রিতেশ বাটরা

ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক

রিতেশ বাটরা (জন্ম ১২ জুন ১৯৭৯) বাফটা পুরস্কার (ব্রিটিশ একাডেমি অব ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন আর্টস) মনোনীত একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক-লেখক। বাটরা তার প্রথম চলচ্চিত্র দ্য লাঞ্চবক্স-এর জন্যই বেশি পরিচিত, যেটাতে অভিনয় করেছিলেন ইরফান খান, নিম্রত কৌর এবং নওয়াজুদ্দীন সিদ্দিকী। এটি ২০১৩ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয় এবং রেল ডি'অর (গ্র্যান্ড গোল্ডেন রেল) পুরস্কার অর্জন করে। এছাড়াও বাটরা ২০১৪ সালে টরোন্টো ফিল্ম ক্রিটিকস অ্যাসোসিয়েশন পুরস্কার জেতেন। আমেরিকা, ইউরোপ এবং অস্ট্রেলিয়ায় দ্য লাঞ্চবক্স ছিল ২০১৪ সালের সর্বোচ্চ আয় করা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র (২৫ মিলিয়ন USD/১৮০ কোটি INR)।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

বর্তমানে তিনি দ্য সেন্স অফ অ্যান এন্ডিং নামে একটি ইংরেজি-ভাষী চলচ্চিত্র পরিচালনা করছেন যাতে অভিনয় করছেনজিম ব্রডবেন্ট। চলচ্চিত্রটি জুলিয়ান বার্নসের বুকার পুরস্কারজয়ী উপন্যাস দ্য সেন্স অফ অ্যান এন্ডিং অবলম্বনে তৈরি করা হচ্ছে।

প্রথম জীবনসম্পাদনা

রিতেশ মুম্বাইয়ের এক মধ্যবিত্ত পরিবারে ধেড়ে ওঠেন। তার বাবা যোগৈন্দর বাটরা কাজ করতেন মার্চেন্ট নেভি অফ ইন্ডিয়াতে এবং মা মঞ্জু কাপুর বাটরা ছিলেন গৃহিণী। তার বড়বোন রাধিকা বাটরা শাহ চায়ের ব্যসা করেন|[১] রিতেশ মাধ্যমিক শিক্ষা সমাপ্ত করেন মুম্বাইয়ের এভিএম হাইস্কুলে এবং পরে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের জন্যে আমেরিকায় যান। আইওয়ার ড্রেক বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে গ্র্যাজুয়েশন করে তিনি ডেলয়েট-এ পরামর্শক হিসেবে কাজ করেন। তবে তিন বছর কাজ করার পর তিনি শৈশবের চলচ্চিত্র তৈরির স্বপ্নকে বাস্তব করতে নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম স্কুলে অংশ নিলেও পরে তা ছেড়ে দেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

বাটরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র লেখা ও বানানোর মধ্য দিয়ে তার চলচ্চিত্রজীবন শুরু করেন। তার আরবি-ভাষী স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র কাফে রেগুলার, কায়রো, ৪০টির বেশি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয় এবং ১২টির বেশি পুরস্কার অর্জন করে যার মধ্যে আছে ক্রিটিকস প্রাইজ (FIPRESCI), ওবেরহাউসেন আন্তর্জাতিক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবে এবং জার্মান স্টার অফ ইন্ডিয়াতে সেরা চলচ্চিত্র। বাটরা ২০০৯ সালে তার "স্টোরি অফ রাম" প্রকল্প নিয়ে সানড্যান্স চিত্রনাট্যকার ও পরিচালকদের ল্যাবে অংশ নেন। আর সেখানে তিনি টাইম ওয়ার্নার স্টোরি টেলিং ফেলো এবং অ্যানেনবার্গ ফেলো অর্জন করেন। ২০১২ সালে বাটরা ভারতে আসেন মুম্বাইয়ের লাঞ্চবক্স ডেলিভারি ব্যবস্থা নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের জন্যে। সেবারই তিনি অগ্রসর হন তার প্রথম ফিচার চলচ্চিত্র দ্য লাঞ্চবক্স (২০১৩) নির্মাণ করতে যেটা আরো উন্নত করেন ২০১২ সালে টোরিনো ফিল্ম ল্যাবের ফ্রেমওয়ার্ক প্রোগ্রামে।

দ্য লাঞ্চবক্স কান ক্রিটিকস উইকে প্রদর্শিত হয় এবং জিতে নেয় সম্মানজনক রেল ডি'অর (গ্র্যান্ড গোল্ডেন রেল)। সনি পিকচার্স ক্লাসিকস ছধিটির উত্তর আমেরিকার স্বত্ব কিনে নেয়। দ্য লাঞ্চবক্স ৩৩ঠি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছে এবং ২৫টি পুরস্কার জিতেছে। ২০১৪ সালে বাটরা তার নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান পোয়েটিক লাইসেন্স মোশন পিকচার্স খুলেছেন এবং এখন বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রের স্লেট উন্নয়নে কাজ করছেন।

পরিচালিত চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্র শ্রেণী
২০০৮ দ্য মর্নিং রিচুয়াল স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
২০১০ গরীব নওয়াজ কি ট্যাক্সি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
২০১১ কাফে রেগুদার কায়রো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
২০১৩ দ্য লাঞ্চবক্স ফিচার চলচ্চিত্র
মাস্টারশেফ[২] Short Film
২০১৬ দ্য সেন্স অফ অ্যান এন্ডিং ফিচার চলচ্চিত্র
২০১৭ আওয়ার সোলস অ্যাট নাইট ফিচার চলচ্চিত্র

পুরস্কারসম্পাদনা

  • টাইম ওয়ার্নার স্টোরি টেলিং ফেলো - সানড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসব
  • অ্যানেনবার্গ ফেলো - সানড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসব

দ্য লাঞ্চবক্স, ২০১৩

  • (মনোনীত) "ইংরেজি ভাষার বাইরের চলচ্চিত্র" - বাফটা ২০১৫
  • রেল ডি’অর (গ্র্যান্ড গোল্ডেন রেল) - কান চলচ্চিত্র উৎসব
  • সেরা প্রথম ফিচার - Toronto Film Critics Association Award
  • সেরা পরিচালক পুরস্কার - Odessa International Film Festival
  • চার্চ অফ আইসল্যান্ড পুরস্কার - Reykjavik International Film Festival
  • সেরা চিত্রনাট্য - 7th Asia Pacific Screen Awards
  • সেরা চিত্রনাট্য - Asian Film Academy
  • সেরা চিত্রনাট্য - Asia Pacific Film Festival
  • জুরি গ্র্যান্ড প্রাইজ - 7th Asia Pacific Screen Awards
  • মুহর এশিয়া-আফ্রিকা স্পেশাল মেনশন - Dubai International Film Festival
  • সেরা চলচ্চিত্র - Amazonas Film Festival, Brazil
  • ক্যানভাস অডিয়েন্স পুরস্কার - Ghent International Film Festival, Belgium
  • অডিয়েন্স পুলস্কার - World Cinema Amsterdam
  • সেরা পরিচালক - International Festival Young Filmmakers of Saint-Jean-de-Luz
  • দর্শক পুরস্কার - Belfast Film Festival, UK
  • সেরা ফিচার চলচ্চিত্র - Zagreb Golden Pram Award

কাফে রেগুলার কায়রো, ২০১১

  • ক্রিটিকস প্রাইজ (FIPRESCI) সেরা চলচ্চিত্র- International Short Film Festival Oberhausen
  • জুরি স্পেশাল মেনশন - Tribeca Film Festival
  • জুরি স্পেশাল মেনশন - Chicago International Film Festival
  • সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র - The Warp
  • সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র - German Star of India
  • ক্লিপাজেম ট্রফি - Kinoforum - Brazil
সম্মাননা
  • আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম ক্লাবের আজীবন সদস্যপদ লাভ এবং ৮ম ফিল্মসাজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির সম্মাননা।[৩][৪][৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা