সখিপুর উপজেলা

টাঙ্গাইল জেলার একটি উপজেলা

সখিপুর উপজেলা বাংলাদেশের টাঙ্গাইল জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

সখিপুর
উপজেলা
সখিপুর ঢাকা বিভাগ-এ অবস্থিত
সখিপুর
সখিপুর
সখিপুর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
সখিপুর
সখিপুর
বাংলাদেশে সখিপুর উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৪°১৯′০″ উত্তর ৯০°১০′৫″ পূর্ব / ২৪.৩১৬৬৭° উত্তর ৯০.১৬৮০৬° পূর্ব / 24.31667; 90.16806 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশবাংলাদেশ
বিভাগঢাকা বিভাগ
জেলাটাঙ্গাইল জেলা
আয়তন
 • মোট৪২৯.৭৮ বর্গকিমি (১৬৫.৯৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,৭৫,৯৮৬
 • জনঘনত্ব৬৪০/বর্গকিমি (১,৭০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৩৩.৪১%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড১৯৫০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৩০ ৯৩ ৮৫
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সখিপুর তালতলা চত্বর

অবস্থানসম্পাদনা

১৯৮৩ সালে উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ৪২৯.৭৮ বর্গকিমি ও ১৩২টি গ্রামের সখিপুর বাংলাদেশের টাঙ্গাইল জেলার ১২টি উপজেলার মধ্যে অন্যতম। এই উপজেলার ভৌগোলিক স্থানাক ২৪°১৯′০০″ উত্তর ৯০°১০′৩০″ পূর্ব / ২৪.৩১৬৭° উত্তর ৯০.১৭৫০° পূর্ব / 24.3167; 90.1750। এর উত্তরে ঘাটাইল উপজেলা, দক্ষিণে মির্জাপুর ও গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা, পূর্বে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা এবং পশ্চিমে কালিহাতিবাসাইল উপজেলা অবস্থিত।

যোগাযোগসম্পাদনা

রাজধানী ঢাকা থেকে সড়ক পথে মির্জাপুর হয়ে সখিপুরের দুরত্ব ৭৬.৯ কিলোমিটার। এবং টাঙ্গাইল জেলা সদর থেকে বাসাইল উপজেলা হয়ে ৪৮ কিলোমিটার। উপজেলার অভ্যন্তরে উপজেলা সদর থেকে প্রতিটি ইউনিয়ন পর্যন্ত পাকা সড়কের মাধ্যমে সংযুক্ত।

ইতিহাসসম্পাদনা

সখিপুর উপজেলা ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রশাসনিক এলাকাসম্পাদনা

সখিপুর উপজেলায় রয়েছে ১টি পৌরসভা এবং ০৮ টি ইউনিয়ন রয়েছে,[২] এগুলো হলো:

  1. কাকড়াজান
  2. বহেড়াতৈল
  3. গজারিয়া
  4. যাদবপুর
  5. হাতীবান্ধা
  6. কালিয়া
  7. দাড়িয়াপুর
  8. বহুরিয়া
সখিপুর পৌরসভা

কাহার্তা (১ ও ২ নং ওয়ার্ড), কচুয়া (২নং ওয়ার্ড অংশ), সখিপুর (২, ৩, ৫, ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড অংশ), গড়গোবিন্দপুর (৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড অংশ), বগা প্রতিমা, সানবান্দা, প্রতিমা বংকী (৬ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), কীর্তনখোলা (৮নং ওয়ার্ড অংশ)।

১নং কাকড়াজান ইউনিয়ন

চকচকিয়া শ্রীপুর, ভূয়াইদ, ইন্দারজানী (১ ও ২নং ওয়ার্ড অংশ), বৈলারপুর, কাজিরামপুর, ভাতগড়া, ঢণঢণিয়া, সুরীরচালা, গড়বাড়ী (৪ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), হামিদপুর, বাঘেরবাড়ী, কাকড়াজান (৭ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), মহানন্দপুর।

২নং বহেড়াতৈল ইউনিয়ন

কালিয়ান (৮ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), বেতুয়া (৭ ও ৮নং ওয়ার্ড অংশ), বহেড়াতৈল, আমতৈল, শালগ্রামপুর, আন্ধি, ছাতিয়াচালা, বগাপ্রতিমা (৬নং ওয়ার্ড অংশ), যোগীরকোফা, ঘাটেশ্বরী, কামারঙ্গ, গোহাইলবাড়ী (১ ও ২নং ওয়ার্ড অংশ), ডাবাইল, খামারচালা, ভূগলীচালা, নয়াপাড়া, নেরগাছ চালা, ধোপারচালা।

৩নং গজারিয়া ইউনিয়ন

কালিয়ানপাড়া (৭ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), কীর্তনখোলা (৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), ইছাদিঘী (১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ড অংশ), মুচারিয়া পাথার (৪ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), গজারিয়া।

৪নং যাদবপুর ইউনিয়ন

বোয়ালী (২ ও ৩নং ওয়ার্ড অংশ), শোলা প্রতিমা, লাঙ্গুলিয়া (১ নং ওয়ার্ড- একটি আদর্শ গ্রাম), যাদবপুর, পাহাড় কাঞ্চনপুর (১ ও ৪নং ওয়ার্ড), নলুয়া (৩ ও ৭নং ওয়ার্ড অংশ), বেড়বাড়ী (৫ ও ৬নং ওয়ার্ড অংশ), বহুরিয়া চতলবাইদ (৮নং ওয়ার্ড অংশ), ঘেচুয়া (৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), নলুয়া ঘোনারপাড়া (৮নং ওয়ার্ড অংশ)।

৫নং হাতীবান্ধা ইউনিয়ন

রতনপুর (২ ও ৩নং ওয়ার্ড অংশ), চাকদহ (১ ও ২নং ওয়ার্ড অংশ), হাতীবান্ধা (৪ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), তক্তারচালা (৬ ও ৭নং ওয়ার্ড অংশ), হতেয়া রাজাবাড়ী (৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), বাজাইল (৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), বড়চালা।

৬নং কালিয়া ইউনিয়ন

কালিয়া (১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ড অংশ), নিশ্চিন্তপুর, কুতুবপুর (৫ ও ৬নং ওয়ার্ড অংশ), বড়চওনা (৪ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), কচুয়া (৭নং ওয়ার্ড অংশ), কালিয়াপাড়া ঘোনারচালা (দক্ষিণ, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), বানিয়ারছিট।

৭নং দাড়িয়াপুর ইউনিয়ন

প্রতিমা বংকী (৮ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), ছোট মৌসা, বড় মৌসা, গড়গোবিন্দপুর (৭নং ওয়ার্ড অংশ), ছিলিমপুর, দাড়িয়াপুর (১, ২, ৩ ও ৪নং ওয়ার্ড অংশ), কাংগালীছেও, কৈয়ামধু (২ ও ৬নং ওয়ার্ড অংশ), দেওবাড়ী।

৮নং বহুরিয়া ইউনিয়ন

কালিদাস (১, ২ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), বহুরিয়া চতলবাইদ (৩, ৪ ও ৫নং ওয়ার্ড অংশ), আটিয়া কালমেঘা (৫, ৬ ও ৯নং ওয়ার্ড অংশ), তালেপাবাদ কালমেঘা (৭ ও ৮নং ওয়ার্ড অংশ)।

জনসংখ্যার উপাত্তসম্পাদনা

২০১১ সনের আদমশুমারী তথ্য অনুযায়ী সখিপুর উপজেলার জনতাত্ত্বিক পরিসংখ্যান নিম্নরূপঃ

উপজেলার নাম জনসংখ্যা জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার জনসংখ্যার ঘনত্ব শিক্ষার হার আয়তনত নগরায়নের হার
সখিপুর উপজেলা ২৮৮৭১৫ ১.৩৮ ৬৩৮ ৪১.১% ৪৩৫.১৯ বর্গ কি.মি ১৬.৪৪%

শিক্ষাসম্পাদনা

সর্বমোট কলেজ ৫টি

  • সরকারি অনার্স কলেজ ১টি
  • মহিলা অনার্স কলেজ ১টি
  • মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৫টি
  • ফাজিল মাদ্রাসা ২টি
  • আলিম মাদ্রাসা ৪টি
  • দাখিল মাদ্রাসা ২১টি
  • প্রাথমিক বিদ্যালয় ১২৭টি

এখানকার উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছেঃ

    • কলেজ ঃ
  • সখিপুর পি এম পাইলট মডেল স্কুল এন্ড কলেজ
  • সখিপুর আবাসিক মহিলা অনার্স কলেজ
  • সরকারী মুজিব কলেজ
  • পলাশতলী মহাবিদ্যালয়, হামিদপুর
    • উচ্চ বিদ্যালয় -
  • লাঙ্গুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়
  • হামিদপুর গণ উচ্চ বিদ্যালয়
  • বাঘের বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়
  • বোয়ালী ডিগ্রি কলেজ
  • হতেয়া মহাবিদ্যালয়
  • বি.এ.এফ. শাহীন স্কুল এন্ড কলেজ
  • নলুয়া বাছেত খানঁ উচ্চ বিদ্যালয়
  • বি সি বাইদ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়
  • সখিপুর পাইলট বালিকাউচ্চ বিদ্যালয়
  • কালিয়াপাড়া ডাকাতিয়া মাজেদা মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়
  • সাড়াসিয়া বাসারচালা উচ্চ বিদ্যালয়
  • হতেয়া এইচ এস ইউউচ্চ বিদ্যালয়
  • দাড়িয়াপুর এস এ উচ্চ বিদ্যালয়
  • কালমেঘা ইলিমজান উচ্চ বিদ্যালয়
  • জনতা উচ্চ বিদ্যালয়
  • ইছাদিঘী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়
  • ইছাদিঘী দাখিল মাদ্রাসা
  • মহানন্দপুর বিজয় স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয
    • প্রাথমিক বিদ্যালয়:-
  • বড় হামিদপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ‍্যালয়
  • লাঙ্গুলিয়া সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়

নির্বাচন সংক্রান্তসম্পাদনা

সংসদীয় আসন-১৪০, টাঙ্গাইল-৮ মোট ভোটার সংখ্যা : ১,৭৬২৭৫ জন পুরুষ ভোটার : ৮০,৩২১ জন মহিলা ভোটার : ৯৫,৯৫৪ জন

মুক্তিযুদ্ধে সখিপুরসম্পাদনা

স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশের একমাত্র স্বতন্ত্র বেসামরিক ব্রিগেড কাদেরিয়া বাহিনী এর জন্ম, সংগঠিত হওয়া এবং এর সদর দপ্তর ছিল এই সখিপুরে। বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী

বীরউত্তম সখিপুরের দুর্গম পাহাড়ী বনাঞ্চলে এই বাহিনীর প্রতিষ্ঠা করেন। পরে এটা কাদেরিয়া বাহিনী নামে দেশ বিদেশে ছড়িয়ে পড়ে। দুর্ধর্ষ এই বাহিনী মুক্তিযুূ্দ্ধে একটা কিংবদন্তী। সখিপুরের মহানন্দপুর গ্রামে বাহিনীর সদর দপ্তর ছিল। সখিপুর থেকেই এই বাহিনী সমগ্র টাঙ্গাইল এবং যমুনা ধলেশ্বরী নদ সংলগ্ন এলাকায় এবং গাজিপুর,ময়মনসিংহ,জামালপুর শেরপুর জেলায় গিয়ে পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযান চালাতো। বহেড়াতৈল বাজারের পাশে কাদেরিয়া বাহিনীর শপথ গ্রহণ করতো। এখানে একটা স্মৃতিস্তম্ভ আছে। তাছাড়া লাঙ্গুলিয়া গ্রাম মুক্তিযুদ্ধাদের এক অন্যতম ঘাঁটি ছিল। লাঙ্গুলিয়া গ্রামের বিশিষ্ট মুক্তিযুদ্ধারা হলেন আব্দুল কাদের, মো: বেলায়েত হোসেন, মো: শমসের আলী ও মো: সানোয়ার হোসেন প্রমুখ।

কৃষিসম্পাদনা

স্বাস্থ্য কেন্দ্রসম্পাদনা

  • ৫১ শয্যা বিশিষ্ট ১টি পুর্নাঙ্গ সরকারী হাসপাতাল আছে। যা ২০১৯ সালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক উপজেলা পর্যায়ে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ হাসপাতালে হিসেবে ঘোষিত হয়েছে।
  • উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র মোট ৬টি

যার মধ্যে ৪টি চলমান এবং ২টি স্থাপনা বিহীন থাকায় সাময়িকভাবে কার্যক্রম বন্ধ আছে।

প্রসিদ্ধ স্থানসম্পাদনা

  • নলুয়ায় বিমান বাহিনীর পাহাড় কাঞ্চনপুর ঘাঁটি
  • বহেড়াতৈল বাজারের নিকট অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের শপথ স্তম্ভ
  • কোকিলা পাবর এ অবস্থিত বিজ্ঞানাগার
  • হাতিবান্ধা তালিম ঘর
  • নকিল বিল
  • পলাশতলী বিলে বর্ষাকালীন বিনোদন কেন্দ্র

সংস্কৃতিসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে সখিপুর উপজেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ২৮ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৫ 
  2. "ইউনিয়ন সমূহ"tangail.gov.bd। ২২ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা