হরিপদ মহাজন ( ১৯১৩ - ১৯৪২) একজন বাঙালি সশস্ত্র বিপ্লবী ও চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুন্ঠনের অন্যতম সেনানী।

হরিপদ মহাজন
জন্ম
পরিচিতির কারণচট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুন্ঠন
আন্দোলনব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলন

বিপ্লবী কর্মকাণ্ড

সম্পাদনা

হরিপদ মহাজনের বাড়ি চট্টগ্রাম রাউজান উপজেলার বিনাজুড়ি গ্রামে। মাস্টারদা সূর্য সেনের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে চট্টগ্রাম যুববিদ্রোহে অংশ নেন তিনি। ১৮ এপ্রিল ১৯৩০, রাত ৯.৪৫ এ গণেশ ঘোষের সদরঘাটের বাড়ি থেকে খাকি পোষাকে তারা রওনা দেন চট্টগ্রাম অস্ত্রাগারে লুন্ঠনের উদ্দ্যেশ্যে। এই দলে ছিলেন ছয়জন বিপ্লবী। গণেশ ঘোষ, অনন্ত সিং, হিমাংশু সেন, সরোজ গুহ, হরিপদ মহাজন ও দেবপ্রসাদ গুপ্ত। এর চারদিন পর ২২ এপ্রিল জালালাবাদ পাহাড়ে ব্রিটিশ সেনার সাথে সম্মুখ যুদ্ধেও অংশ নিয়েছিলেন বিপ্লবী হরিপদ।[১][২]

মৃত্যু

সম্পাদনা

অস্ত্রাগার লুন্ঠন ও জালালাবাদ যুদ্ধের পর আটমাস আত্মগোপন করে থাকেন হরিপদ মহাজন ও হাঁটাপথে অমানুষিক কষ্ট করে আকিয়াব হয়ে বার্মাতে চলে যান। অনুমান করা হয় দুর্ঘটনায় মারা যান এই তরুন বিপ্লবী।[৩]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Reva Chatterjee (২০০০)। Netaji Subhas Bose: Bengal Revolution and Independence। Kolkata: Prabhat Prakashan। পৃষ্ঠা 20, 23। 
  2. Brigadier Samir Bhattacharya (২০১৩)। Nothing But। Patridge Publishing। পৃষ্ঠা 118। 
  3. প্রথম খন্ড, সুবোধচন্দ্র সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু (২০০২)। সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান। কলকাতা: সাহিত্য সংসদ। পৃষ্ঠা ৬১৯।