সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়

সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সিরাজগঞ্জ পৌরসভায় অবস্থিত একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ১৯৩৭ সালে প্রতিষ্ঠিত এই সরকারি বিদ্যলয়টি সিরাজগঞ্জ জেলায় নারী শিক্ষার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে ১৫৬৬ জন ছাত্রী অধ্যয়নরত আছে, কর্মরত আছেন ৫৩ জন শিক্ষক। প্রতিষ্ঠানটি রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের নিয়ন্ত্রণাধীন।

সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের লোগো.png
অবস্থান
সদর হাসপাতাল সড়ক, সিরাজগঞ্জ

,
৬৭০০

স্থানাঙ্ক২৪°২৭′৩৩″ উত্তর ৮৯°৪২′৩৭″ পূর্ব / ২৪.৪৫৯১৭° উত্তর ৮৯.৭১০২৮° পূর্ব / 24.45917; 89.71028
তথ্য
ধরনসরকারি উচ্চ বিদ্যালয়
নীতিবাক্যশিক্ষাই আলো
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৩৭; ৮৫ বছর আগে (1937)
প্রতিষ্ঠাতাগণসৈয়দ মুহাম্মাদ ইসহাক ও সালেহা বেগম
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহী
বিদ্যালয় কোড১২৮৩৭৪
ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকমোঃ আফছার আলী
শিক্ষকমণ্ডলী৫৩ জন
শ্রেণীতৃতীয় – দশম
লিঙ্গবালিকা
ভর্তি১৫৬৬ জন
ভাষার মাধ্যমবাংলা
ক্যাম্পাসের ধরনশহুরে
ওয়েবসাইট

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৩৭ সালে সিরাজগঞ্জের মহকুমা প্রশাসক (এসডিও) হাফিজ সৈয়দ মুহাম্মাদ ইসহাক ও তার স্ত্রী সালেহা বেগমের উদ্যোগে সিরাজগঞ্জে মেয়েদের জন্য একটি স্বতন্ত্র বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়, যার নামকরণ করা হয় সালেহা ইসহাক গার্লস হাই ইংলিশ স্কুল। বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠায় মেসার্স চন্দ্র আনন্দ মোহন, ধুপিলের জমিদার, ইন্দুবালা চৌধুরানী, খান সাহেব মৌলভী মিজানুর রহমান, বাবু কালীদাস চৌধুরী, মৌলভী ইউসুফ উদ্দিন তালুকদার, খেদন রাও, সালিয়া নারায়ন প্রসাদ ও হাজী আহম্মেদ আলী প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ আর্থিকভাবে সাহায্য করেন।[১] ১৯৬৭ সালে বিদ্যালয়টি সরকারিকরণ করা হয়।[২]

অবকাঠামোসম্পাদনা

প্রায় সাড়ে চার একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত এই স্কুলটিতে বর্তমানে তিনটি ভবন আছে। এসব ভবনের মোট ২৫টি শ্রেণিকক্ষে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালিত হয়।[৩] বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনটি অনেকটা মুঘল স্থাপত্যরীতিতে নির্মিত। দ্বিতল এই ভবনটি ১৯৩৭ সালে নির্মাণ করা হয়।[২] পরবর্তীতে স্কুলটিতে ছাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে একটি তিন তলা ভবন নির্মাণ করা হয়।

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে স্কুলটিতে ২০১৯ সালে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়।[৪] পূর্বে স্কুল প্রাঙ্গনে একটি পুকুর ছিল,[৫] যা সম্প্রতি ভরাট করে ফেলা হয়েছে।

শিক্ষা কার্যক্রমসম্পাদনা

স্কুলটিতে তৃতীয় থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত অধ্যয়নের ব্যবস্থা রয়েছে। নবম ও দশম শ্রেণীতে বিজ্ঞানব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ চালু আছে। প্রতিষ্ঠানটি দুই শিফটে পরিচালিত হয়: প্রভাতী এবং দিবা। তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত প্রতি শিফটে একটি করে এবং ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রতি শিফটে দুটি করে শাখা রয়েছে। এখানে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড প্রণীত পাঠ্যক্রম অনুযায়ী পাঠ দান করা হয়।

বিদ্যালয়টিতে একজন প্রধান শিক্ষক ও দুই জন সহকারী প্রধান শিক্ষক সহ মোট শিক্ষকের পদ রয়েছে ৫৩টি। এর মধ্যে প্রধান শিক্ষকের পদটি শূন্য থাকায় সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ আফছার আলী ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছেন।[৬] এছাড়া প্রশাসনিক কাজে সহায়তা এবং বিদ্যালয়ের রক্ষণাবক্ষেণের জন্য রয়েছেন তিনজন কর্মচারী।[৭]

প্রতিষ্ঠানটিতে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়।[৮] বর্তমানে এ বিদ্যালয়ে ১৫৬৬ জন ছাত্রী অধ্যায়নরত আছে (২০২০ সাল-এর হিসাব অনুযায়ী)। এর মধ্যে অধিকাংশই বাঙালি মুসলমান[৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "সিরাজগঞ্জের সালেহা ইসহাক গার্লসে নানা আয়োজন"banglanews24.com। নভেম্বর ১১, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১২ 
  2. "শত বছরের সালেহা ইসহাক সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নেই"দৈনিক ইত্তেফাক। ২০১৭-০৩-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১২ 
  3. "এক নজরে বিদ্যালয়ের পরিচিতি"সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  4. "৬৭ বছরেও শহীদ মিনার তৈরি হয়নি সিরাজগঞ্জের কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  5. "নানা সমস্যায় সিরাজগঞ্জের সালেহা ইসহাক বিদ্যালয়"দৈনিক ইত্তেফাক। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  6. "কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকা"সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। ২০১৯-১২-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  7. "কর্মরত কর্মচারী"সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  8. "তদবিরের চাপে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন দুই প্রধান শিক্ষক"বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩ 
  9. সালেহা ইসহাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় http://www.sigghs.edu.bd/student_at_a_glance। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩  অজানা প্যারামিটার |1= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)

বহিঃসংযোগসম্পাদনা