রামবন জেলা

জম্মু ও কাশ্মিরের একটি জেলা

রামবন জেলা হল ভারতের ২২টি প্রশাসনিক জেলা, যা নিয়ে জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য গঠিত। জেলা সদর রামবনে শহর। ২০১১ সালের হিসাবে এটি কাশ্মীরের সর্বাধিক জনবহুল জেলা (২২টির মধ্যে)।[৩] এটি হিমালয়ের পীর পাঞ্জাল পরিসরে অবস্থিত। এটি পূর্ববর্তী ডোডা জেলা থেকে এই অঞ্চলের মানুষের কষ্ট, দূরত্ব এবং সুবিধার কথা বিবেচনা করে তৈরি করা হয়েছিল। ২০০৭ সালের ১লা এপ্রিল স্বাধীন জেলা হিসাবে পরিচালিত হতে থাকে।[৪] শহরটি জম্মু ও শ্রীনগরের মধ্যবর্তী স্থানে চেনাব নদীর তীরে, জাতীয় মহাসড়ক-৪৪, (মূলত জাতীয় সড়ক ১এ (ভারত)) জম্মু ও শ্রীনগর থেকে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।[৫]

রামবন জেলা
জম্মু ও কাশ্মীরের জেলা
জম্মু ও কাশ্মীরে রামবন জেলার অবস্থান
জম্মু ও কাশ্মীরে রামবন জেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক (জম্মু): ৩৩°১৪′২৪″ উত্তর ৭৫°১৪′২৪″ পূর্ব / ৩৩.২৪০০০° উত্তর ৭৫.২৪০০০° পূর্ব / 33.24000; 75.24000স্থানাঙ্ক: ৩৩°১৪′২৪″ উত্তর ৭৫°১৪′২৪″ পূর্ব / ৩৩.২৪০০০° উত্তর ৭৫.২৪০০০° পূর্ব / 33.24000; 75.24000
দেশভারত
রাজ্যজম্মু ও কাশ্মীর
বিভাগজম্মু বিভাগ
সদর দপ্তরজম্মু
তহসিল
আয়তন
 • মোট১,৩২৯ বর্গকিমি (৫১৩ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট২,৮৩,৭১৩
 • জনঘনত্ব২১০/বর্গকিমি (৫৫০/বর্গমাইল)
 • পৌর এলাকা৪.১৬%[১]
জনসংখ্যার উপাত্ত
 • সাক্ষরতা৫৪.২৭%[২]
 • লিঙ্গ অনুপাত৯০২
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
যানবাহন নিবন্ধনজেকে-১৯
প্রধান মহাসড়কএনএইচ -৪৪
ওয়েবসাইটhttp://ramban.gov.in
রামবনে চেনাব নদীর উপরে পুরাতন একটি সেতু

প্রশাসনসম্পাদনা

রামবন জেলা আটটি তহশিলে বিভক্ত: বনহাল, রামবন, খড়ি, রাজগড়, বাটোতে, গল, পোগল পারিস্তান (উখরাল) এবং রামসু।[৬] প্রতিটি তহশিলের প্রশাসনিক প্রধান হলেন এর তহশিলদার। ২০০১ সালের ভারতীয় জনগণনা অনুসারে ১১৬টি জনগণনা গ্রাম ও ১২৭টি রাজস্ব গ্রাম নিয়ে এই জেলা গঠিত। জেলার মোট পঞ্চায়েত হালকাস সংখ্যা ছিল ১২৪।

ভূগোলসম্পাদনা

রামবন জেলা সমুদ্রপৃষ্ঠের ১,১৫৬ মিটার (৩,৭৯২ ফুট) (গড়ে) উপরে অবস্থিত। জেলার দক্ষিণে পাহাড়ি অঞ্চল পটনিটপ, পূর্ব প্রান্তে আসার, পশ্চিমে এবং উত্তরে বনিহাল রয়েছে। রামবন জেলা ভূখণ্ড খুবই শক্ত ও পার্বত্য। জেলা রামবন তার সীমানা রেসি, উধমপুর, ডোডা, অনন্তনাগ এবং কুলগামের সাথে ভাগ করে নিয়েছে।[৭]

জলবায়ুসম্পাদনা

জেলার জলবায়ু উচ্চতা অনুসারে পরিবর্তিত হয়। চেনাব নদীর তীরে পাহাড়ের মাঝখানে অবস্থিত রামবন শহরের নিম্ন তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড পর্যন্ত বৃদ্ধি পায় এবং উপরে অবস্থিত অঞ্চলগুলি যেমন সংঙ্গদন, গুল, ধাগানটপ, আস্তানমার্গ, লালাগুনডী, ভুধান শূন্যের নিচে নেমে আসে। আবহাওয়ার কারণে জেলার বেশিরভাগ কাজ বছরের প্রায় আট মাসই হয়ে থাকে।

রাজনীতিসম্পাদনা

রামবন জেলাতে তিনটি বিধানসভা কেন্দ্র রয়েছে: রামবন, বনহাল এবং গুল।[৮]

জনসংখ্যাসম্পাদনা

২০১১ সালের ভারতীয় জনগণনা অনুসারে রামবন জেলা মোট জনসংখ্যা ছিল ২৮৩,৭১৩ জন[৯] যা প্রায় বার্বাডোসের জনসংখ্যা সমান।[১০] একে ভারতের ৫৭৩তম জনবহুল জেলায় পরিণত করেছে (৬৪০টি জেলার মধ্যে)। [৯] জেলার জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গকিলোমিটারে ২১৩ জন লোক বসবাস করে (প্রতি বর্গমাইলে ৫৫০ জন)।[৯] ২০০১-২০১১ এর দশকে রামবন জেলার জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল ৩১.৮১% শতাংশ।[৯] লিঙ্গ অনুপাত প্রতি ১০০০ জন পুরুষের বিপরীতে ৯০১ জন নারী রয়েছে।[৯] স্বাক্ষরতার হার ৫৪.২৭%।[৯]

কাশ্মীরি এবং এর উপভাষাগুলি (পোগুলি এবং সিরাজী) জেলার সর্বাধিক বহুল আলোচিত ভাষা। এখানে যে অন্যান্য ভাষাগুলি কথিত হয় সেগুলি হল - উর্দু, পাঞ্জাবী, ডোগ্রি এবং গোজরি। রামবনে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে, মুসলমানরা প্রায় ৭০% রয়েছে এবং হিন্দু জনসংখ্যার প্রায় ২৮% এবং অন্যান্যরা খুব ছোট সংখ্যালঘুদের গোষ্ঠি গঠন করেছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Census of India 2011
  2. "Ramban District Population, Caste, Religion Data (Jammu and Kashmir) - Census 2011" 
  3. 2011 census J&K
  4. - About Ramban
  5. Statement showing the number of blocks in respect of 22 Districts of Jammu and Kashmir State including newly Created Districts ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১০ সেপ্টেম্বর ২০০৮ তারিখে dated 2008-03-13, accessed 2008-08-30
  6. "District Profile"District Administration, Ramban। Indian Government। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  7. - About Ramban
  8. "ERO's and AERO's"। Chief Electoral Officer, Jammu and Kashmir। ২০০৮-১০-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২৮ 
  9. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 
  10. US Directorate of Intelligence। "Country Comparison:Population"। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-০১Barbados 286,705 July 2011 est.