লক্ষ্মণসেন

মধ্যযুগীয় বাংলার সেন রাজবংশের চতুর্থ রাজা

লক্ষ্মণ সেন মধ্যযুগীয় বাংলার সেন রাজবংশের চতুর্থ রাজা। তিনি ১১৭৮ হতে ১২০৬ খ্রীষ্টাব্দ পর্যন্ত শাসন করেন। তার পূর্বসূরী ছিলেন তার পিতা বল্লাল সেন[১] লক্ষ্মন সেন তার রাজত্বকে কামরূপ (বর্তমানে অসম), কলিঙ্গ (বর্তমান উড়িষ্যা), কাশী এবং দিল্লী[২] পর্যন্ত বিস্তৃত করেন। ১২০৩ খ্রীষ্টাব্দে দিল্লী সালতানাতের তুর্কী সেনা ইখতিয়ার উদ্দিন মুহম্মদ বখতিয়ার খলজীর বাহিনীর হাতে গৌড়ের পতন হয়। লক্ষণ সেন পূর্ব বঙ্গের বিক্রমপুরে পালিয়ে যান এবং পূর্ব বঙ্গে রাজত্ব করতে থাকেন। সাহিত্যেকর্মে তার উৎসাহ ছিল। তিনি তার বাবা বল্লাল সেন ('দানসাগর' ও 'অদ্ভুতসাগর')-এর অসম্পূর্ণ গ্রন্থ ‘অদ্ভুত সাগর’ সমাপ্ত করেন।[৩] লক্ষণ সেন ১১১৯ খ্রিস্টাব্দে সিংহাসন আরোহণ করেন এবং এই সালেই লক্ষণাব্দ বা লক্ষণ সম্বৎ প্রচলন করেন।[৪]

লক্ষ্মণ সেন
বাংলার রাজা
রাজত্ব১১৭৮ – ১২০৬
পূর্বসূরিবল্লাল সেন
উত্তরসূরিবিশ্বরুপ সেন
দাম্পত্য সঙ্গীতন্দ্রা দেবী
বংশধরবিশ্বরুপ সেন
কেশব সেন
রাজবংশসেন রাজবংশ
পিতাবল্লাল সেন
মাতারাম দেবী

স্থাপত্য নিদর্শনসম্পাদনা

লকমা রাজবাড়ী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা