স্টার সিনেপ্লেক্স

স্টার সিনেপ্লেক্স বাংলাদেশের আধুনিকতম চলচ্চিত্র হল। অত্যাধুনিক সুবিধা সংবলিত এই হলটি দর্শকদের নিকট খুবই প্রিয়। এটি ঢাকার বসুন্ধরা অবস্থিত।

প্রতিষ্ঠা ও অবস্থানসম্পাদনা

এই চলচ্চিত্র হল প্রতিষ্ঠিত হয় ৮ অক্টোবর, ২০০২ সালে[১]। লেভেল ৮, বসুন্ধরা সিটি, ১৩/৩ ক, পান্থপথ, তেজগাঁও, ঢাকা ১২০৫। এটি বসুন্ধরা গ্রুপের অধীনে বসুন্ধরা সিটিতে অবস্থিত।

কার্যক্রমসম্পাদনা

টিকিটসম্পাদনা

চলচ্চিত্র হলে রয়েছে সর্বমোট ৪টি টিকেট কাউন্টার। ৯ম তলায় সিনেপ্লেক্স-এ ঢোকার সময় হাতের বাম দিকে কাউন্টারগুলো অবস্থিত। হলে দর্শক আসনের মোট ২টি শ্রেণী রয়েছে। শ্রেণীগুলো হলো- প্রিমিয়াম ও দৈনিক।

প্রদর্শনীর সময়সম্পাদনা

সকাল ,ম্যাটিনী ১, ম্যাটিনী ২, সন্ধ্যা ১, এবং সন্ধ্যা ২ - এই মোট পাঁচ বেলা ছবি প্রদর্শন করা হয়। প্রতি সপ্তাহে চলচ্চিত্রের সময়সূচী পরিবর্তিত হয়।

প্রদর্শনী কক্ষ ও ধারণ ক্ষমতাসম্পাদনা

মোট প্রদর্শনী কক্ষ রয়েছে ৪টি, যেগুলোর প্রত্যেকটির ধারন ক্ষমতা ২৬২ জন।

প্রদর্শিত চলচ্চিত্রর ধরনসম্পাদনা

বাংলাদেশের মুক্তিপ্রাপ্ত আলোচিত চলচ্চিত্র এবং হলিউডের আলোচিত চলচ্চিত্র দর্শকদের জন্য প্রদর্শন করা হয়।

অন্যান্য সুবিধাসম্পাদনা

ওয়েটিং রুমসম্পাদনা

এখানে নারী ও পুরুষদের জন্য একই ওয়েটিং রুম রয়েছে।

ফুড কর্নারসম্পাদনা

ফুড কর্নারে পপকর্ন, চিকেন পপকর্ন, সফট ড্রিংকস ইত্যাদি রয়েছে।

টয়লেট ব্যবস্থা

টয়লেটের অবস্থা খুবই ভালো। এখানে নারী ও পুরুষের জন্য আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে নারী ও পুরুষের জন্য ১টি করে টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে। সিনেপ্লেক্সের ভিতরে ডান দিকে নারীদের জন্য এবং বাম দিকে পুরুষের জন্য টয়লেট রয়েছে।

গাড়ি পার্কিংসম্পাদনা

বসুন্ধরা সিটির নিচে গাড়ি পার্কিং করা যায়। এখানে মোটরসাইকেল, প্রাইভেট কার পার্কের জন্য চার্জ দিতে হয়।

নিরাপত্তা ব্যবস্থাসম্পাদনা

এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা খুবই জোরালো। প্রতি তলায় টয়লেটের সাথে ফায়ার এক্সিটের ব্যবস্থা এবং সিনেপ্লেক্সের প্রতিটি হলের জন্য আলাদা ফায়ার এক্সিটের ব্যবস্থা রয়েছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "১৫ বছর পূর্তিতে স্টার সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখা"Bhorer Kagoj। ২০১৯-১০-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫