প্রধান মেনু খুলুন

লেই কাস্পারেক

নিউজিল্যান্ডীয় প্রমিলা ক্রিকেটার

লেই মেগান কাস্পারেক (ইংরেজি: Leigh Kasperek; জন্ম: ১৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯২) এডিনবরায় জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট নিউজিল্যান্ডীয় প্রমিলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। এর পূর্বে ২০০৭ থেকে ২০১২ মেয়াদে তিনি স্কটল্যান্ড ক্রিকেট দলে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১] দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন। এছাড়াও ডানহাতে অফ স্পিন বোলিংয়ে পারদর্শী লেই কাস্পারেক

লেই কাস্পারেক
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামলেই মেগান কাস্পারেক
জন্ম (1992-02-15) ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২ (বয়স ২৭)
এডিনবরা, স্কটল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ স্পিন
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক২৮ জুন ২০১৫ 
নিউজিল্যান্ড বনাম ভারত
টি২০আই অভিষেক১১ জুলাই ২০১৫ 
নিউজিল্যান্ড বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১১-২০১২ওয়েস্টার্ন ফিওরি
২০১২-২০১৩এসেক্স
২০১২-২০১৩ওয়েলিংটন ব্লেজ
২০১৩-২০১৫ওতাগো স্পার্কস
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৫ নভেম্বর ২০১৫

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

স্কটল্যান্ডসম্পাদনা

১৫ বছর বয়সে স্কটল্যান্ড দলে অভিষেক ঘটে কাস্পারেকের। ২০০৭ সালে কাউন্টি চ্যালেঞ্জ কাপের ঐ খেলায় স্কটল্যান্ডের প্রতিপক্ষ ছিল ইংরেজ কাউন্টি দল।[২] ঐ বছরের শেষদিকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশীপে আয়ারল্যান্ডনেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে অংশ নেন তিনি।[৩]

২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে স্কটল্যান্ড দলের সদস্যরূপে তাকে মনোনীত করা হয়। পাঁচ খেলার মধ্যে চারটিতে অংশ নিলেও মাত্র চার রান সংগ্রহ করেন ও ১০ ওভারে ৫৭ রান দিয়ে কোন উইকেট লাভে ব্যর্থ হন।[৪]

নিউজিল্যান্ডসম্পাদনা

তিন বছর নিউজিল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে অংশ নেয়ার পর জাতীয় দল নির্ধারণে আইসিসি'র মানদণ্ডের মুখোমুখি হন। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে পদার্পণকালে এ সংক্রান্ত কোন লক্ষ্য নির্দিষ্ট করা ছিল না।

মে, ২০১৫ সালে অপ্রত্যাশিতভাবে ভারত সফরে যাবার জন্য নিউজিল্যান্ড দলের সদস্য হন তিনি।[৫] সফরের পাঁচ ওডিআই সিরিজের প্রত্যেকটিতেই অংশ নেন। এছাড়াও তিন টি২০আই সিরিজসহ সফরের সবগুলো খেলাতেই তার অংশগ্রহণ ছিল।[৬][৭] অভিষেকের প্রথম ওডিআইয়ে নির্ধারিত ১০ ওভারে ৩/৩৯ লাভ করেন।[৮] ২০১৫ সালের শেষদিকে সফরকারী শ্রীলঙ্কা দলের বিপক্ষে অংশ নেন। খেলায় তিনি প্রথমবারের মতো চার উইকেট পান।[৯] ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে তিন ওভারে ৪/৭ পান। তার তুলনায় কেবলমাত্র এমি স্যাটার্দওয়েট সেরা বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছেন।[১০]

আসন্ন ২০১৭ সালের আইসিসি মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপকে ঘিরে সুজি বেটসের অধিনায়কত্ব ১৫-সদস্যের নিউজিল্যান্ড দলের তালিকা প্রকাশ করা হয়।[১১] এতে তিনিও অন্তর্ভূক্ত হন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Steve Hepburn (13 May 2015). "Cricket: Long and winding road to call-up"Otago Daily Times. Retrieved 5 October 2015.
  2. Women's miscellaneous matches played by Leigh Kasperek – CricketArchive. Retrieved 5 October 2015.
  3. Scotland women's matches played by Leigh Kasperek – CricketArchive. Retrieved 5 October 2015.
  4. Records / ICC Women's World Cup Qualifying Series, 2007/08 - Scotland Women / Minor cricket (one-day/limited overs) / Batting and bowling averages – ESPNcricinfo. Retrieved 5 October 2015.
  5. "Leigh Kasperek included in NZ women squad" – ESPNcricinfo. Retrieved 5 October 2015.
  6. Women's ODI matches played by Leigh Kasperek – CricketArchive. Retrieved 5 October 2015.
  7. Women's International Twenty20 matches played by Leigh Kasperek – CricketArchive. Retrieved 5 October 2015.
  8. India Women v New Zealand Women, ICC Women's Championship 2014 to 2016/17 – CricketArchive. Retrieved 5 October 2015.
  9. "Priest ton sets up big New Zealand Women win" – ESPNcricinfo. Retrieved 5 November 2015.
  10. (28 February 2016). "Kasperek's four-for sets up easy win for New Zealand" – ESPNcricinfo. Retrieved 28 February 2016.
  11. "NZ pick 16-year-old Kerr for World Cup"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৭ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা