সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়

ভারতীয় গায়িকা

গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় (এছাড়াও সন্ধ্যা মুখার্জী (৪ অক্টোবর ১৯৩১- ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২) একজন ভারতীয় নেপথ্য গায়িকা এবং সংগীতশিল্পী, বাংলা সঙ্গীত বিশেষজ্ঞ। কলকাতায় জন্মগ্রহণকারী, তিনি ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান বঙ্গবিভূষণ পান [১] এবং ১৯৭০ সালে জয় জয়ন্তী এবং নিশিপদ্ম চলচ্চিত্রে তার গানের জন্য সেরা নেপথ্য গায়িকার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।[২]

গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
Sandhya Mukherjee and Nupurchhanda.jpg
সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় (ডাইনে) ও নুপুরছন্দা ঘোষ (বাঁয়ে)
প্রাথমিক তথ্য
স্থানীয় নামসন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
জন্ম নামসন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
জন্ম৪ অক্টোবর ১৯৩১
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
মৃত্যু১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২
ধরনবাংলা এবং হিন্দী চলচ্চিত্রের নেপথ্য গায়িকা
পেশাগায়িকা/সুরকার

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় কলকাতার ঢাকুরিয়াতে ৪ অক্টোবর ১৯৩১ সালে রেলের কর্মকর্তা নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় এবং হেমপ্রভা দেবীর ঔরসে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছয় সন্তানের মধ্যে সবচেয়ে ছোট ছিলেন। তার পিতামহ একজন পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন এবং পরিবারটি ১৯১১ সাল থেকে ঢাকুরিয়াতে বসবাস করতেন।[৩]

প্রশিক্ষণ এবং কর্মজীবনসম্পাদনা

পণ্ডিত সন্তোষ কুমার বসু, অধ্যাপক এ টি ক্যানন এবং অধ্যাপক চিন্ময় লাহিড়ীর নিকট তিনি সঙ্গীতের প্রশিক্ষণ নেন। তবে তার গুরু ছিলেন উস্তাদ বড়ে গুলাম আলী খান , তার পুত্র উস্তাদ মুনাওয়ার আলী খান, যার অধীনে তিনি ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীত আয়ত্ত করেছিলেন।[৪] তিনি ১৯৪৬ সালে "গীতশ্রী" পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেন। মনোরমা শর্মা বলেন, " নেপথ্য গানের উজ্জ্বল গৌরব অর্জনের পরেও একজন শাস্ত্রীয় গায়ক হিসাবে সন্ধ্যা, তার জনপ্রিয়তা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছেন।"[৪]

যদিও তিনি শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে প্রশিক্ষিত, তবুও তার বেশিরভাগ কাজ বাংলা আধুনিক গানে। ১৯৫০ সালে তারানা চলচ্চিত্রে একটি গান দিয়ে তিনি মুম্বাইতে হিন্দি গান গাওয়া শুরু করেন। তিনি ১৭টি হিন্দি চলচ্চিত্রে নেপথ্য গায়িকা হিসেবে গান গেয়েছিলেন। ব্যক্তিগত কারণে ১৯৫২ সালে তিনি তার কলকাতা শহরের বাড়িতে ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন। ১৯৬৬ সালে তিনি বাঙালী কবি শ্যামল গুপ্তকে বিয়ে করেন। শ্যামল তার অনেক গানের জন্য কথা লিখে দিয়েছিলেন।

তার সবচেয়ে জনপ্রিয় জুটি ছিল হেমন্ত মুখার্জীর সাথে, যার সাথে প্রাথমিকভাবে বাঙালি চলচ্চিত্রগুলির জন্য নেপথ্য গায়িকা হিসাবে তিনি বেশ কয়েকটি গান গেয়েছিলেন। হেমন্ত ও সন্ধ্যা বাংলার মহানায়ক উত্তম কুমার এবং তার অসংখ্য নায়িকা জোড়াগুলির নেপথ্য কণ্ঠস্বর হিসাবে পরিচিত হয়ে উঠেছিলেন, বিশেষত অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের কণ্ঠে। হেমন্ত মুখার্জির রচনা ছাড়াও রবিন চট্টোপাধ্যায়নচিকেতা ঘোষের সঙ্গে তিনি অনেক কাজ করেন। সঙ্গীতাঙ্গনে তিনি “গীতশ্রী” নামে পরিচিত ছিলেন।[৫]

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে, যুদ্ধের হাত থেকে বাঁচতে কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গে আগত লক্ষ লক্ষ উদ্বাস্তুদের জন্য তিনি ভারতীয় বাঙালি শিল্পীদের সঙ্গে গণ আন্দোলনে যোগ দেন এবং তাদের জন্য অর্থ সংগ্রহ করেন। বাংলাদেশের জন্য বিশ্বব্যাপী সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করেন। তিনি বাংলাদেশী সংগীতশিল্পী সমর দাস যিনি বাংলাদেশে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র স্থাপন করেছিলেন তার সাহায্যার্থে বিভিন্ন দেশাত্মবোধক গান রেকর্ড করেন। কারাগারে বন্দী নতুন বাংলাদেশের নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তির উপলক্ষে তার গাওয়া 'বঙ্গবন্ধু তুমি ফিরে এলে' গানটি মুক্তি পায়। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর, প্রথম একুশে ফেব্রুয়ারির উদ্‌যাপন উপলক্ষে ঢাকায় পল্টন ময়দানের একটি উন্মুক্ত কনসার্টে অনুষ্ঠান করা তিনি অন্যতম প্রথম বিদেশি শিল্পী।

পুরস্কারসম্পাদনা

১৯৭১ সালে 'জয় জয়ন্তী' এবং 'নিশিপদ্ম' ছবিতে গান গেয়ে শ্রেষ্ঠ গায়িকা হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। গান দুটি হল - আমাদের ছুটি ছুটি এবং ওরে সকল সোনা মলিন হল। এছাড়াও ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে 'বঙ্গবিভূষণ' উপাধিতে সম্মানিত করে। ২০২২ সালের জানুয়ারি মাসে পদ্মশ্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়। তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।[৬]

মৃত্যুসম্পাদনা

২০২২ সালের ২৭ জানুয়ারী, সন্ধ্যা মুখার্জীকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং পরে কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় তাকে অ্যাপোলো গ্লেনিগেলস হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।[৭] তার ফুসফুসের সংক্রমণ, হাইপোটেনশন, ইস্কেমিক হার্ট ডিজিজ, মাল্টি অর্গান ডিসফাংশন এবং তার বাম ফেমারে একটি ফ্র্যাকচার ছিল।[৮][৯] তিনি তার চিকিৎসায় উন্নতি দেখাচ্ছিলেন, কোভিড-১৯ নেতিবাচক হয়েছিলেন এবং ১১ ফেব্রুয়ারি তার একটি সফল ফেমোরাল সার্জারি হয়েছিল।[১০] ১৫ ফেব্রুয়ারি সকালে, তাকে হঠাৎ তীব্র পেটে ব্যথা এবং হাইপোটেনশনের জন্য নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল,[১১] এরপরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হওয়ার পরে একই দিন সন্ধ্যা ৭:৩০-এ তিনি মারা যান।[১২][১৩] হাসপাতালের একজন নার্স জানিয়েছেন যে মান্না দে-এর একটি জনপ্রিয় বাংলা গান, যার সাথে তিনি অসংখ্য ডুয়েট গেয়েছিলেন "এই শহর থেকে আর এক দূর" শোনার সময় তার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে গিয়েছিলন।[১৪] কেওড়াতলা মহাশ্মশানের বৈদ্যুতিক চিতায় পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে দাহ করা হয়েছিল।[১৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "State honours nine with Banga-Vibhushan"। ২০১২-১১-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-১৫ 
  2. "18th National Film Awards" (PDF)Directorate of Film Festivals। সংগ্রহের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  3. Saleheen, Mesbah-us- (৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "A singer with a transparent voice"The daily oberver। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৭ 
  4. Sharma, Manorma (২০০৬)। Tradition of Hindustani Music। APH Publishing House। পৃষ্ঠা 119–120। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১৭ 
  5. "Sandhya Mukherjee Was Called Gitashree Know The Story - কেন 'গীতশ্রী' তকমা দেওয়া হয়েছিল সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে? জানুন নেপথ্য কাহিনী"EI Samay। ১ জানুয়ারি ১৯৭০। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মে ২০২২ 
  6. তাচ্ছিল্যের সঙ্গে পদ্মশ্রী সম্মানের প্রস্তাব, প্রত্যাখ্যান সন্ধ্যার, প্রথম আলো, ২৬ জানুয়ারি ২০২২
  7. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "Mamata meets Sandhya: কোভিড আক্রান্ত সন্ধ্যা, সরানো হচ্ছে বাইপাসের ধারে বেসরকারি হাসপাতালে: মমতা"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  8. Jan 29, TNN /; 2022; Ist, 03:57। "Sandhya Mukhopadhyay Critical But Stable: Hosp | Kolkata News - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  9. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "Sandhya Mukhopadhyay: গুরুতর অসুস্থ সন্ধ্যার চিকিৎসায় পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড, করানো হল একাধিক পরীক্ষাও"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  10. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "Sandhya Mukhopadhyay: সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের বাঁ পায়ে সফল অস্ত্রোপচার, শারীরিক অবস্থাও স্থিতিশীল"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  11. "সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার অবনতি, রয়েছেন ICU-তে ভেসোপ্রেসার সাপোর্টে"Hindustantimes Bangla। ২০২২-০২-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  12. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "Sandhya Mukhopadhyay Death: প্রয়াত গীতশ্রী সন্ধ্যা, পাতায় পাতায় রামধনু রং ছড়িয়ে সাদাকালো ফ্রেমে গানের প্রজাপতি"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  13. "Veteran singer Sandhya Mukhopadhyay passes away - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  14. ঘোষ, শান্তনু। "Sandhya Mukhopadhyay Death: হাসপাতালে গানে গানেই কেটেছিল শেষ কয়েক ঘণ্টা"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭ 
  15. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "Sandhya Mukhopadhyay Funeral: সন্ধ্যা-প্রদীপ নিভেছিল মঙ্গলেই, বুধ সন্ধ্যায় চিরতরে বিলীন তাঁর নশ্বর দেহ"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৭