শান্তি আন্দোলন

শান্তি আন্দোলন হচ্ছে একটি সামাজিক আন্দোলন যার মাধ্যমে একাধিক আদর্শ অর্জনের চেষ্টা হয় যেমন কোনো নির্দিষ্ট যুদ্ধ বা সব যুদ্ধের সমাপ্তি, নির্দিষ্ট জায়গা বা অবস্থার ধরনে আন্তর্মানবিক সহিংসতা সর্বনিম্নকরন এবং প্রায়ই এটা সম্পর্কিত থাকে বিশ্বশান্তির সাথে। এসব উদ্দেশ্য পূরনের উপায়তে থাকে শান্তিবাদ, অহিংস প্রতিরোধ, বৈঠক, বর্জন, শান্তি শিবির, নৈতিক ব্যবসা, যুদ্ধবিরোধী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের সমর্থন, সামরিক-শিল্প ব্যবস্থা থেকে লাভ সরানোর আইন তৈরি, অস্ত্র নিষিদ্ধকরন, উন্মুক্ত সরকার ও স্বচ্ছতার ব্যবস্থা তৈরি, প্রত্যক্ষ গনতন্ত্র, যুদ্ধাপরাধ ও যুদ্ধ তৈরির ষড়যন্ত্র প্রকাশকারকদের সমর্থন করা, মিছিল এবং জাতীয় পর্যায়ে রাজনৈতিক দালালির সংগঠন তৈরি। পলিটিকাল কো ওপারেটিভ হচ্ছে এরকম এক সংস্থার উদাহরণ যা চেষ্টা করে সব শান্তি আন্দোলন সংস্থা ও সবুজ সংস্থাকে এক করে ফেলবার, যাদের হয়তো কিছু বিচ্ছিন্ন লক্ষ্য আছে, কিন্তু তাদের সবারই আছে শান্তি ও মানবজাতি চলনের সাধারণ লক্ষ্য। কিছু শান্তিকর্মীদের চিন্তার ব্যাপার হচ্ছে শান্তি অর্জনের চ্যালেঞ্জগুলো যখন যারা এসবের বিপক্ষে, তারা সহিংসতা ব্যবহার করে তাদের যোগাযোগ ও ক্ষমতায়নের মাধ্যম হিসাবে।

 শান্তির আন্দোলনের একটি জার্মান জার্নাল ডাই ফ্রিডেনস ওয়ার্টের প্রচ্ছদ, # ১১, ১৯১৩ প্রকাশিত

তথ্যসূত্রসম্পাদনা