনোটের মূল্য লেখা আছে।[২৩][২৬]
  • প্রতিমূর্তি জলছাপ : নোটটি একটি স্বাভাবিক আলোর উৎসতে রাখলে একটি অস্পষ্ট চিত্র দৃশ্যমান হয় এবং ইউরোপার একটি প্রতিমূর্তি (গ্রিক পুরাণের একটি চিত্র), ব্যাংকনোটের মূল্য এবং একটি জানালা প্রদর্শন করে। যদি এটি একটি অন্ধকার পৃষ্ঠের উপর ব্যাংকনোট রাখা হয়, তাহলে জলছাপ গাঢ় হয়ে ওঠে।
  • প্রতিমূর্তি হলোগ্রাম : নোটের ডানদিকে একটি রূপালি ডোরা হলোগ্রাম রয়েছে, যেখানে ইউরোর € প্রতীক, ইউরোপার একটি প্রতিমূর্তি (গ্রিক পুরাণের একটি চিত্র), একটি জানালা এবং ব্যাংকনোট মূল্য দেখা যায়।[২৩][২৬]
  • পান্না সংখ্যা : আলোতে নিয়ে নোটটি উপরে এবং নিচের দিকে ঘুড়ালে বাম দিকের নীচের কোণায় অবস্থিত নোটের মূল্য সংখ্যাটি চকচক করে এবং পান্না সবুজ থেকে গাঢ় নীল রঙে পরিবর্তন হয়।[২৩]
  • ক্ষুদ্রছাপা : ব্যাংকনোটের কিছু অংশে ক্ষুদ্র অক্ষরের একটি ধারাবাহিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এই ক্ষুদ্রছাপা খালি চোখে একটা পাতলা লাইন বলে মনে হলেও একে একটি বিবর্ধক কাচের সাহায্যে পড়া যায়। এতো ছোট আকার হওয়া সত্ত্বেও ছাপাটি স্পষ্ট, ঝাপসা নয়।[২৩]
  • অতিবেগুনি রশ্মি : কাগজটি নিজেই উষ্ণ বা কড়া রং ধারণ করে না। কাগজের লাল, নীল ও সবুজ রঙের ছোট ইমবেড ফাইবার প্রদর্শিত করে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের পতাকার তারাসমূহ, বৃত্তের ভিতরের বড় ও বাহিরের ছোট তারাসমূহ এবং বেশ কিছু অন্য জাগায় কড়া হলুদ রং ধারণ করে।[২৩]
  • বিশেষ অতিবেগুনি রশ্মি (ইউভি-সি) : সম্মুখে, কেন্দ্রের ছোট বৃত্ত কড়া হলুদ রং এবং বৃত্তের ভিতরের বড় ও বাহিরের ছোট তারাসমূহ কড়া কমলা রং ধারণ করে। এছাড়াও ইউরোর € প্রতীক দৃশ্যমান হয়।[২৩]
  • ইনফ্রারেড বৈশিষ্ট্য : ইনফ্রারেড আলোতে, ব্যাংকনোটের সম্মুখে, শুধুমাত্র পান্না সংখ্যা, প্রধান চিত্রের ডান দিকে এবং রূপালি ডোরা দৃশ্যমান হয়। ব্যাংকনোটের পিছনে, শুধুমাত্র ইউরোর মূল্য সংখ্যায় এবং অনুভূমিকভাবে সিরিয়াল নম্বর দৃশ্যমান হয়।[২৩]

প্রচলনসম্পাদনা

সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে, ইউরোজোনে প্রায় ২,২১৬,৬৫৬.৩১৭ টি দশ ইউরোর ব্যাংকনোট রয়েছে যার মূল্য হচ্ছে প্রায় ২২,১৬৬,৫৬৩.১৭ ইউরো।[২৭] ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইউরো কয়েন এবং ব্যাংকনোট স্টক নিবিড়ভাবে প্রচলন পর্যবেক্ষণ করছেন। ইউরোসিস্টেমের কাজ হচ্ছে ইউরো নোটের একটি কার্যকর এবং মসৃণ সরবরাহ নিশ্চিত করা এবং ইউরো অঞ্চল জুড়ে তাদের নীতিনিষ্ঠা বজায় রাখা।[২৭]

আইনগত তথ্যসম্পাদনা

আইনগতভাবে, ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং ইউরোজোন দেশসমূহের কেন্দ্রীয় ব্যাংক উভয়ই ৭টি বিভিন্ন ইউরো ব্যাংকনোট জারি করার অধিকার আছে। বাস্তবে, শুধুমাত্র জোনের জাতীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইউরো ব্যাংকনোট শারীরিকভাবে জারি এবং প্রত্যাহার করতে পারে। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক ক্যাশ অফিস নেই এবং কোন ক্যাশ অপারেশন জড়িত নয়।[৩]

অনুসরণসম্পাদনা

ইউরোপীয় পর্যায়ে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষ আছে যার বেশিরভাগ যার অধিকাংশ ইউরো বিল ট্র্যাকার[২৮] এটি একটি শখ, তাদের হাতে দিয়ে অতিক্রম করা ইউরো ব্যাংকনোটি কোথায় ভ্রমণ করছে বা ভ্রমণ করেছে তার সম্পর্কে তারা অবগত থাকে সক্ষম।[২৮] উদ্দেশ্য হল, তার বিস্তার সম্পর্কে জানার জন্য সর্বাধিক সংখ্যক নোটের বিস্তারিত রেকর্ড করা, যেমন, সাধারণত তারা কোথায় থেকে এসেছে এবং কোথায় ভ্রমণ করে, অনুসরণ করা, যেমন, নির্দিষ্ট কোথায় একটি টিকেট দেখা গিয়েছে, পরিসংখ্যান এবং ক্রমসমূহ তৈরি করা, উদাহরণ স্বরূপ, কোন দেশসমূহ বেশি টিকেটসমূহ রয়েছে।[২৮] ইউরো বিল ট্র্যাকারা ২০১৫ সালে নভেম্বর মাস পর্যন্ত ১৫০,২৫৫,২০৭ নোট নিবন্ধিত করেছে, যার মূল্য € ২,৮০৪,৬৩৩,৯৪০ ইউরোর বেশি।[২৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ECB: Security Features"European Central Bank। ecb.int। 2002। সংগ্রহের তারিখ 05 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. "ECB: Security features"European Central Bank। ecb.int। সংগ্রহের তারিখ 05 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. "ECB: Introduction"ECB। ECB। সংগ্রহের তারিখ 05 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  4. "ইসিবি: ব্যাংকনোট"ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  5. "ECB: Banknotes design"ECB। ECB। ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  6. First series
  7. "Witnessing a milestone in European history"The Herald। Back Issue। 1 January 2002। সংগ্রহের তারিখ 05 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  8. "Total population as of 1 January"। Epp.eurostat.ec.europa.eu। 2015-09-28 (PROD)। সংগ্রহের তারিখ 16 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  9. "ইসিবি: নোট ও কয়েন প্রচলন"। ইসিবি। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  10. "Slovenia joins the euro area - European Commission"। European Commission। ১৬ জুন ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  11. "Cyprus and Malta adopt the euro - BBC NEWS"BBC News। British Broadcasting Corporation। ১ জানুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  12. Kubosova, Lucia (৩১ ডিসেম্বর ২০০৮)। "Slovakia Joins Decade-Old Euro Zone - Businessweek"Bloomberg Businessweek। Bloomberg। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  13. "Estonia to join euro zone in 2011"RTÉ News। Radió Teilifís Éireann। ১৩ জুলাই ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  14. Van Tartwijk, Maarten; Kaza, Juris (৯ জুলাই ২০১৩)। "Latvia Gets Green Light to Join Euro Zone -WSJ.com"Wall Street Journal। Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  15. "COUNCIL DECISION of 23 July 2014 on the adoption by Lithuania of the euro on 1 January 2015"ইউরোপীয় ইউনিয়নের অফিসিয়াল পত্রিকাL (228/29)। ২০১৪-০৭-৩১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  16. "ইউরোর বিনিময় ক্যালেন্ডার"EC। ইউরোপীয় কমিশন। ১১ই ডিসেম্বার, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ 16 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  17. "প্রেস কিট - ইউরো নোট ও কয়েন দশম বার্ষিকী" (PDF)ECB। আয়ারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  18. "নতুন € ১০ ব্যাংকনোট আবিস্কার" (PDF)ECB। ECB। ১৩ জানুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  19. ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক"ইউরো: ব্যাংকনোট: নকশা উপাদান"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ব্যাংকনোট ইউরোপের একটি ভৌগলিক উপস্থাপনা প্রদর্শন করে। এটি ৪০০ বর্গকিলোমিটারের চেয়ে কম আয়তনের দ্বীপপুঞ্জসমূহ অন্তর্ভুক্ত করে না কারণ উচ্চ-ভলিউম অফসেট প্রিন্টিং ছোট নকশা উপাদানের সঠিক প্রজনন অনুমতি দেয় না। 
  20. একটি ব্যাংকনোটের জীবনচক্র, De Nederlandsche Bank. সংগৃহীত ১৬ নভেম্বর ২০১৫।
  21. "ECB: Banknotes"European Central Bank। ecb.int। ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  22. "Money talks — the new Euro cash"BBC News। BBC News। ডিসেম্বর ১৯৯৬। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  23. "ইসিবি: অনুভব"ইসিবি। ecb.int। 1 January 2011। সংগ্রহের তারিখ 09 November 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  24. "ECB: Look"ECB। ecb.int। ১ জানুয়ারি ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  25. "ইসিবি: অতিরিক্ত বৈশিষ্ট্য"ইসিবি। ecb.int। ১ জানুয়ারি ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  26. "ইসিবি: ইউরোপা সিরিজ"ইসিবি। ইসিবি। ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  27. "ECB: Circulation"ECB। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  28. "EuroBillTracker - About this site"Philippe Girolami, Anssi Johansson, Marko Schilde। EuroBillTracker। ১ জানুয়ারি ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  29. "ইউরো বিল ট্র্যাকার - পরিসংখ্যান"Philippe Girolami, Anssi Johansson, Marko Schilde। ইউরো বিল ট্র্যাকার। ১ জানুয়ারি ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা