ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানো

ষাড়ের সাথে দৌড়ানো (স্পেনীয়: encierro, স্পেনীয় ক্রিয়া শব্দ, “encerrar” থেকে এর উৎপত্তি, যার অর্থ “গরু ধরা” বা “ঘেরা”) হলো গ্রীস্মকালীন উৎসবের অংশ হিসেবে আয়োজিত একটি প্রতিযোগিতা, যেখানে শহরের রাস্তার বিভাগযুক্ত অংশে মুক্ত করে দেওয়া একদল গৃহপালিত পশুর সামনে দৌড়াতে হয়।[১] দলটিতে সাধারণত ছয়টি এবং কখনো কখনো দশ বা তার চেয়েও বেশি পশু থাকে।[১] কোনো নিদির্ষ্ট জাতের ষাড় এতে অগ্রাধিকার লাভ করতে পারে, যেমন: স্পেনীয় তোরো ব্রাভো, যা দৌড়ের পর আয়োজিত ষাঁড়ের লড়াই এর জন্য ব্যবহার করা হয় এবং ফ্রান্সের অক্সিটান এর কামার্গ, যারা লড়াই করে না।[১] সাধারণত ষাঁড় (নুপষক নয় এমন পুরুষ ষাঁড়) এ ধরনের প্রতিযোগিতার জন্য ব্যবহার করা হয়।

ষাড়ের সাথে দৌড়ানো
Sanfermines Vaquillas Pamplona 08.jpg
পামপলোনায় ষাড়ের সাথে দৌড়ানো
তারিখসমূহ৬-৮ জুলাই
অবস্থান (সমূহ)পামপলোনা এবং অন্যান্য
পামপলোনায় একটি মুর্তি
এসতাফেতা রাস্তায় প্রতিযোগিরা ষাঁড়গুলোকে ঘিরে ফেলেছে

পাম্পলোনায় সেন্ট ফেরমিন এর সম্মানে আয়োজিত সেনফেরমিনেস নামের উৎসবের অংশ হিসেবে আয়োজিত, এনসিয়েরো হলো সবচেয়ে বিখ্যাত ষাঁড় দৌড়।[২] এটি বর্তমানে একটি বেশ্বিক পর্যটন আকর্ষণ, যা ঐতিহ্যবাহী স্থানীয় উৎসবের থেকে ভিন্ন। স্পেন এবং পর্তুগালের বিভিন্ন শহর, মেক্সিকোর কিছু শহর এবং দক্ষিণ ফ্রান্সের অক্সিটান অঞ্চলসহ (কামার্গ) অন্যান্য স্থানে আরো ঐতিহ্যবাহী ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।[৩] আগে ইংল্যান্ডেও ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানো প্রতিযোগিতাটি ১৮৩৭ সাল পর্যন্ত আয়োজিত হতো, এর মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত ছিল স্ট্যামফোর্ডে আয়োজিত ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোর প্রতিযোগিতা।

একটি প্রাচীন প্রথা থেকে ষাড়ের সাথে দৌড়ানো খেলাটির উৎপত্তি হয়। আগে শহরের বাইরে ষাঁড়দের নিয়ে এসে সেখানে তাদের প্রজনন কোনো হতো, তাদের সাথে লড়াই করা হতো এবং সন্ধায় তাদের হত্যা করা হতো।[৪] ষাঁড়-দৌড়ের সময়ে অনেকে তাদের সাহসীকতার প্রদর্শন করতে ষাঁড়দের মধ্যে লাফ দেয়। প্লামপোনা এবং অন্যান্য স্থানে ষাড়ের সাথে দৌড়ানোর খেলায় সেই ছয় ষাঁড়কেই নেওয়া হয় যাদের ঐ একই দিনে বিকেলে অনুষ্ঠিত ষাঁড়ের লড়াই এ ব্যবহার করা হবে।

স্পেনীয় ঐতিহ্য অনুসারে, ষাড়ের সাথে দৌড়ানোর প্রথা ১৪ শতাব্দির প্রথম দিকে উত্তর স্পেনে শুরু হয়েছে। মানুষ তাদের গৃহপালিত পশুদের বাজারে বিক্রি করতে নিয়ে যাওয়ার সময়ে যাতে তারা দ্রুত যায় সেজন্য ভয় এবং উত্তেজনার কৌশল ব্যবহার করত। বছরের পর বছর ধরে এই প্রথা চলে আসে এবং এক সময় এটি এক ধরনের প্রতিযোগিতায় রূপান্তর হয়ে যায়। সেই প্রতিযোগিতায় তরুণ এবং পূর্ণবয়স্করা তাদের গৃহপালিত ষাঁড়ের সামনে দৌড়ানোর এবং পিছিয়ে না পড়ে ষাঁড়ের খোঁয়াড়ে পৌছানোর চেষ্টা করে। তারপর যখন স্পেনের ক্রম বর্ধিত মানুষের মধ্যে এটি আরো বিখ্যাত হতে শুরু করে তখন এটি একটি ঐতিহ্যে রূপান্তর হয় এবং আজ পর্যন্ত এই ঐতিহ্য অক্ষত রয়েছে।[৫]

পাম্পলোনা ষাঁড় দৌড়সম্পাদনা

 
পাম্পলোনায় সেন ফেরমিনকে সম্মান জানানো হচ্ছে
 
পাম্পলোনা, ৭ জুলাই, ২০০৫। ষাঁড়গুলো দৌড়ে টাউন হোল অতিক্রম করার সময়ে মানুষ বেড়ার উপর উঠছে।

পাম্পলোনা এনসিয়েরো স্পেনের সবচেয়ে বিখ্যাত ষাঁড় দৌড়। সার্বজনীন স্পেনীয় জাতীয় টেলিভিশন চ্যানেল, আরটিভিই এই ষাঁড় দৌড়টি ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে সম্প্রচার করছে। এটি সেন ফেরমান উৎসবের সবচেয়ে মর্যাাদপূর্ণ অংশ, যা জুলাই মাসের ৬ তারিখ থেকে ১৪ তারিখ পর্যন্ত আয়োজিত হয়। প্রথম ষাঁড় দৌড়ের আসর আয়োজিত হয় ৭ তারিখে এবং তারপর প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়। এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের নিয়মগুলোর মধ্যে রয়েছে: প্রতিযোগিদের অবশ্যই ১৮ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সী হতে হবে, তাদের ষাঁড়ের দিকে দৌড়াতে হবে, তারা ষাঁড়গুলোকে প্ররোচিত করতে পারবে না এবং মদের নেশায় থাকতে পারবে না।

ফ্রান্সসম্পাদনা

পাম্পলোনা পাশের রাস্তাগুলো আটকাতে এবং ষাঁড়গুলোকে সঠিক রাস্তায় নিয়ে যেতে কাঠের বেড়া দেওয়া হয়। যে স্থানগুলোতে যথেষ্ট জায়গা অবশিষ্ট থাকে সেগুলোতে একটি দ্বিগুণ কাঠের বেড়া দেওয়া হয় এবং অন্যান্য স্থানে রাস্তার পাশের স্থাপনাগুলো বাধা হিসেবে কাজ করে। এই বাধাগুলোতে মানুষের বের হয়ে যাওয়ার মতো কিন্তু ষাঁড়কে আটকানোর মতো ফাঁকা থাকে। এই বেড়াগুলো প্রায় তিন হাজাার আলাদা আলাদা কাঠের টুকরা দিয়ে তৈরি। ফিরেস্তা বন্টনের জন্য বেড়াগুলোর কিছু অংশ সেই স্থানটিতে রেখে দেওয়া হয় এবং অন্য অংশগুলোকে প্রতি সকালে লাগনো প্রতিস্থাপন এবং সরানো হয়। দর্শকরা দ্বিতীয় বেড়ার পেছনে দাড়াতে পারে এবং দুটি বেড়ার মধ্যবর্তী স্থানটি শুধু চিকিৎসা বিভাগ, নিরাপত্তা কর্মী এবং প্রতিযোগিদের আড়ালে যাওয়ার জন্য সংরক্ষিত রাখা হয়।

উদ্ভোদনী অনুষ্ঠানসম্পাদনা

 
প্রথম হাউইবাজি ছোড়া পর্যন্ত পুলিশের বাঁধা প্রতিযোগিদের দৌড়াতে আটকাচ্ছে।

এনসিয়েরো শুরুর আগে প্রতিযোগিরা একটি আশির্বাদের স্বস্তিবচন গায়। তারা এ স্বস্তিবচনটি তিনবার গায় এবং প্রত্যেকবারই স্পেনীয় এবং বোস্ক দুটো মিলিয়েই গায়। এই স্বস্তিবচনটি হলো সেই উৎসবের এবং শহরের রক্ষাকর্তা হিসেবে বিবেচিত, সেন্ট ফেরমিন এর একটি মুর্তির কাছে করা একটি প্রার্থনা। এই প্রার্থনায় তার সুরক্ষা কামনা করা হয়। স্বস্তিবচনটিকে বাংলায় অনুবাদ করলে হয়: “আমরা সেন্ট ফেরমিন এর নিকট প্রার্থনা করছি, যিনি আমাদের রক্ষাকর্তা এবং আমরা যেন তিনি আমাদের এনসিয়োরিটি জুড়ে সাহায্য করেন এবং আমাদের তার আর্শিবাদ দেন”। তারা যথাক্রমে ¡Viva San Fermín! এবং Gora San Fermin! বলে চিৎকার করে প্রার্থনাটি শেষ করে, যার অর্থ স্পেনীয় এবং বাস্ক ভাষায় “দীর্ঘজীবি হন সেন্ট ফারমিন”। অধিকাংশ প্রতিযোগি প্রতিযোগিতার ঐতিহ্যবাহী পোশাক, যা হচ্ছে একটি লাল গলাসহ সাদা শার্ট এবং পাজামা এর সাথে একটি লাল কোমর বন্ধনী। তাদের মধ্যে কেউ কেউ প্রয়োজনানুরে তাদের কাছ থেকে ষাঁড়গুলোর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য করতে সেই দিনের পত্রিকা গুটিয়ে রাখে।

ষাঁড় দৌড়সম্পাদনা

 
সাধারণ পোশাকে পাম্পলোনা ষাঁড় দৌড়ের প্রতিযোগিরা
 
পাম্পলোনা, ২০০৭। ষাঁড়গুলো প্রতিযোগিদের কায়েহোন থেকে বুলরিং -এ ঢোকার সময় অনুসরণ করছে, যেখানে প্রতিযোগিতা শেষ হয়ে যায়। ষাঁড়গুলো ছবিটির ফোরগ্রাউন্ড এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে দেখা যাচ্ছে।

সকাল ৮ টার সময়ে খোঁয়াড়ের দরজা খুলে দেওয়ার খবরটি জানানোর জন্য প্রথম হাউইবাজি নিক্ষেপ করা হয়। দ্বিতীয় হাউইবাজিটি দিয়ে ছয়টি ষাঁড়কে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এই সংকেত দেওয়া হয়। তৃতীয় এবং চতুর্থ হাউইবাজিগুলো দিয়ে প্রত্যেকটি প্রাণি বুলরিং এবং খোঁযাড়ে প্রবেশ করার সংকেত দেওয়া হয়। প্রথম হাউইবাজি এবং এনসিয়েরো শেষ হওয়ার মধ্যবর্তী সময় সাধারণত দুই মিনিট ত্রিশ সেকেন্ড।

এনসিয়েরোটিতে সাধারণত ঐ দিন বিকেলে যে ষাঁড়গুলো লড়াই করবে সেই ছয়টি ষাঁড় দৌড়ায়। ছয়টি বলদও ষাঁড় গুলোর সাথে দলবদ্ধভাবে দৌড়ায় এবং আরো তিনটি বলদ দলটির পেছনে দৌড়ায় যাতে কোনো অনিচ্ছুক ষাঁড় তার নির্দিষ্ট পথেই থাকে। এই বলদগুলো প্রতিদিন সেই পথে দৌড়ায়। তাদের কাজ হলো ষাঁড়গুলোকে বুলরিং -এ নিয়ে যাওয়া। ষাঁড়ের দলের সাধারণ গতি হলো ঘন্টায় ২৪কি.মি. (ঘন্টায় ১৫মিটার)।

এই দৌড়ের দৈর্ঘ্য হলো ৮৭৫ মিটার বা ৯৫৭ গজ। এই প্রতিযোগিতায় কায়াহোন দিয়ে বুলরিং -এ প্রবেশের আগে টাউন হোল চত্ত্বর এবং টেলিফোনিকা (কায়ে এসতেফেতা এর শেষ মাথায় অবস্থিত পুরানো টেলিফোন অফিস এর নামানুসারে নামকরন করা) নামক ছোট অঞ্চলটি দিয়ে শহরের পুরানো অংশের চারটি রাস্তা (সানতো ডোমিনগো, আয়ুনতামিয়েনতো, মেরকাদেরেস এবং এসাতফেতা) জুড়ে দৌড়াতে হয়। এই প্রতিযোগিতার নির্দিষ্ট পথের সবচেয়ে বেশি গতিসম্পন্ন অংশ হলো সানতো ডোমিনগো এবং টাউন হল চত্তরের আশেপাশের রাস্তাগুলো। ষাড়গুলো প্রায় এসতাফেতা রাস্তায় প্রবেশের সময়ে ধীর গতিসম্পন্ন হয়ে পড়ায় আলাদা হয়ে যায়। এসতেফেতা রাস্তায় মোড় ঘোরার সময়ে (লা কার্ভা) এক বা একাধিক ষাঁড় পথচূত হয়ে পড়ত। এ কারণে সেখানে একটি অপিছল তলের ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমানে অধিকাংশ ষাঁড় এই মোড়টি অতিক্রম করতে পারে এবং প্রায়ই তারা এটি বলদগুলোর আগে করে। এ কারণে এই দৌড়ের সময়ও কমে গিয়েছে। এনসিয়েরো এর প্রথম ৫০ মিটারে প্রতিযোগিদের ঢুকতে দেওয়া হয় না কারণ সেই অঞ্চলটি চড়াই এর মতো এবং সেখানে ষাঁড়গুলোর গতি তাদের চেয়ে অনেক বেশি থাকে।

আঘাত, প্রাণহানী এবং চিকিৎসাসম্পাদনা

 
দুইজন আহত দৌড়বিদ চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করছেন।

প্রতি বছর ৫০ থেকে ১০০ জন মানুষ এই প্রতিযোগিতায় আঘাত পান।[৬] সব আঘাতের জন্য আঘাতপ্রাপ্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন হয়নি। ২০১৩ সালে ৫০ জনকে অ্যাম্বলেন্সে করে পাম্পলোনার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া লেগেছিল, যা ছিল ২০১২ এর তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ।[৭]

হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন যদিও প্রায়ই হয়, সেরকম আঘাত জীবন হানিকারক হতে পারে। ২০১২ সালে মাত্র ৪ জন প্রতিযোগি ষাঁড়গুলোর শিং দ্বারা আহত হন। এই সংখ্যা ২০১১ সালেও একই ছিল। ২০১০ সালে নয় জন এবং ২০০৯ সালে ১০ জন এভাবে আহত হন, যাদের মধ্যে একজন পরবর্তীতে মৃত্যুবরণ করেন।[৭][৮] অধিকাংশ প্রতিযোগি পুরুষ হওয়ায় ১৯৭৩ সাল থেকে নারীদের জন্য অংশ নেওয়ার নিষিদ্ধ হয়ে যাওয়া পর্যন্ত মাত্র ৫ জন নারী ষাঁড়ের শিং দ্বারা আহত হয়েছেন।[৯]

বুলরিং -এ প্রবেশের শুরুতে প্রতিযোগিদের পড়ে যাওয়া হচ্ছে আরেকটি বড় আশঙ্কা, যা পূববর্তী রাস্তাগুলোর থেকে কম প্রসস্থ হওয়ায় একটি ফানেলের মতো কাজ করে। এ রকম ক্ষেত্রে, বিভ্রান্তি এবং শ্বাসকষ্টের কারণে আঘাতপ্রাপ্ত হতে পারে এবং দলগতভাবে প্রবেশ করার সময়ে যদি কোনো সে সময়ে যদি কোনো ষাঁড় সেই দলের মধ্যে পড়ে যায়, তাহলে তারাও আঘাত পেতে পারে। শুরুতে এই ধরনের বাধা এই প্রতিযোগিতার ইতিহাসে অন্তত ১০ বার দেখা গিয়েছে। প্রথমবার এ রকম হয়েছিল ১৮৭৮ সালে এবং শেষবার এমন হয় ২০১৩ সালে। ১৯৭৭ সালে এভাবেই একজন মৃত্যুবরণ করেন।[১০]

১৯১০ সালে হিসেব রাখা শুরু হওয়ার পর থেকে পাম্পলোনায় ১৫ জন নিহত হয়েছেন, অধিকাংশই শিং এর আঘাতে নিহত হয়েছেন।[৬] আঘাতের মাত্রা কমিয়ে আনতে প্রতিদিন ২০০ জন মানুষ চিকিৎসা বিভাগে কাজ করেন। তারা ১৬ স্যানিটারি পোস্টে (প্রতি ৫০ মিটারে একটি করে থাকে) থাকেন এবং তাদের মধ্যে অন্তত একজন চিকিৎসক একজন সেবিকা থাকেন। তাদের অধিকাংশই সেচ্ছসেবক এবং রেড ক্রস এর সদস্য। এছাড়াও রয়েছে ২০টি অ্যাম্বুলেন্স। তারা ১০ মিনিটের মধ্যে কোনো শিং দ্বারা আহত মানুষকে স্থিতিশীল করে হাসপাতালে পাঠাতে পারেন।[১১]

পাম্পলোনা ষাড় দৌড়ে ১৫ জনের মৃত্যু[৬]
বছর নাম বয়স জন্মস্থান স্থান মৃত্যুর কারণ
১৯২৪ এসতেবান ডোমেনিও ২২ নাভার, স্পেন টেলিফোনিকা শিং এর আঘাত[১২]
১৯২৭ সানতিয়াগো জুফিয়া ৩৪ নাভার, স্পেন বুলরিং শিং এর আঘাত[১২]
১৯৩৫ গোঞ্জালো বুস্টিন্ডুই ২৯ সেন লুই পোটোসি, মেক্সিকো বুলরিং শিং এর আঘাত[১২]
১৯৪৭ কেসিমিরো হেরিদিয়া ৩৭ নাভার, স্পেন এসতেফেতা শিং এর আঘাত[১২]
১৯৪৭ হুলিয়ান সাবালসা ২৩ নাভার, স্পেন বুলরিং শিং এর আঘাত[১২]
১৯৬১ ভিনসেন্ট উরিসোলা ৩২ নাভার, স্পেন সানতো ডোমিনগো শিং এর আঘাত[১২]
১৯৬৯ হিলারিও পারদো ৪৫ নাভার, স্পেন সানতো ডোমিনগো শিং এর আঘাত[১২]
১৯৭৪ হোয়ান ইগনাসিয়ো এরাসো ১৮ নাভার, স্পেন টেলিফোনিকা শিং এর আঘাত[১২]
১৯৭৫ জ্রেজিয় গোরিস ৪১ নাভার, স্পেন বুলরিং শিং এর আঘাত[১২]
১৯৭৭ হোজে হোয়াকিন এজপারসা ১৭ নাভার, স্পেন বুলরিং দলগতভাবে প্রবেশের সময়ে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে যাওয়া.[৬]
১৯৮০ হোজে এন্টনীয় সাঞ্চেজ ২৬ নাভার, স্পেন টাউন হল চত্ত্বর শিং এর আঘাত[১২]
১৯৮০ বিনসেন্ট রিসো ২৯ বাদাযোগ, স্পেন বুলরিং শিং এর আঘাত[১২]
১৯৯৫ ম্যাথিউ পিটার ট্যাসিও ২২ গ্লেন এলিন ইলিনোইস, যুক্তরাষ্ট্র টাউন হল চত্ত্বর শিং এর আঘাত[১৩]
২০০৩ ফেরমিন এক্সতেবেরিয়া ৬২ নাভার, স্পেন মেরকাদেরেস শিং এর আঘাত[১৪]
২০০৯ ডেনিয়েল জিনেরো রোমেরো ২৭ আলকালা দে এনেরোস, স্পেন টেলেফোনিকা শিং এর আঘাত[১৫][১৬]

পোশাক পরিধানের নীতিসম্পাদনা

 
"পোর মি" স্লোগানে কোলাহত টাউন হল চত্ত্বর

যদিও পোশাক পরিধানের কোনো আনুষ্ঠানিক নীতি নেই, তারপরও সবচেয়ে বেশি প্রচলিত ঐতিহ্যবাহী পোশাক হলো সাদা শার্ট এবং পাজামা সাথে কাধে নেওয়ার জন্য একটি লাল রুমাল এবং একটি লাল কোমর বন্ধনি। এ পোশাক ফেরমিনকে সম্মান প্রদর্শনের জন্য পরিধান করা হয়, যার শহীদি মৃত্যুর জন্য এই উৎসব পালন করা হয়। এই সাদা পোশাক যেকোনো সেন্ট এর বিশুদ্ধতা এবং পবিত্রতা নির্দেশ করে এবং লাল রুমাল বা “পানুয়েআলোস” তার শিরচ্ছেদের মাধ্যমে মৃত্যুবরণকে নির্দেশ করে। প্রতিযোগিদের মধ্যে যারা সাদা ব্যতীত অন্য কোনো রঙের কাপড় পরিধান করতে চান তাদের একটি সাধারণ পছন্দ হলো নীল। অন্যরা তাদের শার্টে বড় লোগো যুক্ত করেন। বর্তমানে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যুগে ছবিতে কাউকে লক্ষণীয় করে তোলার একটি উপায় হিসেবে এটিকে বিবেচনা করা হয়।

প্রচারসম্পাদনা

 
পাম্পলোনা/ইরুনিয়ায় ১৮৮৮ সালে স্থাপিত ক্যাফে ইরুনিয়ায় হেমিংওয়ে পানীয় পান করেছিলেন

সাহিত্য, টেলিভিশন এবং বিজ্ঞাপনে অনেকবার চিত্রিত করা হলেও পাম্পলোনার এরসিয়েরো আর্নেস্ট হেমিংওয়ে এর দ্য সান অলসো রাইজেস এবং ডেথ ইন দি আফটারনুন নামক বই দুটিতে দেওয়া লেখা বর্ণনার কারণে এটি বিশ্বব্যাপী আংশিক বিখ্যাত হয়। চলচ্চিত্রের অগ্রদূত লুই লুমিয়ের ১৮৯৯ সালে এই দৌড়টি ক্যামেরায় ধারণ করেন।[১৭]

১৯৭১ সালে প্রকাশিত জেমন এ. মিসেনার এর দ্যা ড্রিফটারস নামক একটি উপন্যাসের প্রথম পরিচ্ছেদের ভিত্তি।

১৯৯১ সালে, বিলি ক্রিস্টালের চলচ্চিত্র, “সিটি স্লিকার্স” -এ এই ষাঁড় দৌড়টি দেখানো হয়, যেখানে “মিচ” নামক চরিত্রটি (ক্রিস্টাল) পেছনের দিক থেকে ষাঁড়ের শিং দ্বারা আঘাত ‍পান (মারাত্মক নয়)।

 
স্পেনের প্রভিন্সিয়া দে সেগোভিয়া এর -এর সেউলার -এ আয়োজিত ষাঁড় দৌড়।

জয়া আক্তারের পরিচালিত ২০১১ সালে প্রকাশিত জিন্দগি না মিলেগি দোবারা নামক বলিউড চলচ্চিত্রে এই দৌড়টি দেখানো হয়েছে। সেখানে তিনজন অবিবাহিত পুরুষের তাদের চূড়ান্ত ভয়, মৃত্যুর ভয় কাটাতে তাদের পছন্দনীয় শেষ ঝুকি এটি হিসেবে ছিল। তারা কিছু পথ দৌড়ালো এবং তারপর তারা চত্ত্বরে থেমে তাদের স্নায়ু ঠিক করে আবার শেষ পর্যন্ত শেষ পর্যন্ত দৌড়ালো। দৌড় সম্পন্ন করে তারা বুঝতে পারল যে জীবনের ঝুঁকি থেকে বেঁচে যাওয়া আনন্দদায়ক হতে পারে, যা তাদের স্বাধীনতাকে চিত্রিত করে।

কন্সট্রাক্ট ক্রিয়েটিভস কর্তৃক ২০১২ সালে তৈরি জেসন এর উপস্থিত একটি তথ্যচিত্রে তিনি এই বিতর্কিত ঐতিহ্যের ভালো এবং খারাপ দিকগুলো তুলে ধরেন।[১৮]

২০১৪ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত এসকোয়ার নেটওয়ার্ক এই ষাঁড়ের দৌড় যুক্তরাষ্ট্রে সরাসরি ধারাভাষ্য এবং দিনের পরবর্তী সময়ে এনবিসিএসএন এর ভাষ্যকার, ম্যান ইন ব্লেজারস কর্তৃক রেকর্ড করা রেকর্ড করা রাউন্ড আপ এর সাথে সম্প্রচার করে।[১৯] রেকর্ড করা রাউন্ড আপ এর মধ্যে মাদ্রিদে জন্মগ্রহণকারী, ডেভিড উবেদা, প্রাত্তন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনীর সৈনিক পরবর্তীকালে চলচ্চিত্র নির্মাতা, ডেভিড ক্লান্সি, নিউ ইয়র্কের বিখ্যাত ষাঁড় দৌড় খেলোয়াড় জোসেফ ডিস্টলার এবং প্রাত্তন বৃটিশ ষাঁড়ের লড়াইয়ের খেলোয়াড় এবং লেখক, আলেকজেন্দার ফিস্ক হেরিসন এর সাক্ষাতকার ছিল।[২০][২১][২২]

আলেকজেন্দার ফিস্ক হেরিসন, জো ডিস্টলার, এরনেস্ট হেমিংওয়ে এর নাতি, জন এবং অরসন ওয়েলস এর কন্যা, বিট্ট্রিস এর একটি নির্দেশনা বইয়ের নামক একজন অবদানকারী, বিল হিলম্যান বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর খুব কম সময়ের মধ্যে ষাঁড়ের শিং দ্বারা আহত হলে বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। বইটি ২০১৭ সালে দ্যা বুলস অব পাম্পলোনা নামে পুনঃপ্রকাশিত হয়, যাতে ডেনিস ক্লান্সি একটি প্রতিস্থাপিত করেন।[২৩]

অন্যান্য উদাহরণসম্পাদনা

 
আগুনের ষাঁড় থেকে শিশুরা পালাচ্ছে (তুদেলা, নাভার)

সেন ফেরমিন এর ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোর আসর সবচেয়ে জনপ্রিয় হলেও এ রকম আসর এ রকম ষাঁড় দৌড় স্পেন ও পর্তুগাল বিভিন্ন শহর এবং গ্রাম জুড়ে এবং দক্ষিণ ফ্রান্সের বিভিন্ন অংশে গ্রীস্মকালে আয়োজিত হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য: মাদ্রিদের নিকটবর্তী সেন সেবাস্টিয়ান দে লস রেয়েস এর ষাঁড় দৌড়, যা স্পেনে পাম্পলোনার ষাঁড় দৌড়ের পর সবচেয়ে বিখ্যাত, কুয়েয়ার এর ষাঁড় দৌড়, যা প্রমাণুসারে ১২১৫ খ্রিস্টাব্দেও বিদ্যমান থাকায় স্পেনের সবচেয়ে পুরানো ষাঁড় দৌড় হিসেবে বিবেচিত, পর্তুগালের সাবুগালে অবস্থিত রাইয়ায় আয়োজিত হাইল্যান্ড কেপিয়াস, যেখানে ঘোড়া কিছু ঘোড়া ষাঁড়ের দলকে স্পেন থেকে বের হয়ে যাওয়া পুরানো সীমানা অতিক্রম এবং মধ্যযুগীয় ‘ফোরকাও’ ব্যবহার করতে সাহায্য করে অথবা যে ষাঁড় নাভালকারনেরো থেকে বেরিয়ে যায় সেটিকে ডান পাশে রাখা হয়।

অন্যান্য এনসিয়েরোতেও আঘাত দুঘর্টনা ঘটেছে।[২৪]

কোররেবাউস অথবা বাউস আল কারেরসম্পাদনা

 
আলবোকাসের এ আয়োজিত বাউস আল কারের

বাউস আল কাসের, কাররেবাউ অথবা কাররেবাউ (কাতালান ভাষায় অর্থ: রাস্তায় ষাঁড়, রাস্তার ষাঁড় বা ষাঁড় দৌড়াচ্ছে) কাতালুনিয়ার তেরেস দে লিবরা এর ভেলেন্সীয় অঞ্চল এবং মালার্কা এর ফোর্নালুটস এ আয়োজিত একটি সাধারণ উৎসব। আরেকটি উল্লেখযোগ্য ঐতিহ্য হলো সোল্টেজ দে ভাকেজ, যেখানে ষাঁড়ের পরিবর্তে গরু ব্যবহার করা হয়। এটি বছরের যে কোনো সময়ে আয়োজিত হতে পারে কিন্তু স্থানীয় উৎসবের সময়ে (সাধারণত আগস্ট মাসে) এটি বেশি দেখা যায়। এতে এনসিয়েরোর মতো পশুগুলোকে কোনো বুলরিং -এ নিয়ে যাওয়া হয় না।

এই উৎসবগুলো সাধারণত গ্রামের তরূণরা ষাঁড়ের বিপক্ষে তাদের সাহস এবং ক্ষমতা দেখানোর একটি উপায় হিসেবে আয়োজন করেন। কিছু উৎস এটিকে পুরুষের প্রাপ্তবয়সে ধাবিত হওয়ার রীতি বলে উল্লেখ করেছে।[২৪]

ফ্রান্সের অক্সিটান অঞ্চলে ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোসম্পাদনা

 
একটি আব্রিভেদো কমপক্ষে চারটি ষাঁড়ের একটি দলকে গার্ডিয়ানরা ৩৬০ডিগ্রি মোড়ে ঘুড়িয়ে তাদের দক্ষতা প্রদর্শন করছেন (কাওভিসনে)
 
একটি বানজিদো ষাঁড়টিকে নির্দেশ দেওয়ার পরও সেটি থামেনি (কাওভিসনে)

ফ্রান্সের বিভিন্ন সোমিয়ের এর আশেপাশের অঞ্চলগুলোতে ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোর অনেক আসর আয়োজিত হয়। কামার্গীয় সংস্কৃতি অনুসারে, এগুলোতে কোনো ষাঁড়কে ইচ্ছকৃতভাবে আহত বা হত্যা করা হয় না। এর মতো একটি আসর ২০ জুলাই এর কাছাকাছি কোনো দিনে পাঁচ দিনের জন্য কাওভিসন -এ আয়োজিত হয়। এই অঞ্চলে চারটি আসর আয়োজিত হয়। সেগুলো হলো-

  • আব্রিভেদো: এতে ১০ ষাঁড় দলবদ্ধভাবে রাস্তায় দৌড়ায় এবং ১২জন গার্ডিয়ান যারা সাদা কামার্গ ঘোড়ায় চড়ে সেই দলটিকে নির্দেশনা দেয়।
  • এনসিয়েররো: এতে ষাঁড়গুলোকে খোঁয়াড়ের বাইরে মুক্ত করে দেওয়া হয় এবং তাদের খোঁয়াড়ে ফিরে আসতে হয়।
  • বানজিদো: এতে একটি ষাঁড়কে প্রথমে মুক্ত করে দেওয়া হয় এবং পরে রাস্তায় অন্যান্য ঘোড়াকে সেটির সাথে দৌড়ানোর জন্য মুক্ত করে দেওয়া হয়।
  • বানজিদো দে নুইয়ি: এটি বানজিদো এর মতোই শুধু এটি রাতে আয়োজিত হয়। পুরুষ এবং বালকেরা ঘোড়ায় চলে ষাঁড়গুলোকে থামানোর এবং ঘোড়াগুলোর থেকে দুরে সড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা।[২৫]

স্ট্যামফোর্ড ষাঁড় দৌড়সম্পাদনা

লিঙ্কনশিয়ার এর স্ট্যামর্ফোর্ড শহরের স্ট্যামফোর্ড ষাঁড় দৌড় নামক একটি ষাঁড়ের সাথে দৌড়ানোর আসর ১৮৩৭ সাল পর্যন্ত প্রায় ৭০০ বছর ধরে আয়োজিত হয়েছে।[২৬] স্থানীয় ঐতিহ্য অনুসারে, রাজা জন এর সময়ে এই রীতির উৎপত্তি, যখন সুরে এর ৫ম আর্ল, উইলিয়াম দে ওয়ারেন তৃণভূমিতে দুটো ষাঁড়ের লড়াই দেখেন। পরে কিছু কসাই এসে ষাঁড়গুলোকে ষড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন কিন্তু ষাঁড়গুলোর মধ্যে একটি সারা শহর দৌড়ে বেড়ায় এবং প্রচুর কোলাহল সৃষ্টি হয়। তিনি ঘোড়ায় চড়ে ষাঁড়টিকে অনুসরণ করেন এবং তার এটি এত ভালো লাগে যে তিনি সেই তৃণভূমিটি কসাইদের এই শর্তে দিয়ে দেয় যে তারা এর পর থেকে প্রতি নভেম্বর মাসের ১৩ তারিখে শহরে দৌড়ানোর জন্য একটি ষাঁড় দিবে। ২০১৩ সালে এই ষাঁড় দৌড় একটি আনুষ্ঠানিক উৎসবের মতো সাম্প্রদায়িক আসর হিসেবে পুনরুজ্জীবিত হয়েছে।

মোক ষাঁড় দৌড়সম্পাদনা

রাতে আয়োজিত “আগুনের ষাঁড়” হচ্ছে একটি এক ধরনের ষাঁড় দৌড়, যাতে ষাঁড়গুলোর শিং -এর উপর দাহ্য পদার্থ রাখা হয়। বর্তমানে ষাঁড়ের পরিবর্তে এতে একজন দৌড়বিদ একটি কাঠামো বহন করেন, যার উপর আতশবাজি রাখা হয় এবং শিশুরা তার কাছ থেকে দৌড়ানোর মাধ্যমে তাকে এড়ানোর চেষ্টা করে।

২০০৮ সালে, রেড বুল রেসিং ডেভিড কোলথার্ড এবং স্কুডেরিয়া টোরো রোসো পাম্পলোনা ষাঁড় দৌড়ের একটি সংস্করণের আয়োজন করেন, যেখানে তিনি ৫০০জন দৌড়বিদকে প্রকৃত পাম্পলোনার আসরের নির্দিষ্ট রাস্তায় তাদের ফর্মুলা ওয়ান গাড়ি নিয়ে তাড়া করেন।[২৭]

 
নিউ অরলিন্স এর ফরাসি কোয়াটারে আয়োজিত ষাঁড় দৌড়

২০০৭ সাল থেকে লুইসিয়ানার নিউ অর্লিন্স রোলার ডার্বি দল, বিগ ইজি রোলারগার্লস একটি বার্ষিক মোক ষাঁড় দৌড় আয়োজন করেন। দলটি ষাঁড় সেজে ফ্রেঞ্চ কোয়াটার জুড়ে স্কেট করে। ২০১২ সালে, দেশজুড়ে ১৪,০০০ দৌড়বিদ এবং ৪০০ এর বেশি ষাঁড় এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। এতে শুরু এবং শেষে জমজমাট অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।[২৮][২৯][৩০]

আয়ারল্যান্ডের বেলিজেমসডাফ -এ “পিগ রান” নামক একটি আসরের আয়োজন করা হয়, যেখানে ছোট শুকর ব্যবহার করা হয়। এটি ষাঁড়ের পরিবর্তে শুকরের এনসিয়েরোর মতো।

ডেলাওয়্যার এর ডিউই সৈকতে দ্যা স্টারবোর্ড নামক একটি মদের দোকানের সৌজন্যে একটি বার্ষিক ষাঁড় দৌড়ের আয়োজন করে, যেখানে সাদা এবং লাল কাপড় পড়া অংশগ্রহণকারীদের একটি ষাঁড় (পেন্টোমিম ঘোড়ার মতো পোশাক পড়ে থাকা দু’জন মানুষ) তাড়া করে।[৩১]

নিউজিল্যান্ডের রাঙ্গিয়োলায় একটি বাষিক ভেড়া দৌড়ের আয়োজন করা হয়, যেখানে ১০০০-২০০০ ভেড়াকে ছোট কৃষি-ভিত্তিক শহরটির রাস্তায় মুক্ত করে দেওয়া হয়।

ষাঁড় দৌড় যুক্তরাজ্য হচ্ছে একটি পাব ক্রল আসর, যেখানে দ্রুত গতির মানুষ দৌড়বিদরা দৌড়ায়।

২০১৪ সালে, পাম্পলোনায় কয়েকটি ষাঁড় দৌড়ের আসরের আয়োজন করা হয়। যেগুলো হলো: সেন ফেরমিন এর একটি সম্পূর্ণ ম্যারাথন, একটি অর্ধ-ম্যারাথন এবং একটি ১০ কি.মি রাস্তা জুড়ে দৌড় প্রতিযোগিতা, যা প্রত্যেক দৌড়ের প্রতিযোগিদের বুলরিং -এর মধ্যে প্রতিযোগীতার শেষ সীমানায় প্রবেশ করতে এনসিয়েরোর নির্দিষ্ট রাস্তায় অতিক্রান্ত শেষ ৯০০মি. এর সাথে সমাপ্ত হয়।[৩২]

আলাস্কার অ্যাংকারিজ -এ ২০০৮ থেকে ফার রেন্ডেজভাজ উৎসবের সময় আয়োজিত হচ্ছে বল্গাহরিণের দৌড়, যেখানে একদল বল্গহরিণের দল একদল মানুষকে শহরের কেন্দ্রস্থলের একটি চার-ব্লক রাস্তা জুড়ে তাড়া করে।

বিরোধিতাসম্পাদনা

অনেক বিরোধীদের মতে, ষাঁড়গুলো প্রতিযোগী এবং দর্শকদের উত্তেজনা আর আওয়াজের কারণে মানসিক চাপে ভুগতে পারে, বিশেষ করে যদি সেগুলোকে বেঁধে রাখা হয় বা সেগুলো শিং এর উপর কোনো আতশবাজি রাখা হয় (বোউ আম্বুলাত দেখা যায়)।[৩৩] তারপরওে এ ধরনের উৎসবের সমর্থন তাদের গ্রামগুলোতে অনেক।[৩৪]

মেক্সিকোর সেন মিগেল দে আলিনদে -তে ২০০৬ সালের পর থেকে সেন মিগেলেদা ষাঁড় দৌড় বাতিল করে দিয়েছে। তারা এর পেছনে কারণ হিসেবে বলেছেন যে, সেই আসরের সাথে মানসিক ব্যাধি জড়িত।[৩৫] সেন মিগেল শহরে এটি বাতিল হয়ে যাওয়ার পর থেকেই সালভাতিয়েরা শহর এবং গুয়ানাহুয়ানতো স্টেট -এ এটি আয়োজন করা হয়। এটির বর্তমান নাম “লা মার্কেসাদা” এবং এটি হয় সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে বা অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহে তিন দিন ধরে আয়োজিত হয়।

২০০২ এ পর্যন্ত পাম্পলোনা ষাঁড় দৌড়ের দুই দিন আগে একটি নগ্ন দৌড়ের আয়োজন করা হয়। এটি পিপল ফর দি ইথিকাল ট্রিটমেন্ট অফ অ্যানিম্যালস মতো পশু কল্যাণ দলগুলো সমর্থন করে, যারা নিষ্ঠুর এবং ষাঁড়ের লড়াইকে গৌরবজ্জল করে বলে ষাঁড় দৌড়ের বিরোধিতা করে।

আরও পড়ুনসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Fiske-Harrison, Alexander (editor) The Bulls Of Pamplona, Mephisto Press, 2018
  2. "Sanfermin guide: Running of the bulls"। Kukuxumusu। ২০০৭। ৫ মে ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০০৮ 
  3. "Bull-run hits liquor-fueled town", 2 February 2009. "The tradition, enacted in a handful of Mexican towns, traces its roots back to the centuries-old Pamplona bull-run in Mexico's former colonial power." Retrieved 4 March 2009.
  4. According to the Mayor of Pamplona in his foreword to the book Fiesta: How to Survive the Bulls of Pamplona
  5. "Running of the Bulls 2011 Live Stream, Pamplona San Fermin Festival Webcam Feed"PRLog। ৫ জুলাই ২০১১। 
  6. "The Bull Run"Pamplona.net। Ayuntamiento de Pamplona (Council of Pamplona)। ২০০৮। ২৯ মে ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০০৮ 
  7. Alonso, Gorka (১৫ জুলাই ২০১৩)। "Los encierros se saldan con 50 heridos trasladados y 6 corneados"Noticias de Navarra (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৬ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৩ 
  8. "Los encierros de 2012 dejan cuatro heridos por asta, los mismos que en 2011"Diario de Noticias (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৪ জুলাই ২০১২। ১৯ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০১৩ 
  9. "Quinta mujer corneada en los encierros de San Fermín" (স্পেনীয় ভাষায়)। Diario de Navarra। EFE। ১৪ জুলাই ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৩ 
  10. Doria, Javier (১৩ জুলাই ২০১৩)। "Montón en el encierro de Sanfermines, un peligro con historia"El País (স্পেনীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৩ 
  11. "Especialistas destacan que el dispositivo sanitario de los encierros "no se puede mejorar" porque es "espectacular""Diario de Navarra (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৮ জুন ২০০৯। ৪ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০১৩ 
  12. "La muerte de hoy es la número quince en la historia del encierro"Terra Noticias (স্পেনীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১২ 
  13. "The last person killed at Pamplona"BBC News। British Broadcasting Corporation। ১৪ জুলাই ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০০৯...Matthew Tassio...22 years old and came from Chicago...The...bull...hit him in the abdomen, severed a main artery, sliced through his kidney and punctured his liver 
  14. "Muere el pamplonés Fermín Etxeberria, de 63 años, herido en el encierro del 8 de julio"DiarioDeNavarra.es (স্পেনীয় ভাষায়)। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৩। ৩ আগস্ট ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০০৯ 
  15. "Bull gores man to death in Spain"BBC News। ১০ জুলাই ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০০৯The 27-year-old was gored in the neck on Friday, during the fourth bull run of the week-long San Fermin festival. Daniel Jimeno Romero, from Madrid, had emergency surgery in hospital but died of his injuries. Earlier reports had described the dead man as British....a veteran Spanish bull-runner died after a fall in 2003 
  16. "One dead in the running of the bull's in Pamplona"EncierroSanFermin.com। ১০ জুলাই ২০০৯। ১৪ জুলাই ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০০৯A runner died in today's running of the bulls in the northern spanish city of Pamplona, the bull running held during the famous San Fermin festivities. The man died after being gored in the neck and lung by a bull of the Jandilla ranch, named "Capuchino".The runner, Daniel Jimeno Romero from Alcalá de Henares (Madrid) was at the end of the street run 
  17. Encierro de toros in the Spanish-language Auñamendi Encyclopedia.
  18. ইন্টারনেট মুভি ডেটাবেজে Running with Bulls (ইংরেজি)
  19. 'Running Of The Bulls', Esquire TV
  20. Vadillo, Jose Luis. 'Así son los corredores de elite en San Fermín', El Mundo. 6 July 2015
  21. Editorial Staff. "Pamplona, bull running, bull gorings, Esquire TV and poetry from New York", The Pamplona Post. 10 July 2015
  22. "Running of the Bulls 2015: A Democratic Sport" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৭ জুলাই ২০১৫ তারিখে, Esquire TV
  23. Fiske-Harrison, Alexander, "The Bulls Of Pamplona
  24. Touristic leaflet. Festes de la Costa Blanca, Diputació Provincial d'Alacant, 2006, Alacant.
  25. "Taurine traditions"OT-Sommieres.com। Office de Tourisme du Pays de Sommières। ২২ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ আগস্ট ২০১৭ 
  26. Chambers Book of Days (1864)। W. & R. Chambers Ltd.। ১৮৩২।  13 November entry
  27. "Red Bull to visit Pamplona for Bull running"GPUpdate.net। ১১ জুন ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১১ 
  28. Marszalek, Keith I. (২৪ জুন ২০০৭)। "Big Easy Rollergirls to reinact [sic] famed bull run"Blog.NOLA.com। ২৫ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১১ 
  29. "San Fermín in Nueva Orleans, The Running of the Roller Girls"Laughing Squid। ২০ জুলাই ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১১ 
  30. Coviello, Will। "Running of the Bulls 2012"Gambit Weekly। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০১২ 
  31. "Home2018 - EDP San Fermín Marathon"SanFerminMarathon.com 
  32. Article sobre la crueltat dels bous al carrer. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে (কাতালান ভাষায়)
  33. Article sobre la popularitat dels bous al carrer a les terres de l'Ebre. (কাতালান ভাষায়)
  34. "No More Bull (Running, That Is) in San Miguel de Allende," Austin American-Statesman, 24 May 2007. Retrieved 4 March 2009