রিচার্ড ই. গ্র্যান্ট

ইংরেজ অভিনেতা ও উপস্থাপক

রিচার্ড ই. গ্র্যান্ট (ইংরেজি: Richard E. Grant; জন্ম: রিচার্ড গ্র্যান্ট এস্তারহুসেন;[২][৩] ৫ মে ১৯৫৭) একজন সোয়াজি-ইংরেজ অভিনেতা[৪][৫][৬] ও উপস্থাপক।[১] তিনি উইথনেইল অ্যান্ড আই (১৯৮৭) চলচ্চিত্রে উইথনেইল চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রাঙ্গনে আগমন করেন এবং হাউ টু গেট অ্যাহেড ইন অ্যাডভারটাইজিং (১৯৮৯), হাডসন হক (১৯৯১), দ্য প্লেয়ার (১৯৯২), ব্র্যাম স্টকার্স ড্রাকুলা (১৯৯২), দি এজ অব ইনোসেন্স (১৯৯৩), স্পাইস ওয়ার্ল্ড (১৯৯৭), গসফোর্ড পার্ক (২০০১), দি আয়রন লেডি (২০১১), লোগান (২০১৭), স্টার ওয়ার্স: দ্য রাইজ অব স্কাইওয়াকার (২০১৯) ও এভরিবডিজ টকিং অ্যাবাউট জেমি (২০২১) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন।

রিচার্ড ই. গ্র্যান্ট
Richard E. Grant
Richard E. Grant 2018.jpg
২০১৮ সালে গ্র্যান্ট
জন্ম
রিচার্ড গ্র্যান্ট এস্তারহুসেন

(1957-05-05) ৫ মে ১৯৫৭ (বয়স ৬৫)
জাতীয়তাসোয়াজি, ব্রিটিশ[১]
অন্যান্য নামরিচার্ড গ্র্যান্ট
শিক্ষাকেপটাউন বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেতা, উপস্থাপক
কর্মজীবন১৯৮০-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীজোন ওয়াশিংটন (বি. ১৯৮৬; মৃ. ২০২১)
সন্তান
ওয়েবসাইটrichard-e-grant.com

গ্র্যান্ট ক্যান ইউ এভার ফরগিভ মি? (২০১৮) চলচ্চিত্রে জ্যাক হক চরিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্পিরিট পুরস্কার অর্জন করেন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার, গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, বাফটা পুরস্কারস্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

গ্র্যান্ট ১৯৫৭ সালের ৫ই মে সোয়াজিল্যান্ডের (বর্তমান ইসোয়াতিনি) এমবাবানে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা হেনরিক এস্তারহুসেন ও মাতা লিওন। হেনরিক সোয়াজিল্যান্ডের ব্রিটিশ প্রোটেক্টোরেটের ব্রিটিশ সরকার প্রশাসনের শিক্ষা ব্যবস্থার প্রধান ছিলেন।[৭][৮][৯] গ্র্যান্ট ইংরেজ, ওলন্দাজ/আফ্রিকানার ও জার্মান বংশোদ্ভূত।[১০] তার ছোট ভাই স্টুয়ার্ট জোহানেসবার্গে হিসাবরক্ষক হিসেবে কর্মরত। গ্র্যান্ট বলেন তাদের মধ্যে কখনো কোন সম্পর্ক গড়ে ওঠেনি।[৯][১১]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

গ্র্যান্ট ১৯৮৬ সালে কণ্ঠানুশীলন কোচ জোন ওয়াশিংটনকে বিয়ে করেন। তাদের এক কন্যা অলিভিয়া এবং সৎ ছেলে টম। ওয়াশিংটন ২০২১ সালের ২রা সেপ্টেম্বর চতুর্থ স্তরের ফুসফুসের ক্যান্সারের[১২] চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।[১৩][১৪]

বইয়ের তালিকাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Busy Making Other Plans: Richard E. Grant"স্টপ স্মাইলিং। নং ২৬। ২১ জুন ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  2. "Star Profile: Richard E Grant"ইভনিং টাইমস। ৫ জুন ২০০৩। ৭ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  3. "The World According To Grant"দি ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড পত্রিকা। ১৭ জানুয়ারি ২০০৩। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ – richard-e-grant.com-এর মাধ্যমে। 
  4. "Richard E Grant's new film, Wah-Wah"দ্য গার্ডিয়ান (ইংরেজি ভাষায়)। ৬ আগস্ট ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  5. ইমস, টম (২৩ জানুয়ারি ২০১৯)। "Richard E Grant facts: Who is his wife and daughter, how tall is he and what movies is he in?"স্মুদ রেডিও। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  6. র‍্যামটন, জেমস (১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬)। "Richard E Grant interview: 'The anarchic spirit is the basis of comedy - it's timeless'"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  7. "Richard E. Grant Biography (1957-)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  8. "Richard E. Grant Biography"ইয়াহু! মুভিজ। ১৭ মে ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. "Richard E Grant: At 11 I caught my mother cheating with dad's best friend"ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড। ২০ সেপ্টেম্বর ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  10. ডিডকক, ব্যারি (৩০ এপ্রিল ২০০৬)। "A life in pictures: Richard E Grant not only made a film of his diaries, he kept a diary during filming"সানডে হেরাল্ড। ৭ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  11. গিলবার্ট, জেরার্ড (২৯ মে ২০০৯)। "Richard E Grant: Welcome to my family"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  12. ওট, জেদিদাজা (১১ সেপ্টেম্বর ২০২১)। "Richard E Grant reveals late wife Joan Washington had lung cancer"দ্য গার্ডিয়ান। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  13. "Richard E Grant's wife Joan Washington dies"ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড। ৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 
  14. "Richard E Grant says he is heartbroken at death of wife Joan Washington"দ্য গার্ডিয়ান। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০২২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা