কোনও ইচ্ছেপূরণ না হলে বা কাজের আশানুরূপ ফল না পেলে যে মানসিক অবসাদের সৃষ্টি হয় তা হলো হতাশা।[১] লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব না হলে হাল ছেড়ে দেয়ার প্রবণতা-ই হতাশার লক্ষণ। হতাশা একটি মানবিক অনুভূতি যার মাত্রাতিরিক্ত উপস্থিতি কখনও মানসিক বিপর্যয় সৃষ্টি করে।

একজন হতাশ গাড়ি চালক ট্রাফিক জ্যামে বসে আছেন।

কারণসমূহসম্পাদনা

নির্যাতন: শারীরিক, যৌন, মানসিক৷

মৃত্যু/ক্ষতি: প্রিয়জনের মৃত্যু, আর্থিক ক্ষতি, চাকরি হারানো ৷

অসুখ: দুরারোগ্য কোনো রোগে আক্রান্ত হলে হতাশা ঝুকি বাড়ে ৷ সস্থুলতা[২], উচ্চ রক্ত চাপ, ডিয়াবেটিসের মত রোগও হতাশা বাড়ায় ৷

লিঙ্গ : পুরুষের তুলনায় নারী বেশি অবসাদে ভোগেন ৷

জিন: হতাশার পারিবারিক ইতিহাস ঝুকি বাড়ায় ৷ বিশেষ কিছু জিনের পরিবর্তন  হলেও হতাশা ঝুকি বাড়ে ৷

অন্যান্য : নুতন চাকরি শুরু করা, নুতন কোনো স্কুলে যাওয়া, বা শিক্ষা জীবন শেষ করা ৷ বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া বা বিবাহ বিচ্ছেদ ৷

লক্ষণসম্পাদনা

১। মেজাজ খিটখিটে ২।একজনের রাগ অন্যের উপর মেটানো ৩।মন খারাপ করে বসে থাকা ৪।উদাসীনতা ৫।কথা বলতে তাড়াহুড়ো

আরো দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ক্যাম্ব্রিজ ডিকশোনারি"। ৫ মার্চ ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০১৬ 
  2. Online, S. T. (২০২১-০৮-১৪)। "When Obesity Causes Depression | Science Trend" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৫