শালবাহান দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়

শালবাহান উচ্চ বিদ্যালয় বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের এর একটি ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ।

শালবাহান উচ্চ বিদ্যালয়
অবস্থান

স্থানাঙ্ক২৬°৩১′৪৮″ উত্তর ৮৮°২৪′৩৭″ পূর্ব / ২৬.৫২৯৯২° উত্তর ৮৮.৪১০৩১° পূর্ব / 26.52992; 88.41031স্থানাঙ্ক: ২৬°৩১′৪৮″ উত্তর ৮৮°২৪′৩৭″ পূর্ব / ২৬.৫২৯৯২° উত্তর ৮৮.৪১০৩১° পূর্ব / 26.52992; 88.41031
তথ্য
ধরনআধা-সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৫৭
বিদ্যালয় বোর্ডদিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড
বিদ্যালয় জেলাপঞ্চগড়
কর্তৃপক্ষমোঃ মস্তান‌ছের রহমান
প্রধান শিক্ষকমো: আবু বক্কর সিদ্দিক কাবুল
শ্রেণী৬ষ্ট থেকে ১০ম
লিঙ্গবালক ও বা‌লিকা
বয়সসীমা১২ থে‌কে ১৭ বছর
শিক্ষার্থী সংখ্যা৫০০ (প্রায়)
ভাষার মাধ্যমবাংলা
প্রত্যয়ন১৯৫৭

ইতিহাসসম্পাদনা

বিদ্যালয়টি ১৯৫৭ সালে ডঃ মোহাম্মদ আলী, মোঃ সিরাজুল হক, মো: মস্তানছের রহমান ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এর উ‌দ্দো‌গে প্রতিষ্ঠিত হয়। ডঃ মোহাম্মদ আলী ছি‌লেন বিদ্যালয় কমিটির প্রথম সভাপ‌তি। মোঃ সিরাজুল হক ছিলেন বিদ্যালয় কমিটির প্রথম স‌চিব(সেক্রেটারি)। মোঃ মস্তানছের রহমান বিদ্যালয়ের জমিদাতা। তখনকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এলাকার নামের সাথে মিলিয়ে বিদ্যালয়টির নাম শালবাহান উচ্চ বিদ্যালয় রাখেন। বিদ্যালয়টি তেঁতুলিয়া উপজেলার সর্ববৃহৎ বাজার শালবাহান হাট এ অবস্থিত।

ভবন ও কাঠামোসম্পাদনা

বর্তমানে বিদ্যালয়ের জায়গার পরিমান ৮ একর (দিঘি ও নিজস্ব বাজার সহ)। বিদ্যালয়ের মোট ভবন ৪টি (১‌টি নির্মানাধীন),

  • ১টি টিনশেড পুরাতন ভবন - একতালা ৫ কক্ষ বিশিষ্ট।
  • ১টি দপ্তর ভবন - একতালা ৩ কক্ষ বিশিষ্ট।
  • ১টি দোতালা ভবন - দোতালা ৬ কক্ষ বিশিষ্ট।
  • ১টি নতুন কারিগরি ভবন নির্মানাধীন।

বিদ্যালয়ে ১টি সাধারণ কক্ষ, ১টি পাঠাগার, ১টি গবেষণাগার, ১টি কম্পিউটার ল্যাব, শিক্ষক বিশ্রামাগার সহ ৮টি শ্রেণী কক্ষ আছে। বিদ্যালয়ের নিজস্ব ৩ একরের একটি দিঘি আছে। খেলার জন্য ৪ একরের একটি নিজস্ব মাঠ আছে যা কৈমারী মাঠ নামে পরিচিত। এবং ৩২ দোকান বিশিষ্ট একটি মা‌র্কেট আ‌ছে যা স্কুল মার্কেট নামে পরিচিত।

শিক্ষাদানসম্পাদনা

এ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য বোর্ড অনুমোদিত ২ টি বিভাগ (বিজ্ঞান + মানবিক) ছি‌লো। এখন তার সা‌থে নতুন ক‌রে কা‌রিগ‌রি যোগ করা হ‌য়ে‌ছে।

সহশিক্ষা কার্যক্রমসম্পাদনা

বিদ্যালয়টিতে ছাত্রদের সমন্বয়ে একটি স্কাউট দল, সততা সংঘ ও সহশিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখার জন্য একটি ক্লাব রয়েছে। এদের সমন্বয়ে বিদ্যালয়ে পরিষ্কার পরিছন্নতা অভিযান, বনায়ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

সফলতাসম্পাদনা

বিদ্যালয়য়ের ছাত্ররা এস.এস. সি ফলাফলে ভালো ফল অর্জন করেছে। এছাড়া আন্তস্কুল খেলাধুলায় শিক্ষার্থীরা উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে খেলে আসছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা