স্থানাঙ্ক ব্যবস্থা

জ্যামিতিতে, একটি স্থানাঙ্ক ব্যবস্থা হচ্ছে এমন একটি ব্যবস্থা যেখানে এক বা একাধিক সংখ্যা, অথবা স্থানাঙ্ক ব্যবহার করে ইউক্লিডীয় স্পেসে একটি বিন্দু অথবা অন্য জ্যামিতিক উপাদানের অনন্য অবস্থান নির্ণয় করা হয়। [১][২] স্থানাঙ্ক ক্রম অত্যন্ত তাত্পর্যপূর্ণ এবং কখনও কখনও এদেরকে একটি ক্রমিক সেটের তালিকায় এদের অবস্থানের মাধ্যমে আবার কখনও একটি অক্ষরের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়, যেমন "x-স্থানাঙ্ক"। সাধারণ গণিতে স্থানাঙ্ক হিসেবে সাধারণত বাস্তব সংখ্যা ব্যবহৃত হয়, কিন্তু জটিল সংখ্যা ও হতে পারে একটি অধিকতর বিমূর্ত ব্যবস্থার উপাদান যেমন বিনিময় চক্রের ক্ষেত্রে। একটি স্থানাঙ্ক ব্যবস্থা ব্যবহার করে জ্যামিতিক সমস্যাগুলোকে গাণিতিক সমস্যায়,একইভাবে গাণিতিক সমস্যাগুলোকে জ্যামিতিক সমস্যায় রূপান্তর করা যায়,এটা বৈশ্লেষিক জ্যামিতির ভিত্তি।[৩]

গোলকীয় স্থানাঙ্ক ব্যবস্থা সাধারণত পদার্থ বিজ্ঞানে ব্যবহৃত হয়। এটি ইউক্লিডীয় স্পেসে প্রতিটি বিন্দুর জন্য তিনটি সংখ্যা নির্ধারণ করে(যেগুলো স্থানাঙ্ক হিসেবে পরিচিত) :ব্যাসার্ধ r, পোলার কোণ θ (থেটা) এবং দিগ্বলয়ী কোণ φ (পাই)। ρ (রো) প্রায়ই r এর পরিবর্তে ব্যবহৃত হয়।

সাধারণ স্থানাঙ্ক ব্যবস্থা

সম্পাদনা

জ্যামিতিক বস্তুর স্থানাঙ্ক

সম্পাদনা

রূপান্তর

সম্পাদনা

স্থানাঙ্ক রেখা\বক্র রেখা এবং তল\পৃষ্ঠতল

সম্পাদনা

স্থানাঙ্ক নকশা

সম্পাদনা

পারিপার্শ্বিক স্থানাঙ্ক

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা