প্রধান মেনু খুলুন

শার্লি নাইট হপকিন্স (ইংরেজি: Shirley Knight Hopkins; জন্ম: ৫ জুলাই ১৯২৬) হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী। তিন পঞ্চাশের অধিক চলচ্চিত্রে কেন্দ্রীয় ও চরিত্র অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করেছেন। এছাড়া তিনি টেলিভিশন চলচ্চিত্র ও ধারাবাহিক এবং ব্রডওয়ে মঞ্চ ও অফ-ব্রডওয়ে মঞ্চে অভিনয় করেছেন। তিনি অ্যাক্টরস স্টুডিওর একজন সদস্য।

শার্লি নাইট
Shirley Knight 1960s.JPG
১৯৬০-এর দশকের নাইট
স্থানীয় নাম
Shirley Knight
জন্ম (1926-07-05) ৫ জুলাই ১৯২৬ (বয়স ৯৩)
জাতীয়তামার্কিন
অন্য নামশার্লি নাইট হপকিন্স
যেখানের শিক্ষার্থীইউচিটা স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৫৯-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীজিন পারসন
(বি. ১৯৫৯; বিচ্ছেদ. ১৯৬৯)

জন হপকিন্স
(বি. ১৯৬৯; মৃ. ১৯৯৮)
সন্তান২ (কেইটলিন হপকিন্স সহ)
ওয়েবসাইটshirleyknight.org

নাইট দ্য ডার্ক অ্যাট দ্য টপ অব দ্য স্টেয়ার্স (১৯৬০) ও সুইট বার্ড অব ইয়থ (১৯৬২) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে দুইবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেছেন। ১৯৬০-এর দশকে কেন্দ্রীয় ভূমিকায় তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো হল দ্য কাউচ (১৯৬২), হাউজ অব ওমেন (১৯৬২), দ্য কাউন্টারফেইট কিলার (১৯৬৮) ও দ্য রেইন পিপল (১৯৬৯)। তিনি ১৯৬৬ সালে ব্রিটিশ চলচ্চিত্র ডাচম্যান-এ অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ভল্পি কাপ অর্জন করেন।

১৯৭৬ সালে নাইট কেনেডিস চিলড্রেন মঞ্চনাটকে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ চরিত্র অভিনেত্রী বিভাগে টনি পুরস্কার লাভ করেন। পরবর্তী বছরগুলোতে তিনি এন্ডলেস লাভ (১৯৮১), অ্যাজ গুড অ্যাজ ইট গেটস্‌ (১৯৯৭), ডিভাইন সিক্রেটস্‌ অব দ্য ইয়া-ইয়া সিস্টারহুড (২০০২) ও গ্র্যান্ডমাস বয় (২০০৬) চলচ্চিত্রে পার্শ্ব ভূমিকায় অভিনয় করেন। টেলিভিশনে তার কাজের জন্য তিনি আটটি প্রাইমটাইম এমি পুরস্কারের মনোনয়ন হতে তিনটি পুরস্কার লাভ করেন এবং একবার সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন।

পরিচ্ছেদসমূহ

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

নাইট ১৯২৬ সালের ৫ই জুলাই কানসাসের ম্যারিয়ন কাউন্টির গোসেলে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা নোয়েল জনসন রাইট একজন তেল কোম্পানির নির্বাহী এবং মাতা ভার্জিনিয়া (প্রদত্ত নাম: ওয়েস্টার)।[২] ৮ বছর বয়সে তিনি বেতারে গান করেন এবং রাজ্য-ভিত্তিক প্রতিভা অন্বেষণ অনুষ্ঠানে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন।[৩] ১৪ বছর বয়সে তার রচিত ছোটগল্প একটি জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। নাইট ফিলিপস বিশ্ববিদ্যালয় ও উইচিটা স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তিনি এইচবি স্টুডিওতে আরউইন পিসকাটর, লি স্ট্রাসবার্গ, ও উটা হ্যাগেনের সাথে অভিনয়ের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।[৩][৪]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

নাইট দুইবার বিয়ে করেন। তিনি ১৯৫৯ সালে অভিনেতা ও প্রযোজক জিন পারসনকে বিয়ে করেন। ১৯৬৯ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে।[৫] ১৯৬৯ সালে তিনি লেখক জন হপকিন্সকে বিয়ে করেন। হপকিন্স ১৯৯৮ সালে মারা যান। তার দুই কন্যা, কেইটলিন হপকিন্স একজন অভিনেত্রী এবং সোফি হপকিন্স একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।[৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Gene Persson dies at 74"ভ্যারাইটি (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ জুন ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৮ 
  2. "Shirley Knight Biography (1936?-)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৯ 
  3. "Shirley Knight biography and filmography | Shirley Knight movies"ট্রিবিউট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৯ 
  4. "HB Studio - Notable Alumni | One of the Original Acting Studios in NYC"এইচবি স্টুডিও (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৯ 
  5. "Gene Persson dies at 74"ভ্যারাইটি (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ জুন ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৯ 
  6. "ACTORS' DIALOGUE: Shirley Knight & Kaitlin Hopkins"ব্যাকস্টেজ। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০১। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা