সুনীল জয়াসিংহে

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার

সুনীল অশোক জয়াসিংহে (সিংহলি: සුනිල් ජයසිංහ; জন্ম: ১৫ জুলাই, ১৯৫৫ - মৃত্যু: ২০ এপ্রিল, ১৯৯৫) মাতুগামায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন।[১][২] শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৭৯ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে শ্রীলঙ্কার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন করতেন সুনীল জয়াসিংহে

সুনীল জয়াসিংহে
සුනිල් ජයසිංහ
সুনীল জয়াসিংহে.jpeg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামসুনীল অশোক জয়াসিংহে
জন্ম(১৯৫৫-০৭-১৫)১৫ জুলাই ১৯৫৫
মাতুগামা, শ্রীলঙ্কা
মৃত্যু২০ এপ্রিল ১৯৯৫(1995-04-20) (বয়স ৩৯)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৬)
৯ জুন ১৯৭৯ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই১৬ জুন ১৯৭৯ বনাম ভারত
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ১৮৩
ব্যাটিং গড় ১.০০ ৩০.৫০
১০০/৫০ ০/০ ০/২
সর্বোচ্চ রান ৬৪
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ১০/৪
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২০ জুন ২০১৯

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৭৯ সালে ব্রিটিশ উপনিবেশে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলাগুলোয় অংশ নিয়েছেন তিনি। কলম্বোর নালন্দা কলেজে পড়াশোনা করেছিলেন সুনীল জয়াসিংহে। ১৯৭৪ সালে কলেজের প্রথম একাদশ দলের নেতৃত্ব ছিলেন তিনি। বেশ কয়েকবছর ব্লুমফিল্ড ক্রিকেট ক্লাবের পক্ষে খেলেন। ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে লাকস্প্রে ট্রফিতে কলম্বো ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে ২৮৩ রানের পর্বতসম ইনিংস খেলেন। তবে, এ প্রতিযোগিতাটি ১৯৮৮-৮৯ মৌসুম থেকে প্রথম-শ্রেণীর মর্যাদাপ্রাপ্ত হয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছিলেন সুনীল জয়াসিংহে। ৯ জুন, ১৯৭৯ তারিখে নটিংহামে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআই অভিষেক হয় তার। পরবর্তী ও সর্বশেষ ওডিআই হিসেবে ১৬ জুন, ১৯৭৯ তারিখে ম্যানচেস্টারে ভারতের বিপক্ষে খেলেছিলেন। উভয় ওডিআইই ১৯৭৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ক্রিকেট বিশ্বকাপের দ্বিতীয় আসর ছিল।

২০ এপ্রিল, ১৯৯৫ তারিখে মাত্র ৩৯ বছর বয়সে আত্মহননের পথে ধাবিত হন সুনীল জয়াসিংহে।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Players / Sri Lanka / ODI caps"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  2. "Sri Lanka ODI Batting Averages"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  3. Lester, David; Gunn, John F (২০১৩)। Suicide in Professional and Amateur Athletics। Charles C Thomas Publisher। 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা