র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন

স্বাধীনতা পুরস্কার প্রাপ্ত এলিট বাংলাদেশি পুলিশ ইউনিট
(র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান থেকে পুনর্নির্দেশিত)

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন বা র‍্যাব বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাস দমনের উদ্দেশ্যে গঠিত চৌকস বাহিনী। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত এই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ২০০৪ সালের ২৬ মার্চ গঠিত হয় এবং একই বছরের ১৪ এপ্রিল (পহেলা বৈশাখ) তাদের কার্যক্রম শুরু করে। বাংলাদেশ পুলিশ, বাংলাদেশের সেনা, নৌবাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে র‍্যাব গঠিত হয়। র‍্যাবের সদর দপ্তর ঢাকার উত্তরায় অবস্থিত।

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন
র‍্যাবের লোগো
র‍্যাবের লোগো
সংক্ষেপর‍্যাব
নীতিবাক্যবাংলাদেশ আমার অহংকার
সংস্থা পরিদর্শন
প্রতিষ্ঠাকাল২৬ মার্চ, ২০০৪
কর্মচারী১২,০০০ (প্রায়) কর্মী[১]
অঞ্চল কাঠামো
পরিচালনার অঞ্চল বাংলাদেশ
সাধারণ প্রকৃতি
বিশেষজ্ঞ অধিকারভুক্ত অঞ্চল
  • সন্ত্রাস দমন, বিশেষ অস্ত্র অভিযান। আন্তর্জাতিকভাবে সুরক্ষিত ব্যক্তিদের সুরক্ষা, অন্যান্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, এবং/অথবা তাৎপর্যপূর্ণ রাষ্ট্রীয় সম্পত্তির সুরক্ষা।
পরিচালনামূলক কাঠামো
প্রধান কার্যালয়কুর্মিটোলা, ঢাকা
সংস্থার কার্যনির্বাহকগণ
  • অতিঃ আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, মহাপরিচালক
  • কর্নেল আনোয়ার লতিফ খান, অতিঃ মহাপরিচালক (ওপিএস)
  • ডিআইজি মো. জামিল আহমেদ, অতিঃ মহাপরিচালক (এডমিন)
মাতৃ-সংস্থাবাংলাদেশ পুলিশ
ওয়েবসাইট
www.rab.gov.bd

র‍্যাব মনোগ্রামসম্পাদনা

 
পহেলা বৈশাখে দায়িত্বরত অবস্থায়।

১। জাতীয় ফুল (শাপলা)- র‍্যাবের মনোগ্রামের শীর্ষভাগে অবস্থিত জাতীয় ফুল শাপলা। শাপলা বাংলাদেশের জাতীয় ফুল এবং বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক।

২। মনোগ্রামের সবুজ রংয়ের জমিনে লাল সূর্য- অনন্ত সবুজের দেশ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার সাথে মিল রেখে র‍্যাবের মনোগ্রামের সবুজ ও লাল রংয়ের জমিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এলিট ফোর্স র‍্যাব এর প্রতিটি সদস্যের হৃদয়ে রয়েছে বাংলাদেশের পতাকার গৌরব সমুন্নত রাখার ‍বজ্র কঠিন প্রতিজ্ঞা।

৩। জাতীয় স্মৃতিসৌধ- মনোগ্রামের কেন্দ্রে অবস্থিত স্মৃতিসৌধ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব এবং শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অন্যান্য শহীদের আত্মত্যাগের প্রতীক। জাতীয় স্মৃতিসৌধ শহীদের লালিত স্বপ্নের সুখী বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার র‍্যাব সদস্যদের স্মরণ করিয়ে দেয়।

৪। ধানের শীষ- র‍্যাবের মনোগ্রামের স্মৃতিসৌধের প্রতিকৃতির দুইপার্শ্বের ধানের শীষ কৃষি প্রধান বাংলাদেশের ঐতিহ্যের প্রতিচ্ছবি এবং সুখী ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রতীক।

৫। অগ্রগতির চাকা-র‍্যাবের মনোগ্রামের স্মৃতি উৎকীর্ণ স্মৃতিসৌধ এর নিচে অবস্থিত ধাতব চাকা সময়ের সাথে দ্রুত উন্নয়নশীল বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রতীক । যে কোন মূল্যে সন্ত্রাস নির্মূল করে হৃদয়ের দেশ বাংলাদেশের অর্থনীতির অগ্রগতির চাকা অব্যাহত রাখতে র‍্যাব প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

৬। র‍্যাবের মূলমন্ত্র- মনোগ্রামের সর্বনিম্নে উৎকীর্ণ বাংলাদেশ আমার অহংকার র‍্যাবের মূলমন্ত্র। এ মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত র‍্যাবের প্রতিটি সদস্য সন্ত্রাসমুক্ত সুখী এবং সমৃদ্ধ দেশ গড়ার জন্য সর্বদা বজ্র কঠিন সংকল্পবদ্ধ।

র‍্যাব ব্যাটালিয়নসমূহসম্পাদনা

ব্যাটালিয়ন নং ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর ব্যাটালিয়ন প্রধান দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকা(দপ্তর) দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকা(সিপিসি) জেলা
র‍্যাব-০১ (সদর দপ্তর)[২] হযরত শাহজালাল (র:) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পার্শ্ববর্তী কার্গো অ্যাডমিন বিল্ডিং,উত্তরা টংগী, গাজীপুর জেলা ও কালিয়াকৈর থানা সিপিসি-১: মহাখালী, বননী, গুলশান, বারিধারা থানা সিপিসি-২:উত্তরা,আশুলিয়া,বিমান বন্দর ও তুরাগ থানা সিপিসি-৩:বাড্ডা, খিলক্ষেত, উত্তরখান ও দক্ষিণখান থানা সিপিএসসি:পোড়াবাড়ি ঢাকা গাজীপুর
র‍্যাব-০২ [৩] সিপিএসসি:তেজগাঁও, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, শের-ই-বাংলা নগর ও আগারগাওঁ সিপিসি:১ধানমন্ডি, নিউমার্কেট থানা, কলাবাগান সিপিসি-২:আদাবর,হাজারীবাগ থানা

সিপিসি-৩:মোহাম্মদপুর

ঢাকা
র‍্যাব-০৩[৪] সিপিএসসি:মতিঝিল, পল্টন ও শাহজাহানপুর থানা সিপিসি-১:খিলগাঁও, রামপুরা থানা সিপিসি-২:রমনা, শাহবাগ সিপিসি-৩: সবুজবাগ ও মুগদা থানা ঢাকা
র‍্যাব-০৪[৫] সিপিএসসি: পল্লবী ও রুপনগর থানা সিপিসি-১: মিরপুর, দারূস সালাম ও শাহ-আলী থানা সিপিসি-২:সাভার, আশুলিয়া (সাভার স্মৃতিসৌধ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাভার সেনানিবাস, সাভার মিলিটারি ফার্ম এবং ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের দক্ষিণ পার্শ্বের এলাকা), ধামরাই থানা এবং মানিকগঞ্জ জেলা সিপিসি-৩:কাফরুল, ক্যান্টনমেন্ট (বারিধারা ডিওএইচএস এবং রেডিসন হোটেল সংলগ্ন বিমানবন্দর রাস্তার পূর্ব পার্শ্বের অংশ ব্যতীত) এবং ভাষানটেক থানা ঢাকা,

মানিকগঞ্জ

র‍্যাব-০৫[৬]
র‍্যাব-০৬[৭] লবনচরা, খূলনা খুলনা বিভাগ

সিপিসি-১: সাতক্ষীরা জেলার তালা, কলারোয়া, সাতক্ষীরা সদর, দেবহাটা, আশাশুনি কালিগন্জ থানা এলাকা।

সিপিসি-২: শ্যামনগর থানা

খুলনা, সাতক্ষীরা, যশোর, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, বাগেরহাট, মেহেরপুর, নড়াইল, চুয়াডাঙ্গা, মাগুরা
র‍্যাব-০৭[৮] সিপিএসসি:পতেঙ্গা, চটগ্রাম সিপিসি-১:ফেনী জেলা সিপিসি-২:কক্সবাজার জেলা সিপিসি-৩:চাঁদগাও চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, ফেনী
র‍্যাব-০৮[৯] পটুয়াখালী ক্যাম্প, সিপিএসসি:বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি ও ভোলা জেলা সিপিসি-১:পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলা

সিপিসি-২:ফরিদপুর জেলা সিপিসি-৩:মাদারীপুর, শরীয়তপুর ও গোপালগঞ্জ জেলা

বরিশাল পিরোজপুর ঝালকাঠি ভোলা পটুয়াখালী বরগুনা ফরিদপুর

মাদারীপুর শরীয়তপুর গোপালগঞ্জ

র‍্যাব-০৯[১০] সিপিএসসি:সিলেট মেট্রো সিপিসি-১:সিলেট জেলা সিপিসি-২:হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলা সিপিসি-৩:সুনামগঞ্জ জেলা সিলেট হবিগঞ্জ মৌলভীবাজার সুনামগঞ্জ
র‍্যাব-১০[১১] ব্যাটালিয়ন সদর, সিপিএসসি:ডেমরা ও যাত্রাবাড়ী থানা সিপিসি-১:শ্যামপুর, সু্ত্রাপুর, কদমতলী ও গেন্ডারিয়া থানা সিপিসি-২:কেরাণীগঞ্জ উত্তর ও দক্ষিণ থানা

সিপিসি-৩:লালবাগ, কোতয়ালী, কামরাঙ্গীরচর, বংশাল ও চকবাজার থানা

ঢাকা
র‍্যাব-১১[১২] সিপিএসসি, আদমজীনগর:ঢাকা জেলার­-নবাবগঞ্জ ও দোহার থানা,মুন্সিগঞ্জ সদর, টুঙ্গীবাড়ি, লৌহজং, শ্রীনগর ও সিরাজদিখান সিপিসি-১: মুন্সিগঞ্জ (লোহাজং, শ্রীনগর, মুন্সিগঞ্জ সদর, সিরাজদিখান, টঙ্গিবাড়ি) , ঢাকা (দোহার, নবাবগঞ্জ)

সিপিসি-২: চাঁদপুর (চাঁদপুর সদর, ফরিদগঞ্জ, হাইমচর, হাজীগঞ্জ, কচুয়া, মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিণ, শাহরাস্তি) ও কুমিল্লা (ব্রাহ্মণপাড়া, বুড়িচং, চান্দিনা, চৌদ্দগ্রাম, দাউদকান্দি, দেবীদ্বার, হোমনা, লাকসাম, মনোহরগঞ্জ, মেঘনা, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ, তিতাস)

সিপিসি-৩:লক্ষ্মীপুর (লক্ষ্মীপুর সদর, রায়পুর, রামগঞ্জ, রামগতি, কমল নগর) , নোয়াখালী (নোয়াখালী সদর, বেগমগঞ্জ, চাটখিল, কোম্পানীগঞ্জ, শেনবাগ, হাতিয়া, কবিরহাট , সোনাইমুরি, সুবর্ণ চর)

ঢাকা মুন্সীগঞ্জ নারায়ণগঞ্জ কুমিল্লা চাঁদপুর নোয়াখালী লক্ষ্মীপুর নরসিংদী
র‍্যাব-১২[১৩] সিপিএসসি: সিরাজগঞ্জ (সিরাজগঞ্জ সদর, বেলকুচি, চৌহালি, কামারখান্দা, কাজীপুর, রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর, তারাশ, উল্লাপাড়া) ও বগুড়া (আদমদিঘী, বগুড়া সদর, শেরপুর, ধুনট, দুপচাচিয়া, গাবতলি, কাহালু, নন্দিগ্রাম, শাহজাহানপুর, সারিয়াকান্দি, শিবগঞ্জ, সোনাতলা) সিপিসি-১: কুষ্টিয়া (কুষ্টিয়া সদর, কুমারখালি, দৌলতপুর, মিরপুর, ভেরামারা, খোকসা)

সিপিসি-২: পাবনা (আটঘরিয়া, বেড়া, ভাঙ্গুরা, চাটমোহর, ফরিদপুর, ঈশ্বরদী, পাবনা সদর, সাথিয়া, সুজানগর)

সিপিসি-৩: টাঙ্গাইল (টাঙ্গাইল সদর, সখিপুর, বসাইল, মধুপুর, ঘাটাইল, কালিহাতি, নগরপুর, মির্জাপুর, গোপালপুর, দেলদুয়ার, ভুয়াপুর, ধনবাড়ী)

বগুড়া সিরাজগঞ্জ পাবনা টাঙ্গাইল কুষ্টিয়া
র‍্যাব-১৩[১৪] সিপিএসসি: কুড়িগ্রাম (কুড়িগ্রাম সদর, নাগেশ্বরী, ভুরুঙ্গামারি, ফুলবাড়ি, রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারি, রউমারি, রাজিবপুর) , রংপুর (বদরগঞ্জ, মিঠাপুকুর, গঙ্গাচরা, কাউনিয়া, রংপুর সদর, পীরগাছা, পীরগঞ্জ, তারাগঞ্জ) সিপিসি-১: দিনাজপুর (বিরামপুর, বীরগঞ্জ, বিড়াল, বোচাগঞ্জ, চিরিরবন্দর, ফুলবাড়ি, ঘোড়াঘাট, হাকিমপুর, কাহারোল, খানসামা, দিনাজপুর সদর, নবাবগঞ্জ, পার্বতীপুর) , ঠাকুরগাঁও (ঠাকুরগাঁও সদর, পীরগঞ্জ, বালিয়াডাঙ্গি, হরিপুর, রাণীসংকইল)

সিপিসি-২: লালমনিরহাট (লালমনিরহাট সদর, আদিতমারি, কালীগঞ্জ, হাতিবান্ধা, পাটগ্রাম) , নীলফামারী (নীলফামারী সদর, সৈয়দপুর, জলঢাকা, কিশোরগঞ্জ, ডোমার, ডিমলা) , পঞ্চগড় (পঞ্চগড় সদর, দেবীগঞ্জ, বোদা, আটোয়ারি, তেতুলিয়া)

সিপিসি-৩:গাইবান্ধা (ফুলছড়ি, গাইবান্ধা সদর, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী, সাদুল্যাপুর, সাঘাটা, সুন্দরগঞ্জ)

রংপুর লালমনিরহাট কুড়িগ্রাম দিনাজপুর ঠাকুরগাঁও নীলফামারী পঞ্চগড় গাইবান্ধা
র‍্যাব-১৪[১৫] সিপিএসসি: ময়মনসিংহ (ময়মনসিংহ সদর) সিপিসি-১: জামালপুর (দেওয়ানগঞ্জ, বকসিগঞ্জ, ইসলামপুর, জামালপুর সদর, মাদারগঞ্জ, মেলানদাহা, সরিষাবাড়ি , নারুন্দি) , শেরপুর (ঝিনাইগাতি, নাকলা, নালিতাবাড়ি, শেরপুর সদর, শ্রীবরদি) , কুড়িগ্রাম (রউমারি, রাজিবপুর)

সিপিসি-২: কিশোরগঞ্জ (অষ্টগ্রাম, বাজিতপুর, ভৈরব, হোসেনপুর , ইটনা, করিমগঞ্জ, কতিয়াদি, কিশোরগঞ্জ সদর, কুলিয়ারচর, মিঠামাইন, নিকলি, পাকুন্ডা, তাড়াইল) , নেত্রকোণা (কেন্দুয়া, আটপাড়া, বরহাট্টা, দুর্গাপুর, কলমাকান্দা, মদন, মোহনগঞ্জ, নেত্রকোনা সদর, পূর্বধলা, খালিয়াজুরি)

সিপিসি-৩: ব্রাহ্মণবাড়িয়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, আশুগঞ্জ, নাসির নগর, নবীনগর, সরাইল, শাহবাজপুর টাউন, কসবা, আখাউরা, বাঞ্ছারামপুর, বিজয় নগর) , কিশোরগঞ্জ (অষ্টগ্রাম, বাজিতপুর, ভৈরব, হোসেনপুর , ইটনা, করিমগঞ্জ, কতিয়াদি, কিশোরগঞ্জ সদর, কুলিয়ারচর, মিঠামাইন, নিকলি, পাকুন্ডা, তাড়াইল)

ময়মনসিংহ নেত্রকোণা, জামালপুর শেরপুর কিশোরগঞ্জ ব্রাহ্মণবাড়িয়া কুড়িগ্রাম (রাজীবপুররৌমারী উপজেলা)
র‍্যাব-১৫ সিপিএসসি: কক্সবাজার (চকরিয়া, কক্সবাজার সদর, কুতুবদিয়া, মহেশখালী, রামু, টেকনাফ, উখিয়া, পেকুয়া, হোয়াইক্যং) সিপিসি-১: কক্সবাজার (টেকনাফ)

সিপিসি-২: কক্স বাজার (হোয়াইক্যং)

সিপিসি-৩: বান্দরবান (বান্দরবন সদর)

বান্দরবান, কক্সবাজার

পদ মর্যাদার স্থর বিন্যাসসম্পাদনা

উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমসম্পাদনা

সন্ত্রাসী গ্রেপ্তারসম্পাদনা

এখানে র‍্যাবের উল্লেখযোগ্য কিছু গ্রেপ্তারের বিস্তারিত বিবরণ দেয়া হল:[১৬]

আসামীর নাম অভিযোগ গ্রেফতার তথ্যসূত্র
মুফতি হান্নান তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী(২০১৪ - বর্তমান ) শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রকারী এবং নিষিদ্ধঘোষিত সংগঠন হরকাতুল জিহাদের প্রথম সারির নেতা। ১ অক্টেবর ২০০৫ [১]
পিচ্চি হান্নান সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী ২৬ জুন ২০০৪, পালিয়ে যাবার সময় হত্যা করা হয় [২]
দেবাশীষ পিচ্চি হান্নানের সহযোগী ক্রসফায়ারে মৃত, ২৪ জুন ২০০৪ [৩]
মোল্লা শামীম তিনটি হত্যাসহ ১০টি মামলার আসামী ক্রসফায়ারে মৃত, ৬ সেপ্টেম্বর ২০০৪ [৪]
সাহেব আলী ১৭ আগস্ট ২০০৫ সালের দেশব্যপী বোমা হামলার জঙ্গীবাদী লিফলেট প্রকাশকারী এবং বিতরণকারী ১৭ সেপ্টেম্বর ২০০৫ [৫]
সাহাবুদ্দীন চাঁদাবাজী হত্যা করা হয়, ২৬ অক্টোবার ২০০৪ [৬]
সৈয়দ মনির হোসেন ২টি হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ক্রসফায়ারে মৃত, ১১ মার্চ ২০০৫ [৭]
শাহজাহান হত্যা, ধর্ষণ, ছিনতাইসহ ৫টি মামলার আসামী ক্রসফায়ারে মৃত, ১২ জানুয়ারি ২০০৫ [৮]
রফিকুল ইসলাম আত্মঘাতি বোমা হামলা দলের সদস্য, নারায়ণগঞ্জ জেএমবি কমান্ডার ২৭ ডিসেম্বর ২০০৫ [৯]
সুমন আহমেদ মজুমদার চাঁদাবাজী ক্রসফায়ারে মৃত [১০]
একরামুল হক জঙ্গী ডিসেম্বর ২০০৫ [১১]
হাসিবুল ১২টি হত্যাসহ ১৬ মামলার আসামী ২৬ জানুয়ারি ২০০৫, পালিয়ে যাবার সময় হত্যা করা হয় [১২]

অস্ত্র সরঞ্জামসম্পাদনা

 
র‍্যাব সদস্যগন

র‍্যাব সদস্যগণ নিচের অস্ত্র ও যন্ত্রপাতি ব্যবহার করেন।

নাম টাইপ ক্যালিবার উৎপাদনকৃত দেশ
ব্রাওনিং এম ১৯১১ সেমি-অটোমেটিক পিস্তল .৪৫এসিপি   যুক্তরাষ্ট্র
SIG Sauer P226/228/229 সেমি-অটোমেটিক পিস্তল ৯মিমি   জার্মানি[যাচাই প্রয়োজন]
বিডি-০৮ এসাল্ট রাইফেল ৭.৬২মিমি   বাংলাদেশ
টাইপ ৫৬ এসাল্ট রাইফেল ৭.৬২মিমি   গণচীন
হেকলার & কোচ এমপি-৫ সাব মেশিনগান ৯মিমি   জার্মানি
উজি সাব মেশিনগান ৯মিমি   যুক্তরাষ্ট্র
টাইপ ৮৫ স্নাইপার রাইফেল ৭.৬২মিমি   গণচীন
রেমিংটন ৮৭০ সেমি-অটোমেটিক শটগান ১২গজ   যুক্তরাষ্ট্র
টাইপ ৯৭-১ সেমি-অটোমেটিক শটগান ১২গজ   গণচীন
টাইপ ৬৯-১ রকেট-প্রপেলড গ্রেনেড ৪০ মিমি   গণচীন

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Alam, Niloy; Al Hasnat, Mahadi (৬ নভেম্বর ২০১৬)। "DMP: SWAT team will root out militancy and terrorism"Dhaka Tribune। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৯ 
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৫ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৯ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  5. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  6. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  7. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  8. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  9. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  10. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৮ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  11. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২০ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  12. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  13. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৫ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  14. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  15. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২০ 
  16. "www.rab.gov.bd"। ৩ এপ্রিল ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা