যিহূদীয় মরুভূমি

যিহূদীয় মরুভূমি বা ইয়াহুদার মরুভূমি (হিব্রু ভাষায়: מִדְבַּר יְהוּדָה‎; আরবি: صحراء يهودا‎‎) হল ফিলিস্তিনইসরায়েলে অবস্থিত একটি মরুভূমি যা জেরুসালেমের পূর্বদিকে অবস্থিত এবং মৃত সাগর পর্যন্ত বিস্তৃত।

যিহূদীয় মরুভূমি
লাল রঙে চিহ্নিত ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনে যিহূদীয় মরুভূমির অবস্থান

ভূগোলসম্পাদনা

যিহূদীয় মরুভূমি উত্তরপূর্ব নেগেভ থেকে পূর্বে বেইত এল পর্যন্ত বিস্তৃত, এবং এটি প্রাকৃতিক সোপানখাঁড়া উঁচু পাহাড় দ্বারা চিহ্নিত রয়েছে। এটি মৃত সাগর ও জর্ডান উপত্যকার দিকে নেমে থেমে যায়। যিহূদীয় মরুভূমিতে অনেক ওয়াদি পাওয়া যায় উত্তরপূর্ব হতে দক্ষিণপূর্ব পর্যন্ত[সন্দেহপূর্ণ ] এবং এখানে অনেক গিরিখাত রয়েছে, অধিকাংশ গিরিখাত গুলো পশ্চিমে ৩৬৬ মিটার (১,২০১ ফু) থেকে পূর্বে ১৮৩ মিটার (৬০০ ফু) পূর্ব পর্যন্ত গভীর হয়ে থাকে।[১] যিহূদীয় মরুভূমি পূর্বের যিহূদীয় পর্বতমালা সহ একটি বিশেষ রূপগত গঠন বিশিষ্ট অঞ্চল।

কখনো কখনো এর নাম বলা হয় יְשִׁימוֹןইয়েশিমন, অর্থ মরুভূমি বা বন্য এলাকা, বা এটি এখনো যিহূদার মরুপ্রান্তর নামে পরিচিত।[২]

অবস্থান এবং জলবায়ুসম্পাদনা

যিহূদীয় মরুভূমি জেরুসালেমের পূর্বদিকে অবস্থিত এবং মৃত সাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। এই অঞ্চলের প্রধান প্রধান শহুরে এলাকাগুলো হল জেরুসালেম, বেথেলহাম, গুশ এজিওন, জেরিকো এবং হেবরন[৩]

যিহূদা অঞ্চলে বৃষ্টিপাত অঞ্চলের উপর নির্ভরশীল, পশ্চিম পাহাড়ে ৪০০–৫০০ মিলিমিটার (১৬–২০ ইঞ্চি) থেকে, পশ্চিম জেরুসালেমের দিকে (কেন্দ্রীয় যিহূদা) বৃদ্ধি পেয়ে ৬০০ মিলিমিটার (২৪ ইঞ্চি), পূর্ব জেরুসালেমে কমে গিয়ে তা ৪০০ মিলিমিটার (১৬ ইঞ্চি) এবং বৃষ্টিচ্ছায়ের প্রভাবে পূর্বাঞ্চলে হ্রাস পেয়ে হয় ১০০ মিমি (৩.৯ ইঞ্চি)। এর জলবায়ুর পরিসীমায় পশ্চিমে ভূমধ্যসাগর, পূর্বে মরুজ জলবায়ু সমেত মধ্যদিকে আধা-শুষ্ক জলবায়ু অন্তর্ভুক্ত।

যিহূদীয় গ্রুপ একুইফারেসম্পাদনা

জেরুসালেমের হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে যিহূদীয় মরুভূমির নিচে একটি ভূগর্ভস্থ জলাধার রয়েছে যার নাম দেওয়া হয়েছে যিহূদীয় গ্রুপ একুইফারে, জানা গেছে এই একুইফারে যিহূদীয় পর্বতমালা থেকে শুরু হয়ে উত্তরপূর্ব মৃত সাগরের দিকে প্রবাহিত হয়ে সাথে সুকিম, কানে, সামার ও এইন-গেদির ঝরনায় বহিঃপ্রবাহে পানি প্রদান করে। বৃষ্টির জলে সৃষ্ট এই একুইফারে গড়ে বার্ষিক ১০০ নিযুত ঘনমিটার (৩.৫×১০^ ঘনফুট) পানি পাওয়া সম্ভব।[৪]

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রারম্ভিক খ্রিস্টীয় সন্ন্যাসবাদসম্পাদনা

যিহূদীয় মরুভূমি খ্রিস্টীয় সন্ন্যাসবাদের প্রাথমিক পর্যায়ের সাথে সংযুক্ত। মরুপিতা, মরুমাতা ও অনেক প্রভাবশালী খ্রিস্টীয় ব্যক্তি রয়েছেন যাদের কিছু অংশ নিজের জীবন এই মরুভূমিতে বা মরুভূমি সংলগ্ন এলাকা যেমন জেরুসালেম বা বেথেলহামে সন্ন্যাসী অথবা সন্ন্যাসী সংগঠনের সদস্য হিসেবে জীবন কাটিয়েছেন। একটি সংক্ষিপ্ত কালানুক্রমিক তালিকায় চ্যারিটন দ্য কনফেসর (মধ্য তৃতীয় শতাব্দী – আনু. ৩৫০), মহান হিলারিয়ন (২৯১–৩৭১), মহান ইউথিমিয়াস (৩৭৭–৪৭৩), জেরোম (আনু. ৩৪২/৪৭–৪২) সাথে তার সহচরিনী রোমের পলা (৩৪৭–৪০৪) ও তার কন্যা ইউস্টোচিয়াম (আনু. ৩৬৮–৪১৯/২০) সেইসাথে টাইরানিয়াস রুফিনাস (৩৪৪/৪৫–৪১১), মেলানিয়া দ্য এল্ডার (আনু. ৩৫০–৪১৭?) ও তার নাতনি মেলানিয়া দ্য ইয়ঙ্গার (আনু. ৩৮৩–৪৩৯), মিশরের মেরি (আনু. ৩৪৪–৪২১), জর্ডানের গেরাসিমাস (পঞ্চম শতাব্দী), সেনোবিয়ার্কীয় থিওডোসিয়াস (আনু. ৪২৩–৫২৯) ও তার সমসাময়িক পবিত্র সাব্বাস (৪৩৯–৫৩২), যা মঠে দামেস্কের জন (আনু. ৬৭৫/৭৬–৭৪৯?) তার জীবনের অনেকাংশ সময় কাটিয়েছিলেন। সাইথোপলিসের সিরিল (আনু. ৫২৫–৫৫৯) তার সময়ের মরুভূমি সন্ন্যাস সম্পর্কে লিখেছেন, যা জন মশাসও (আনু. ৫৫০–৬১৯) লিখেছিলেন।

চিত্রশালাসম্পাদনা

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Elisha Efrat (১৯৮৮)। Geography and Politics in Israel Since 1967। Routledge (Taylor & Fancis)। 
  2. "Judean Wilderness"। BiblePlaces.com। ২০১৫-০৯-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-১১-২৮ 
  3. Picturesque Israel I: Jerusalem, Judah, Ephraim[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "There's Water Under the Desert -- But It's Hardly Being Used"