প্রধান মেনু খুলুন
দুই প্রকারের ইরানি শরবত (ডান দিকে) এবং সাথে ইরানি চা

শরবত (আরবি: شربة শর্‌বা; ফার্সি/উর্দু: شربت শরবত; তুর্কি: Şerbet) হল মধ্যপ্রাচ্যদক্ষিণ এশিয়ায় ফল অথবা ফুলের পাঁপড়ি থেকে প্রস্তুত একটি জনপ্রিয় পানীয়।[১] এটি সাধারণত মিষ্টি হয় এবং ঠান্ডা পরিবেশন করা হয়। কখনও এটি ঘন অবস্থাতে পরিবেশিত হয় এবং চামচ দ্বারা খাওয়া হয় আবার কখনও জল মিশিয়ে পাতলা অবস্থাতেও পরিবেশন করা হয়ে থাকে।

সাধারণত বিভিন্ন জনপ্রিয় শরবত প্রস্তুত করা হয় গোলাপ, চন্দন, বেল, জবা, লেবু, কমলালেবু, আম এবং আনারস থেকে। অধিকাংশ শরবতই পাকিস্তান, তুরস্ক, সৌদি আরব, আফগানিস্তান, ভারত এবং বাংলাদেশে বহুল প্রচলিত।

ব্যুৎপত্তিসম্পাদনা

 
ডাব শরবত

শরবত শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে ফার্সি "شربت" (শরবত) এবং তুর্কি "şerbet" (শেরবেত) থেকে। ফার্সিতুর্কি শব্দদু'টির উৎপত্তি হয়েছে আরবি "شربة" (শর্‌বা অর্থাৎ "পানীয়") এবং "شرب" (শরিবা অর্থাৎ "পান করা") থেকে।

ইতিহাসসম্পাদনা

দ্বাদশ শতাব্দীতে রচিত পুস্তক যাখিরেয়ে খোয়ারায্‌মশাহী-তে পারস্যের পদার্থবিদ্‌ ইসমাইল গরগানি ইরানে প্রচলিত বিভিন্ন প্রকারের শরবতের উল্লেখ করে তাদের ব্যাখ্যা করেন। ভারতীয় উপমহাদেশে শরবতের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পায় মূলতঃ মুঘল আমলে

মধ্য এশিয়াসম্পাদনা

 
বাদাম সহযোগে মধ্য এশীয় শরবত

মধ্য এশিয়ায় "শরবত" এবং "আইসক্রিম" অভিন্ন না হলেও সেখানে শরবত কঠিন অবস্থায় পরিবেশন করা হয়।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Molavi, Afshin (২০০২)। Persian Pilgrimages। W. W. Norton & Company। পৃষ্ঠা 113। আইএসবিএন 0393051196 
  2. http://culinar.ivest.kz/recept.php?id=1208[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা