তরঙ্গ যখন কোন সরু রন্ধ্র (তরঙ্গদৈর্ঘের চেয়ে ছোট) এর মধ্য দিয়ে যায় তখন কিছুটা বেঁকে যায় এবং জ্যামিতিক ছায়া উৎপন্ন করে। তরঙ্গের এই ধর্ম অপবর্তন (Diffraction) নামে পরিচিত।

অপবর্তন

সরু রন্ধ্রে তরঙ্গের এই ধর্ম ব্যাখ্যা করার জন্য ক্রিস্টিয়ান হাইগেনস একটি নীতি প্রস্তাব করেন যা হাইগেনের নীতি নামে পরিচিত।

হাইগেনের নীতিসম্পাদনা

"প্রাথমিক তরঙ্গমুখের (wavefront) প্রতিটি বিন্দু এক একটি গৌণ গোলাকার ছোট তরঙ্গের(wavelets) উৎস এবং প্রতিটি প্রাথমিক তরঙ্গমুখ ঐ ছোট গোলাকার তরঙ্গগুলোর সমষ্টি। এই ছোট তরঙ্গগুলো প্রাথমিক তরঙ্গের সমান বেগ ও কম্পাঙ্ক নিয়ে অগ্রসর হয়।"

 
ওয়েবফ্রন্ট হলো তরঙ্গস্থিত কতগুলো বিন্দু যারা সমদশায় থাকে।

হাইগেনের নীতির ব্যখ্যাঃ[১]

 
চিত্র-০১

সাধারনত আলো সরল পথে চলে এবং আলোর একটি ছোট অংশ পর্দার D (চিত্র-০১) তে দৃশ্যমান হয়। যদি রন্ধ্রটি আরো সরু (তরঙ্গদৈর্ঘের চেয়ে ছোট) হয় তাহলে আলো কিছুটা ছড়িয়ে যায়।

পর্দাটি সরিয়ে একটি ফটোগ্রাফিক প্লেট স্থাপন করা হলে চিত্র-০১ এর মতো চিত্র পাওয়া যায়। ফটোগ্রাফিক প্লেটের ছবিটি সবচেয়ে বেশি প্রগাড় হবে সোজা মধ্যবিন্দু D তে। কোণ যতই বৃদ্ধি পাবে ততই এর প্রগাড়তা কমতে থাকে, যেমন - C ও E বিন্দু।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Fundamentals of Oticsআইএসবিএন 0-07-085346-0