প্রধান মেনু খুলুন

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, হায়দ্রাবাদ

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম (তেলুগু: రాజీవ్ గాంధీ అంతర్జాతీయ క్రికెట్ మైదానం, উর্দু: راجیو گاندھی انٹرنیشنل کرکٹ اسٹیڈیم‎‎) হচ্ছে হায়দ্রাবাদ, তেলঙ্গানা, ভারতে অবস্থিত একটি আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম এবং এটি হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট সংস্থার হোম গ্রাউন্ড। এটি উপ্পাল নামক স্থানে অবস্থিত। এটি ৫৫,০০০ দর্শক ধারনক্ষমতা সম্পূর্ণসহ সর্বোচ্চ ৬৫,০০০ দর্শক এতে খেলা উপভোগ করতে পারে। এ স্টেডিয়ামের আয়তন ১৬ একর (৬৫,০০০ মি)। ভিভিএস লক্ষ্মণ এর অবসরের পরে, হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট সংস্থা তাদের রাজ্যের গর্বিত এই ক্রিকেটারকে সম্মান জানানোর লক্ষ্যে মাঠের উত্তর-শেষ প্রান্ত তার নামানুসারে নামাঙ্কিত করেছে।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম
రాజీవ్ గాంధీ అంతర్జాతీయ క్రికెట్ మైదానం
راجیو گاندھی انٹرنیشنل کرکٹ اسٹیڈیم
RGIS HYD.jpg
রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামের দৃশ্য
স্টেডিয়ামের তথ্যাবলী
অবস্থানহায়দ্রাবাদ, তেলঙ্গানা, ভারত
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৩
ধারন ক্ষমতা৬৫,০০০
স্বত্ত্বাধিকারীহায়দ্রাবাদ ক্রিকেট সংস্থা
স্থপতিশশী প্রভু[১]
পরিচালনায়হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট সংস্থা
অন্যান্যভারত ক্রিকেট দল
হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট দল
সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ
প্রান্ত
শিবলাল যাদব প্রান্ত
ভিভিএস লক্ষ্মণ প্রান্ত
প্রথম টেস্ট১২ নভেম্বর ২০১০: ভারত বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭: ভারত বনাম বাংলাদেশ
প্রথম ওডিআই১৬ নভেম্বর ২০০৯: ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ ওডিআই৯ নভেম্বর ২০১৪: ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা
২২ মার্চ ২০১৬ অনুযায়ী
উৎস: ইসপিএন ক্রিকইনফো

পরিকাঠামোসম্পাদনা

  • লাল বাহাদুর শাস্ত্রী স্টেডিয়াম এর আধুনিক বিকল্প হিসেবে আরো বেশি আসন বিশিষ্ট এই স্টেডিয়াম গড়ে তোলা হয়।
  • এটি ৫৫,০০০ দর্শক ধারনক্ষমতা সম্পূর্ণসহ সর্বোচ্চ ৬৫,০০০ দর্শক এতে খেলা উপভোগ করতে পারে। এ স্টেডিয়ামের আয়তন ১৬ একর (৬৫,০০০ মি২)। ভিভিএস লক্ষ্মণের অবসরের পরে, হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট সংস্থা তাদের রাজ্যের গর্বিত এই ক্রিকেটারকে সম্মান জানানোর লক্ষ্যে মাঠের উত্তর-শেষ প্রান্ত তার নামানুসারে নামাঙ্কিত করেছে।
  • দিবা-রাত্রির ম্যাচে আলোর জন্য ৬টি টাওয়ারে ফ্লাড লাইটের ব্যবস্থা রয়েছে ৷

টেস্টসম্পাদনা

ভারতের নবীনতম টেস্ট স্টেডিয়ামগুলোর একটি এটি। এখনো অব্দি ৪ টি টেস্ট ম্যাচ হয়েছে। সেগুলি যথাক্রমে প্রথম ২টি নিউ জিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে।

এক দিবসীয়সম্পাদনা

এখনো অব্দি ৫ টি ম্যাচ হয়েছে। ভারত তার ৩টি ম্যাচ এ হেরেছে। এখনো অব্দি ২টি অএশীয় দেশ ভারতের বিরুদ্ধে এই মাঠে জয় পেয়েছে।

দেশ প্রথম জয়(সেরা খেলোয়াড়) সর্বশেষ জয়(সেরা খেলোয়াড়)
অস্ট্রেলিয়া ২০০৭ (অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস) ২০০৯ (-)
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০০৫ (-) এখনো অব্দি একমাত্র জয়

২০০৫ দক্ষিণ আফ্রিকার ভারত সফরসম্পাদনা

২০০৭ অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরসম্পাদনা

এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়া। ম্যাথু হেইডেন, মাইকেল ক্লার্কঅ্যান্ড্রু সাইমন্ডস-এর সৌজন্যে ২৯০ রান তোলে। জবাবে ব্রেট লি-র দুরন্ত বোলিংয়ে ১৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পরে যায় ভারত। যুবরাজ সিং একক ভাবে ভালো খেললেও লি ও ব্র্যাড হগ-এর বোলিংয়ে ২৪৩ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

২০০৯ অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরসম্পাদনা

এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়া। শেন ওয়াটসন, শন মার্শক্যামেরন হোয়াইট-এর সৌজন্যে ৩৫০ রান তোলে। শচীন তেন্ডুলকর শুরু থেকে প্রতিরোধ গড়ে তুললেও যোগ্য সংগদ পাননি। ১৭৫ রান করে নিজের কেরিয়ারের ৩য় সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেন। ক্লিন্ট ম্যাককেশেন ওয়াটসন-এর বোলিংয়ে পর পর উইকেট হারাতে থাকে ভারত। ১৮ বলে ১৯ রান বাকি থাকতে সচিন আউট হয়ে যান। কিছু পর নবাগত রবীন্দ্র জাদেজা রান আউট হয়ে যায় ও ভারত ৩ রানে ম্যাচটি হারে।

২০১১ ইংল্যান্ডের ভারত সফরসম্পাদনা

২০১৪ শ্রীলংকার ভারত সফরসম্পাদনা

চিত্রসম্পাদনা

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম এর প্যানারমিক চিত্র

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "spa-aec.com"। ২৩ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ মার্চ ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা