রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট।

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ রাজশাহীতে অবস্থিত একটি প্রাচীন সরকারি বহুমুখী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।[১] ১৯৬৩ সালে এই পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এ প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর অধীনে ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স পরিচালনা করে থাকে।

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট
Rajshahi Polytechnic Institute.jpg
রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর প্রধান প্রবেশ পথ
নীতিবাক্যজ্ঞানই আলো
ধরনসরকারি
স্থাপিত১৯৬৩ (1963)
অধিভুক্তিবাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড
অধ্যক্ষপ্রকৌশলী ফরিদউদ্দিন আহমেদ
অবস্থান,
২৪°২২′৪৬″ উত্তর ৮৮°৩৬′২৫″ পূর্ব / ২৪.৩৭৯৪২৫° উত্তর ৮৮.৬০৬৯৭৮° পূর্ব / 24.379425; 88.606978স্থানাঙ্ক: ২৪°২২′৪৬″ উত্তর ৮৮°৩৬′২৫″ পূর্ব / ২৪.৩৭৯৪২৫° উত্তর ৮৮.৬০৬৯৭৮° পূর্ব / 24.379425; 88.606978
শিক্ষাঙ্গনশহুরে
ক্রীড়াক্রিকেট, ফুটবল, বাস্কেটবল, টেনিস এবং মিনি অলিম্পিক
ওয়েবসাইটrpi.gov.bd

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৬৩ সালে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা গ্রহণের উদ্দেশ্যে রাজশাহীর সপুরাতে ১৫ একর জমির উপর ১৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠিত হয়। জনাব বদরুল হুদা প্রথম অধ্যক্ষ হিসেবে নিযুক্ত হন।

অবকাঠামোসম্পাদনা

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাস এ মোট ৭ টি ভবন সহ সুবিশাল এলাকা নিয়ে বিস্তৃত । এখানে ছেলেদের জন্য ২ টি হোষ্টেল এবং মেয়েদের জন্য ১ টি হোষ্টেল আছে।

শিক্ষা কার্যক্রমসম্পাদনা

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর অধীনে বর্তমানে ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স চালু রয়েছে। কারিগরি শিক্ষার পাশাপাশি প্রত্যেক প্রযুক্তির ছাত্র-ছাত্রীদের আবশ্যিকভাবে বিকাশের জন্য বাংলা, ইংরেজি, গণিত, পদার্থ, রসায়ন, ব্যবস্থাপনা, সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে পাঠদানের জন্য একটি অকারিগরি (NonTech) শিক্ষা বিভাগ রয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের সকালে ও দুপুরে দুই শিফটে পাঠদান করা হয়।

বিভাগসম্পাদনা

  1. যন্ত্র প্রকৌশল বিভাগ
  2. ইলেকট্রনিক্স প্রকৌশল বিভাগ
  3. কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগ
  4. পুরকৌশল (সিভিল) বিভাগ
  5. তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগ
  6. যন্ত্র প্রকৌশল বিভাগ
  7. শক্তি প্রকৌশল বিভাগ
  8. মেকাট্রনিক্স প্রকৌশল বিভাগ
  9. ইলেক্ট্রোমেডিকেল প্রকৌশল বিভাগ

ভর্তি পদ্ধতিসম্পাদনা

প্রতি বছর এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর দেশের সরকারি পলিটেকনিক গুলোতে এক সাথে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করে। তারপর এসএসসি পরিক্ষায় বিভিন্ন বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর এর উপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থী ভর্তি নেয়া হয় । অনলাইনে ভর্তি ফর্ম পূরণের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন বিভাগ ও পলিটেকনিক পছন্দের সুযোগ থাকে। মেধা ও পছন্দের ভিত্তিতে বিভাগ ও ইন্সটিটিউট নির্বাচন করা হয়। এভাবে প্রতি বছর রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে প্রথম ও দ্বিতীয় শিফটে বিভিন্ন বিভাগে নির্ধারিত আসন সংখ্যা ৯৬০ হতে বৃদ্ধি করে ১৪৪০ জন ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি হয়ে থাকে ।

ছাত্রাবাসসম্পাদনা

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর শিক্ষার্থীদের জন্য দুটি ছাত্রাবাস এবং একটি ছাত্রীনিবাস আছে ।

ছবি সমূহসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা