প্রধান মেনু খুলুন
শিল্পকলা জাদুঘর

একটি শিল্প যাদুঘর বা শিল্প গ্যালারী হল প্রদর্শনীর জন্য ব্যবহৃত একটি স্থান, সাধারণত দৃশ্য শিল্পের জন্য। যাদুঘর প্রকাশ্য বা ব্যক্তিগত হতে পারে, তবে যে বিষয়টি যাদুঘরকে আলাদা করে সেটি হল সংগ্রহের মালিকানা। অঙ্কনচিত্রই সবচেয়ে বেশি প্রদর্শিত শিল্প সামগ্রী ; তাছাড়াও, ভাস্কর্য, আলংকারিক শিল্প, আসবাবপত্র, বস্ত্র, পোশাক, অঙ্কন, মোমরং, জল রং, কোলাজ, প্রিন্ট, শিল্পীদের এর বই, ফটোগ্রাফ, এবং স্থাপনা শিল্পও নিয়মিত প্রদর্শিত হয়। যদিও প্রাথমিকভাবে দৃশ্য শিল্পকর্ম প্রদর্শনের স্থান প্রদানের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়, তবে শিল্প গ্যালারীকে অন্যান্য শৈল্পিক কাজকর্মের জন্যও কখনও কখনও ব্যবহার করা হয়, যেমন পারফর্মিং আর্টস, সঙ্গীতানুষ্ঠান বা কবিতা পাঠ।

গ্যালারীর প্রকার শব্দটি পাবলিক এবং ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠানগুলির সাথে সম্পর্কিত। পাবলিক গ্যালারী অলাভজনক হয়, এবং এখানে কিছু নির্দিষ্ট শিল্পকর্মই প্রদর্শিত হয়। ব্যক্তিগত সংগ্রহশালা একপ্রকারের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান যারা শিল্পকর্ম বিক্রয় করে। যাই হোক, দুপ্রকার গ্যালারীই ভ্রাম্যমান এবং সাময়িক প্রদর্শনী আয়োজন করতে পারে, অন্যকোন সংগ্রহশালা থেকে শিল্পসামগ্রী ঋণ নিয়েও।

ব্যাপকভাবে, উত্তর আমেরিকায়, গ্যালারী শব্দটি বলতে ব্যক্তিগত গ্যালারীই বোঝায়, যেখানে একটি পাবলিক গ্যালারী সম্ভবত একটি শিল্প যাদুঘর। ব্রিটিশ এবং কমনওয়েলথ ব্যবহারে, গ্যালারী শব্দটি বলতে পাবলিক গ্যালারীই বোঝায় , যা একে ব্যক্তিগত বা বাণিজ্যিক গ্যালারি থেকে পৃথক করে, এবং শুধুমাত্র যাদুঘর বলতে ঐতিহাসিক, প্রত্নতাত্ত্বিক বা বৈজ্ঞানিক শিল্পকর্মের সংগ্রহশালাকে বোঝায়।

যাদুঘরের গ্যালারী যাদুঘরের কক্ষ যেখানে জনসাধারণের জন্য শিল্প প্রদর্শন করা হয়, সেখানে প্রায়ই গ্যালারী হিসাবে উল্লেখিত হয়, উদাহরণস্বরূপ, প্রাচীন মিশরীয় শিল্পের জন্য নিবেদিত কক্ষকে মিশরীয় গ্যালারী বলা হয়।

কনটেম্পোরারি গ্যালারী

কনটেম্পোরারি শিল্প গ্যালারী বলতে ব্যক্তিগত জন্য লাভ-জনক বাণিজ্যিক গ্যালারীকে বোঝায়। এই বড় শহুরের কেন্দ্রে এই ধরনের গ্যালারি একাধিক থাকতে পারে। ছোট শহরে কমপক্ষে একটি গ্যালারী থাকে, তবে মফস্বল, গ্রাম বা দূরবর্তী এলাকায় যেখানে শিল্পীরা একত্রিত হন, সেখানেও এই ধরনের গ্যালারী দেখা যায়। উদাহরণস্বরূপ, তাওস আর্ট কলোনি এবং সেন্ট আইভস, কর্নওয়াল।

কনটেম্পোরারি শিল্প গ্যালারী প্রায়শই সাধারন জনগনের জন্য বিনামূল্য উন্মুক্ত থাকে, যদিও কিছু -কিছু আধা ব্যক্তিগতও হয়। শিল্পদ্রব্য বিক্রয় করে তারা মোটামুটি পঁচিশ থেকে পঞ্চাশ শতাংশ লাভ করে। তবে অনেক অলাভ-জনক বা সমষ্টিগত প্রদর্শনশালাও আছে। টোকিওর মতো কিছু শহরে কিছু গ্যালারী শিল্পীদের প্রতিদিন একদরে দেয়, কিন্তু কিছু আন্তর্জাতিক শিল্প বাজারে অপ্রচলিত। গ্যালারিগুলি প্রায়ই একক প্রদর্শনীর আয়োজন করে। তত্ত্বাবধারকরা প্রায়ই একটি নির্দিষ্ট বিষয়, শিল্পের প্রবণতা, বা একদল শিল্পীদের গোষ্ঠী নিয়ে একটি বার্তা সঙ্গে দলগত প্রদর্শনী করে থাকেন। গ্যালারিগুলি মাঝে মাঝে বিশিষ্ট শিল্পীদের নিয়মিত প্রদর্শনীর সুযোগ দিয়ে থাকে।

গ্যালারী বলতে শিল্পী সমবায় বা শিল্পী কতৃত পরিচালিত স্থানকেও বোঝায়, যেটি প্রায়শই (উত্তর আমেরিকা আর পশ্চিম ইউরোপের) আরও গণতান্ত্রিক ও নির্বাচন প্রক্রিয়ায় কাজ করে থাকে। এ রকম গ্যালারীর বোর্ড পরিচালন কমিটি থাকে এবং স্বেচ্ছাসেবী ও মাইনে করা কর্মী থাকে যারা প্রদর্শনীর নির্বাচন ও তত্ত্বাবধান করে এবং যাতে অনেক সময় শিল্প নির্বাচনে ব্যবসায়িক দক্ষতার অভাব থাকে।

ভ্যানিটি গ্যালারী ভ্যানিটি গ্যালারী হল একটি আর্ট গ্যালারী যা শিল্পীদের কাছ থেকে তাদের শিল্প প্রদর্শনের জন্য অর্থ নিয়ে থাকে, অনেকটা ভ্যানিটি প্রেসের মত যেখানে লেখকরা অর্থ দিয়ে তাদের লেখা প্রকাশ করে। এখানে অনেকক্ষেত্রে সঠিক তত্ত্বাবধানের অভাব থাকে এবং যত বেশি সংখ্যক শিল্পীর অন্তর্ভুক্তকরণ মূল লক্ষ হয়ে দাঁড়ায়। বেশিরভাগ শিল্প পেশাদারই জীবনপঞ্জি দেখে শিল্পীদের সনাক্ত করতে সক্ষম হন।