প্রধান মেনু খুলুন

হ্যাকারস (ইংরেজি: Hackers), ১৯৯৫ সালে মুক্তি পাওয়া একটি আমেরিকান রহস্যচলচ্চিত্র। ছবিটির পরিচালক ছিলেন ইয়ান সফটলে, এবং শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেছেন, জনি লি মিলার, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, ও ম্যাথিউ লিলার্ড। চলচ্চিত্ররূপ দিয়েছেন ম্যাথিউ মোরু। ছবিটির কাহিনী গড়ে উঠেছে মূলত হ্যাকারসাইবার অপরাধীদের নিয়ে। ছবিতে দেখা যায়, কিছু স্কুল পড়ুয়া অসম্ভব প্রতিভাশালী হ্যাকার ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোতে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ ও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করছে।

হ্যাকারস
হ্যাকারস চলচ্চিত্রের ডিভিডি প্রচ্ছদ.jpg
পরিচালকইয়ান সফ্‌টলে
প্রযোজকমাইকেল পেইজার
রচয়িতারাফায়েল মোরু
শ্রেষ্ঠাংশেজনি লি মিলার
অ্যাঞ্জেলিনা জোলি
জেসি ব্র্যাডফোর্ড
ম্যাথিউ লিলার্ড
ফিশার স্টিভেন্স
রিনোলি স্যান্টিয়াগো
লরেন্স ম্যাসন
সুরকারসাইমন বোজওয়েল
চিত্রগ্রাহকঅ্যন্ডর্‌জেজ স্যাকুলা
পরিবেশকমেট্রো-গোল্ডউইন-মেয়ার
মুক্তি১৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৫ (যুক্তরাষ্ট্র)
দৈর্ঘ্য১০৭ মিনিট
দেশযুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজি

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

১৯৮৮ সালে সিয়াটলের কিশোর ডেড "জিরো কুল" মারফিকে (জনি লি মিলার) গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর অপরাধ ছিলো সে মাত্র একদিনে ১,৫০৭ টি সিস্টেম ক্র্যাশ করেছে, যার ফলে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক একবারেই ৭ পয়েন্ট নেমে গেছে। এ ঘটনাটি ঘটাবার সময় ডেডলির বয়স ছিলো মাত্র ১১। এবং তাঁকে শাস্তি স্বরূপ যেকোনো প্রকার কম্পিউটার ও টেলিফোন যন্ত্রাংশ ধরা ও পরিচালনা করার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

ডেডলির বয়স ১৮ হবার কিছুদিন আগে তাঁর মা (ততো দিনে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যাওয়া) নিউ ইয়র্ক সিটিতে কাজ নেন। ১৮ হবার পর ডেডলি একটি স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলে নিরাপত্তারক্ষীদের ফোন করে কৌশলে তাঁদের কাছ থেকে মডেমের ফোন নম্বর যোগাড় করে (সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কৌশল ব্যবহারের মাধ্যমে)। এরপর সে সফলতার সাথে ঐ টেলিভিশন নেটওয়ার্কের সিস্টেম হ্যাক করে এবং সেই সময় প্রচারিত হতে থাকা একটি অনুষ্ঠান পাল্টে দ্য আউটার লিমিটস-এর একটি পর্ব প্রচার করা শুরু করে। ঠিক সে সময় সে ঐ নেটওয়ার্কেই আরেক জন হ্যাকার দ্বারা আক্রান্ত হয়, এবং সিস্টেম থেকে অপসৃত হয়। ধারণা করা হয় সেই হ্যাকার হচ্ছে ছবির নায়িকা এসিড বার্ন (অ্যাঞ্জেলিনা জোলি)।

নির্মাণসম্পাদনা

চলচ্চিত্রের স্কুলের দৃশ্যগুলো নিউ ইয়র্কের মানহাটনের স্টুইভেসান্ট হাই স্কুল ও পাশ্ববর্তী এলাকায় ধারণ করা হয়েছে।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Stuyvesant High School Alumni Association, Inc. - SHS | Stuyvesant High School"। SHSAA। ২০০৬-০৫-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-২৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা