শেষ থেকে শুরু

ভারতীয় বাংলা ভাষার অ্যাকশন-ড্রামা চলচ্চিত্র

শেষ থেকে শুরু ২০১৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি ভারতীয় বাংলা ভাষার অ্যাকশন-ড্রামা চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন রাজ চক্রবর্তী। চলচ্চিত্রটির গল্প, চিত্রনাট্য এবং সংলাপগুলি আদিত্য সেনগুপ্ত লিখেছিলেন। প্রযোজনা করেছেন জিৎ। এতে শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেছেন জিৎ, কোয়েল মল্লিক এবং রিতাভরি চক্রবর্তী। [১]

শেষ থেকে শুরু
শেষ থেকে শুরু চলচ্চিত্রের পোস্টার
Sesh Theke Shuru
পরিচালকরাজ চক্রবর্তী
প্রযোজকজিৎ
রচয়িতাআদিত্য সেনগুপ্ত
চিত্রনাট্যকারআদিত্য সেনগুপ্ত
কাহিনিকারআদিত্য সেনগুপ্ত
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারঅর্ক
চিত্রগ্রাহকমনস গাংগুলি
সম্পাদকএমডি কালাম
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকগ্রাসরুট এন্টারটেইনমেন্টস
মুক্তি৫ জুন ২০১৯
দেশভারত
ভাষাবাংলা

চলচ্চিত্রটির শুটিং লন্ডন, ঢাকা এবং কলকাতা জুড়ে হয়েছে। সিনেমাটি দর্শকদের কাছ থেকে ইতিবাচক পর্যালোচনা পেয়েছে। সিনেমাটি ওয়াটার অ্যান্ড ফায়ার উপন্যাস থেকে রূপান্তরিত হয়েছে। এটি বাংলাদেশি মুসলমানদের মধ্যে কিছু বিতর্ক সৃষ্টি করেছিল। এটি জিৎ এর পঞ্চাশতম চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটিতে অনেকদিন পর জিৎ এবং কোয়েল মল্লিক কে একসাথে জুটি বাধতে দেখা যায়।

কাহিনি

সম্পাদনা

লন্ডন যাওয়ার ফ্লাইটে পরিচয় হয় মাহিদ (জিৎ) ও পূজারিণীর (কোয়েল)। দুজনে দুজনকে পছন্দ করতে শুরু করে। খুব তাড়াতাড়িই সেই পছন্দ গড়ায় প্রেম অবধি। কিন্তু এইসব কিছুর পেছনেই লুকিয়ে থাকে মাহিদের জীবনের বিশাল সত্যি। পারিবারিক অশান্তির জেরে নিজের কাকাকেই ভুল করে খুন করে ফেলে মাহিদ। এই ঘটনার পরই নিজের ভাইকে নিয়ে লন্ডনে চলে আসে মাহিদ। সেখানেই তার দেখা পূজারিণীর সঙ্গে ও শুরু হয় মাহিদের জীবনের এক নতুন অধ্যায়ের। কিন্তু হঠাৎই গর্ভবতী হয় পূজারিণী। ঠিক সেই সময়তেই কিছু পারিবারিক সমস্যার কারণে মাহিদকে ফিরে যেতে হয় ঢাকা।কাকাকে ভুল করে গুলি করার অপরাধে ও পারিবারিক ব্যাবসার সুবিধার্থে মাহিদকে দেওয়া হয় এক অদ্ভুত শর্ত। যার দরুণ মাহিদকে বিয়ে করতে হয় ফরজানাকে (ঋতাভরী)। এদিকে মাহিদের জামাইবাবু পূজারিণীকে মাহিদের বিরুদ্ধে ভুল বোঝায়। মাহিদ লন্ডনে ফিরে এসে পূজারিণীকে অনেক খোঁজার চেষ্টা করে কিন্তু একজন খুনির সঙ্গে দেখা করতে রাজি হয় না পূজারিণী।

মনের দুঃখে পূজারিণী ফিরে যায় কলকাতা। জীবন যুদ্ধ শুরু হয় দুপক্ষেরই। তার বাবা মেয়েকে প্রেগনেন্ট দেখে হতভম্ভ হয়ে যায় এবং তার বাবা তার উপর অভিমান করে তার সাথে কথা বলে না। এইভাবে কিছুদিন যাওয়ার পর একদিন পুজার পেটের ব্যাথায় মাটিতে পড়ে যায়। মেয়ের এই অবস্থা দেখে বাবা সহ্য করতে না পেরে তাকে হসপিটালে নিয়ে যায়।

বাচ্চা হওয়ার পর নাতির দিকে চেয়ে পুজার বাবা সব মেনে নেই। এবং নাতির নাম রাখে মাহির। এদিকে মাহিরের বাবা-মা পূজার সাথে লন্ডনে ঘটে যাওয়া ঘটনার কথা জানতে পেরে মাহিরের বিয়ে দিয়ে দেয়।

অভিনয়

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Sesh Thekhe Shuru Showtimes"টাইমস অফ ইন্ডিয়া। ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  2. "Saurav Chakraborty in Sesh Theke Suru - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫