সবুজ বালিহাঁস

পাখির প্রজাতি

সবুজ বালিহাঁস (বৈজ্ঞানিক নাম: Nettapus pulchellus) (ইংরেজি: Cotton Pygmy Goose) Anatidae (অ্যানাটিডি) গোত্র বা পরিবারের অন্তর্গত Nettapus (নেট্টাপাস) গণের এক প্রজাতির অতি পরিচিত ছোট আকারের হাঁস। পাখিটি উত্তর অস্ট্রেলিয়া ও তার আশেপাশের অঞ্চলে দেখা যায়। সবুজ বালিহাঁসের বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ শোরগোল করা সুন্দরী হাঁস (গ্রিক netta = হাঁস, ops = ডাকাডাকি; ল্যাটিন pulcher = সুন্দর)।[১] সারা পৃথিবীতে এক বিশাল এলাকা জুড়ে এদের আবাস, প্রায় ১৯ লাখ বর্গ কিলোমিটার।[২] বিগত কয়েক দশক ধরে এদের সংখ্যা স্থিতিশীল রয়েছে, বাড়েনি আবার আশঙ্কাজনক হারে কমেও যায়নি। সেকারণে আই. ইউ. সি. এন. এই প্রজাতিটিকে Least Concern বা ন্যূনতম বিপদগ্রস্ত বলে ঘোষণা করেছে।[৩]

সবুজ বালিহাঁস
Nettapus pulchellus
Green Pygmy Goose RWD.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: পক্ষী
বর্গ: Anseriformes
পরিবার: Anatidae
গণ: Nettapus
প্রজাতি: N. pulchellus
দ্বিপদী নাম
Nettapus pulchellus
Gould, 1842

বিস্তৃতিসম্পাদনা

সবুজ বালিহাঁস উত্তর অস্ট্রেলিয়া, ইন্দোনেশিয়া, পূর্ব তিমুরপাপুয়া নিউগিনির স্থানীয় পাখি।[৩]

দৈহিক বিবরণ ও স্বভাবসম্পাদনা

 
অপ্রাপ্তবয়স্ক সবুজ বালিহাঁস
 
পুরুষ সবুজ বালিহাঁস, সাথে একজোড়া ধলা বালিহাঁস। ১৯২২ সালে অঙ্কিত চিত্র

সবুজ বালিহাঁস বেশ ছোট আকারের হাঁস। এর দৈর্ঘ্য ৩০ থেকে ৩৬ সেন্টিমিটার। ডানার বিস্তৃতি ৪৮ থেকে ৬০ সেন্টিমিটার। ঠোঁট সূঁচালো ও ছোট। পুরুষ হাঁসের প্রজননকালীন চেহারা একরকম, প্রজনন পরবর্তী চেহারা আরেক রকম। প্রজননকালীন পুরুষ হাঁসের পিঠ উজ্জ্বল গাঢ় সবুজ। ঘাড় ও চাঁদিও সবুজ। গাল সাদাটে। দেহতল সাদা, তবে আঁশের মত কালো রেখাযুক্ত। ডানার প্রাথমিক উড্ডয়ন-পালকডানা-ঢাকনি কালো, তবে মাধ্যমিক পালকগুলো কালচে-সবুজ। প্রজনন পরবর্তীকালে এ উজ্জ্বলতা থাকে না। ঠোঁট এমনিতে গাঢ় বাদামি, তবে ঠোঁটের দু'পাশ ও ডগা গোলাপি। পা সবজে-ধূসর। স্ত্রী হাঁসের ঘাড় সবুজ নয়। আর বাকিসব পুরুষ হাঁসের মত। অপ্রাপ্তবয়স্ক হাঁসের দেহ পুরুষ হাঁসের মতোই, কেবল চাঁদি বাদামি ও দেহের বর্ণ অনুজ্জ্বল।[৪]

সবুজ বালিহাঁস জলজ উদ্ভিদবহুল হ্রদ, বড় পুকুর ও অগভীর লেগুনে বিচরণ করে। সাধারণত ৫-১৫টি হাঁসের ছোট দলে দেখা যায়। তবে কখনও কখনও একই জায়গায় সারা বছর এক জোড়া হাঁসের দেখা মেলে। তার কারণ এরা সে জায়গার স্থান-কেন্দ্রিক প্রাণী।[৪] যে এলাকায় এরা থাকে সেখানকার জলাভূমি থেকে খাবার সংগ্রহ করে এবং পরিচিত একটি বা দু'টি গাছের খোঁড়লে বছরের পর বছর বাসা করে। ৮ থেকে ১২টি ডিম পাড়ে। ২৬ দিন পর ডিম ফুটে ছানা বের হয়।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Simpson DP (১৯৭৯)। Cassell's Latin Dictionary (5 সংস্করণ)। London: Cassell Ltd.। আইএসবিএন 0-304-52257-0 
  2. Nettapus pulchellus, BirdLife International এ সবুজ বালিহাঁস বিষয়ক পাতা।
  3. Nettapus pulchellus ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৪ নভেম্বর ২০১২ তারিখে, The IUCN Red List of Threatened Species এ সবুজ বালিহাঁস বিষয়ক পাতা।
  4. Ogilvie, Malcolm Alexander (২০০৩)। Wildfowl of the world। Sydney, NSW: New Holland Publishers। পৃষ্ঠা 72। আইএসবিএন 1-84330-328-0  অজানা প্যারামিটার |coauthors= উপেক্ষা করা হয়েছে (|author= ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে) (সাহায্য)
  5. "Green Pygmy Goose"Perth Zoo website। South Perth, WA: Perth Zoo। ১৮ মার্চ ২০০৯। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা