স্কটল্যান্ড জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল

স্কটল্যান্ড জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে মহিলাদের ক্রিকেটে স্কটল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করছে। দলটি ওয়াইল্ডক্যাটস ডাকনামে পরিচিতি। ক্রিকেট স্কটল্যান্ড কর্তৃক এটি পরিচালিত হয়। এছাড়াও, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সহযোগী সদস্যের মর্যাদা লাভ করেছে এ দলটি।

স্কটল্যান্ড জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল
Flag of Scotland.svg
ডাকনামওয়াইল্ডক্যাটস
সংঘক্রিকেট স্কটল্যান্ড
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
আইসিসি মর্যাদাসহযোগী (১৯৯৪)
আইসিসি অঞ্চলইউরোপ
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট
প্রথম আন্তর্জাতিকস্কটল্যান্ড স্কটল্যান্ডইংল্যান্ড 
(ওরচেস্টার; ২৯ আগস্ট, ১৯৩২)
একদিনের আন্তর্জাতিক
প্রথম ওডিআইস্কটল্যান্ড স্কটল্যান্ডইংল্যান্ড 
(রিডিং; ১০ আগস্ট, ২০০১)
বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব উপস্থিতি২ (২০০৩ সালে সর্বপ্রথম)
সেরা ফলাফল৫ম (২০০৩)
৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ অনুযায়ী

ইতিহাসসম্পাদনা

আগস্ট, ১৯৩২ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো মহিলাদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণ করে স্কটল্যান্ড দল। ওরচেস্টারের নিউ রোডে অনুষ্ঠিত ঐ খেলাটিই তাদের প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা ছিল। উদ্বোধনী ঐ খেলার চার সদস্য বেটি স্নোবল, মার্টল ম্যাকলাগান, জয় লিবার্টবেটি আর্কডেল পরবর্তীতে ইংল্যান্ডের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।[২] ১৯৩২ সালের পর ১৯৭৯ সালে পূর্ব পর্যন্ত আর খেলেনি। ১৯৭৯ সালে ওরচেস্টারশায়ারের মলভার্ন কলেজে জুনিয়র ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে অংশ নেয়।[৩] ২০শ শতকের বাদ-বাকী সময়ে দলটি মাঝে-মধ্যে খেলতে থাকে। ২০০০ সাল থেকে নিয়মিতভাবে প্রতিযোগিতায় অংশ করে আসছে দলটি।

২০০১ সালের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপের ন্যায় প্রথম আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় স্কটল্যান্ডের অভিষেক ঘটে। ঐ প্রতিযোগিতার খেলাগুলো একদিনের আন্তর্জাতিকের (ওডিআই) মর্যাদা লাভ করে। তিন খেলার সবকটিতেই পরাজিত হয় দলটি ও চার দলের ঐ প্রতিযোগিতায় তারা সর্বশেষ স্থান দখল করে।

২০০৫ সালের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপে তারা পুনরায় খেলে। এবার তারা কোন জয় পায়নি ও সর্বশেষ স্থান দখল করে। ২০০৭ সালে আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত মহিলাদের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অংশ নেয়।

দলের একমাত্র অন্য ওডিআইটি হচ্ছে ২০০৩ সালে নেদারল্যান্ডসে অনুষ্ঠিত আইডব্লিউসিসি ট্রফিতে। এ ট্রফিটি ২০০৫ সালের বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের খেলা ছিল। নেদারল্যান্ডসে অনুষ্ঠিত ঐ প্রতিযোগিতাটি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের উদ্বোধনী আসর ছিল। ছয় দলকে নিয়ে ঐ প্রতিযোগিতায় তারা পঞ্চম স্থান দখল করে। কেবলমাত্র জাপানের বিপক্ষে তারা জয়ী হয়েছিল।

আঞ্চলিক প্রতিযোগিতার বাইরে স্কটল্যান্ড দুইটি বড় ধরনের প্রতিযোগিতা ২০০৮ সালের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব ও ২০১৫ সালের বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্বে খেলার যোগ্যতা লাভ করে।

২০১৪ সালে স্কটল্যান্ড মহিলাদের কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের দ্বিতীয় বিভাগে খেলার সুযোগ পায়। পুরো মৌসুমে দলটি কেবলমাত্র একটি খেলায় পরাজিত হয়েছিল।[৪] ২০১৫ সালের শেষদিকে ওয়াইল্ডক্যাটস থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসি মহিলা বিশ্ব টুয়েন্টি২০ বাছাইপর্বে অংশ নেয়।[৫]

দলীয় সদস্যসম্পাদনা

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ২০১৭ সালের মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে ঘোষিত স্কটল্যান্ড মহিলা দলের সদস্যদের তালিকা নিম্নরূপ:[৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "New Women’s Head Coach Steve Knox will be looking forward to seeing the best players in action" – Cricket Scotland. Retrieved Aprilv 18, 2016.
  2. England Women v Scotland Women, Scotland Women in England 1932 – CricketArchive. Retrieved 26 November 2015.
  3. Other women's matches played by Scotland Women ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৯ মার্চ ২০১৬ তারিখে – CricketArchive. Retrieved 26 November 2015.
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৯ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  5. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৯ মে ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  6. "Scotland Women's squad named for ICC Global Qualifier"Cricket Scotland। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০১৭